ঢাকা ০৮:৪৮ অপরাহ্ন, সোমবার, ১৫ জুলাই ২০২৪, ৩১ আষাঢ় ১৪৩১ বঙ্গাব্দ

ইভ্যালি দম্পতির বিরুদ্ধে গ্রেপ্তারি পরোয়ানা

নিজস্ব প্রতিবেদক
  • সংবাদ প্রকাশের সময় : ০৪:১১:৪৪ অপরাহ্ন, বৃহস্পতিবার, ২৮ মার্চ ২০২৪ ৯৫ বার পড়া হয়েছে
বাংলা টাইমস অনলাইনের সর্বশেষ নিউজ পেতে অনুসরণ করুন গুগল নিউজ (Google News) ফিডটি

ই-কমার্স প্রতিষ্ঠান ইভ্যালির এমডি মোহাম্মদ রাসেল ও প্রতিষ্ঠানের চেয়ারম্যান রাসেলের স্ত্রী শামীমা নাসরিনের বিরুদ্ধে গ্রেপ্তারি পরোয়ানা জারি করেছেন আদালত। বৃহস্পতিবার (২৮ মার্চ) ঢাকার ষষ্ঠ যুগ্ম মহানগর দায়রা জজ হুমায়ুন কবির এই আদেশ প্রদান করেন।

তোফাজ্জল হোসেন নামে এক ব্যক্তির দায়ের করা চেক প্রতারণার মামলায় আদালতে মামলাটির চার্জগঠনের জন্য দিন ধার্য ছিল বুহস্পতিবার (২৮ মার্চ)। এদিন আসামিরা উপস্থিত না হওয়ায় আদালত তাদের বিরুদ্ধে গ্রেপ্তারি পরোয়ানা জারি করেন।

মামলার বিবরণে প্রকাশ, ই-কমার্স প্রতিষ্ঠান ইভ্যালির পক্ষ থেকে বিশেষ ছাড়ে মোটরসাইকেল বিক্রির অফার দেখতে পেয়ে চলতি বছরের ২৬ ফেব্রুয়ারি এক লাখ ৪৯ হাজার ৬৩৫ টাকা পরিশোধ করে একটি মোটরসাইকেল অর্ডার করেন বাদী। মোটরসাইকেলটি ৪৫ দিনের মধ্যে ডেলিভারি দেওয়ার কথা ছিল। নির্ধারিত সময়ে মোটরসাইকেলটি ডেলিভারি করতে না পারায় ২৮ জুন দুই লাখ ৫০ হাজার টাকার একটি চেক ইভ্যালির পক্ষ থেকে বাদীকে ইস্যু করা হয়। ব্যাংকে টাকা উত্তোলন করতে গেলে চেকটি ডিজঅনার হয়। এরপর বাদী আসামিদের লিগ্যাল নোটিশ পাঠিয়ে ৩০ দিনের মধ্যে টাকা পরিশোধের তাগিদ দেন। তারপরও টাকা পরিশোধ না করায় বাদী আদালতে মামলা দায়ের করেন।

নিউজটি শেয়ার করুন

আপনার মন্তব্য

Your email address will not be published. Required fields are marked *

আপনার ইমেইল এবং অন্যান্য তথ্য সংরক্ষন করুন

ইভ্যালি দম্পতির বিরুদ্ধে গ্রেপ্তারি পরোয়ানা

সংবাদ প্রকাশের সময় : ০৪:১১:৪৪ অপরাহ্ন, বৃহস্পতিবার, ২৮ মার্চ ২০২৪

ই-কমার্স প্রতিষ্ঠান ইভ্যালির এমডি মোহাম্মদ রাসেল ও প্রতিষ্ঠানের চেয়ারম্যান রাসেলের স্ত্রী শামীমা নাসরিনের বিরুদ্ধে গ্রেপ্তারি পরোয়ানা জারি করেছেন আদালত। বৃহস্পতিবার (২৮ মার্চ) ঢাকার ষষ্ঠ যুগ্ম মহানগর দায়রা জজ হুমায়ুন কবির এই আদেশ প্রদান করেন।

তোফাজ্জল হোসেন নামে এক ব্যক্তির দায়ের করা চেক প্রতারণার মামলায় আদালতে মামলাটির চার্জগঠনের জন্য দিন ধার্য ছিল বুহস্পতিবার (২৮ মার্চ)। এদিন আসামিরা উপস্থিত না হওয়ায় আদালত তাদের বিরুদ্ধে গ্রেপ্তারি পরোয়ানা জারি করেন।

মামলার বিবরণে প্রকাশ, ই-কমার্স প্রতিষ্ঠান ইভ্যালির পক্ষ থেকে বিশেষ ছাড়ে মোটরসাইকেল বিক্রির অফার দেখতে পেয়ে চলতি বছরের ২৬ ফেব্রুয়ারি এক লাখ ৪৯ হাজার ৬৩৫ টাকা পরিশোধ করে একটি মোটরসাইকেল অর্ডার করেন বাদী। মোটরসাইকেলটি ৪৫ দিনের মধ্যে ডেলিভারি দেওয়ার কথা ছিল। নির্ধারিত সময়ে মোটরসাইকেলটি ডেলিভারি করতে না পারায় ২৮ জুন দুই লাখ ৫০ হাজার টাকার একটি চেক ইভ্যালির পক্ষ থেকে বাদীকে ইস্যু করা হয়। ব্যাংকে টাকা উত্তোলন করতে গেলে চেকটি ডিজঅনার হয়। এরপর বাদী আসামিদের লিগ্যাল নোটিশ পাঠিয়ে ৩০ দিনের মধ্যে টাকা পরিশোধের তাগিদ দেন। তারপরও টাকা পরিশোধ না করায় বাদী আদালতে মামলা দায়ের করেন।