ঢাকা ০৮:১০ অপরাহ্ন, বৃহস্পতিবার, ১৮ জুলাই ২০২৪, ৩ শ্রাবণ ১৪৩১ বঙ্গাব্দ

হাঁটতে হাঁটতে মারা যান বহু হজযাত্রী

নিজস্ব প্রতিবেদক
  • সংবাদ প্রকাশের সময় : ১০:০৭:৩৪ পূর্বাহ্ন, সোমবার, ২৪ জুন ২০২৪ ৪৮ বার পড়া হয়েছে
বাংলা টাইমস অনলাইনের সর্বশেষ নিউজ পেতে অনুসরণ করুন গুগল নিউজ (Google News) ফিডটি

সৌদি আরবে হজ গিয়ে শত শত হজযাত্রীর মৃত্যু হয়েছে। এই মৃত্যুর সংখ্যা ছাড়িয়েছে হাজারের গণ্ডি। সৌদি সরকার জানিয়েছে, অত্যাধিক গরমের কারণেই এতোমৃত্যু। গরমের মধ্যে হাঁটতে হাঁটতে অনেকে অসুস্থ হয়ে পড়েন। কারো রাস্তায়, কারো হাসপাতালে মৃত্যু হয়। বর্তমানে সৌদির বিভিন্ন হাসপাতালে ৯৫ জন চিকিৎসাধীন রয়েছেন। এতথ্য জানিয়েছে সে দেশের স্বাস্থ্য মন্ত্রনালয়।

হজযাত্রীদের মৃত্যু প্রসঙ্গে রবিবার (২৩ জুন) একটি বিবৃতি দিয়েছে সৌদি সরকার। দেশটির স্বাস্থ্যমন্ত্রী ফাহ্‌দ বিন আব্দুররহমান আল-জালাজেল জানান, সরকারি হিসাব অনুযায়ী, এ বছর হজযাত্রায় ১৩০১ জন বিদেশি হজযাত্রীর মৃত্যু হয়েছে। এরমধ্যে ৮৩ শতাংশ হজযাত্রীই অননুমোদিত। প্রচণ্ড গরমের মধ্যে দীর্ঘ পথ হেঁটে তারা মক্কায় পৌঁছেছেন। হজের পর তাদের অনেকের মৃত্যু হয়েছে। মক্কায় এখনো কিছু মানুষ চিকিৎসাধীন রয়েছে। অসুস্থদের মধ্যে কয়েক জনকে আবার আকাশপথে জরুরি ভিত্তিতে রাজধানী শহর রিয়াধেও পাঠানো হয়েছে এমনটাই জানিয়েছেন স্বাস্থ্যমন্ত্রী।

সৌদি সরকারের তথ্যানুযায়ী, মৃত ১৩০১ হজযাত্রীর মধ্যে ৬৬০ জন শুধু মিশর থেকেই হজে গিয়েছিলেন। এরমধ্যে মাত্র ৩১ জন ছাড়া কারো অনুমোদন ছিল না। অনুমোদন ছাড়া কীভাবে এতো মানুষ সৌদি গেলেন। তা নিয়ে প্রশ্ন উঠেছে। এ সমস্ত হজযাত্রীর হজযাত্রার বন্দোবস্ত করে দেয়ার অভিযোগে দেশের ১৬টি ভ্রমণ সংস্থার লাইসেন্স বাতিল করেছে মিশর সরকার। ওই দেশ থেকে অনুমোদনসহ এ বছর মক্কায় গেছেন ৫০ হাজারের বেশি মানুষ।

অননুমোদিত হজযাত্রীদের বিরুদ্ধে কড়া অবস্থান নিয়েছিলো সৌদি সরকার। অনুমোদন না থাকায় বহু মানুষকে পায়ে হেঁটে মক্কায় পৌঁছতে হয়েছে। তাদের থাকার জন্য কোনো হোটেলও ছিল না। এর ফলে রাস্তাতেই সময় কাটাতে হয়েছে। তীব্র গরম সেখানে অসহনীয় হয়ে উঠেছিলো। আর সেই কারণেই এতো মৃত্যু বলে মনে করা হচ্ছে।

হজযাত্রায় মৃতদের মধ্যে মিশর ছাড়া অন্য দেশের হজযাত্রীও রয়েছেন। ইন্দোনেশিয়ার ১৬৫ জন, ভারতের ৯৮ জনের মৃত্যু হয়েছে হজে গিয়ে। এ ছাড়া বাংলাদেশ, জর্ডন, মরক্কো, আলজেরিয়া, তিউনিশিয়া, মালয়েশিয়ার মানুষও এই তালিকায় রয়েছে। আমেরিকার দু’জন নাগরিক হজযাত্রায় মারা গেছেন।

নিউজটি শেয়ার করুন

আপনার মন্তব্য

Your email address will not be published. Required fields are marked *

আপনার ইমেইল এবং অন্যান্য তথ্য সংরক্ষন করুন

ট্যাগস :

হাঁটতে হাঁটতে মারা যান বহু হজযাত্রী

সংবাদ প্রকাশের সময় : ১০:০৭:৩৪ পূর্বাহ্ন, সোমবার, ২৪ জুন ২০২৪

সৌদি আরবে হজ গিয়ে শত শত হজযাত্রীর মৃত্যু হয়েছে। এই মৃত্যুর সংখ্যা ছাড়িয়েছে হাজারের গণ্ডি। সৌদি সরকার জানিয়েছে, অত্যাধিক গরমের কারণেই এতোমৃত্যু। গরমের মধ্যে হাঁটতে হাঁটতে অনেকে অসুস্থ হয়ে পড়েন। কারো রাস্তায়, কারো হাসপাতালে মৃত্যু হয়। বর্তমানে সৌদির বিভিন্ন হাসপাতালে ৯৫ জন চিকিৎসাধীন রয়েছেন। এতথ্য জানিয়েছে সে দেশের স্বাস্থ্য মন্ত্রনালয়।

হজযাত্রীদের মৃত্যু প্রসঙ্গে রবিবার (২৩ জুন) একটি বিবৃতি দিয়েছে সৌদি সরকার। দেশটির স্বাস্থ্যমন্ত্রী ফাহ্‌দ বিন আব্দুররহমান আল-জালাজেল জানান, সরকারি হিসাব অনুযায়ী, এ বছর হজযাত্রায় ১৩০১ জন বিদেশি হজযাত্রীর মৃত্যু হয়েছে। এরমধ্যে ৮৩ শতাংশ হজযাত্রীই অননুমোদিত। প্রচণ্ড গরমের মধ্যে দীর্ঘ পথ হেঁটে তারা মক্কায় পৌঁছেছেন। হজের পর তাদের অনেকের মৃত্যু হয়েছে। মক্কায় এখনো কিছু মানুষ চিকিৎসাধীন রয়েছে। অসুস্থদের মধ্যে কয়েক জনকে আবার আকাশপথে জরুরি ভিত্তিতে রাজধানী শহর রিয়াধেও পাঠানো হয়েছে এমনটাই জানিয়েছেন স্বাস্থ্যমন্ত্রী।

সৌদি সরকারের তথ্যানুযায়ী, মৃত ১৩০১ হজযাত্রীর মধ্যে ৬৬০ জন শুধু মিশর থেকেই হজে গিয়েছিলেন। এরমধ্যে মাত্র ৩১ জন ছাড়া কারো অনুমোদন ছিল না। অনুমোদন ছাড়া কীভাবে এতো মানুষ সৌদি গেলেন। তা নিয়ে প্রশ্ন উঠেছে। এ সমস্ত হজযাত্রীর হজযাত্রার বন্দোবস্ত করে দেয়ার অভিযোগে দেশের ১৬টি ভ্রমণ সংস্থার লাইসেন্স বাতিল করেছে মিশর সরকার। ওই দেশ থেকে অনুমোদনসহ এ বছর মক্কায় গেছেন ৫০ হাজারের বেশি মানুষ।

অননুমোদিত হজযাত্রীদের বিরুদ্ধে কড়া অবস্থান নিয়েছিলো সৌদি সরকার। অনুমোদন না থাকায় বহু মানুষকে পায়ে হেঁটে মক্কায় পৌঁছতে হয়েছে। তাদের থাকার জন্য কোনো হোটেলও ছিল না। এর ফলে রাস্তাতেই সময় কাটাতে হয়েছে। তীব্র গরম সেখানে অসহনীয় হয়ে উঠেছিলো। আর সেই কারণেই এতো মৃত্যু বলে মনে করা হচ্ছে।

হজযাত্রায় মৃতদের মধ্যে মিশর ছাড়া অন্য দেশের হজযাত্রীও রয়েছেন। ইন্দোনেশিয়ার ১৬৫ জন, ভারতের ৯৮ জনের মৃত্যু হয়েছে হজে গিয়ে। এ ছাড়া বাংলাদেশ, জর্ডন, মরক্কো, আলজেরিয়া, তিউনিশিয়া, মালয়েশিয়ার মানুষও এই তালিকায় রয়েছে। আমেরিকার দু’জন নাগরিক হজযাত্রায় মারা গেছেন।