ঢাকা ০৭:২১ অপরাহ্ন, মঙ্গলবার, ১৬ জুলাই ২০২৪, ১ শ্রাবণ ১৪৩১ বঙ্গাব্দ

বাংলাদেশিদের জন্য ই-মেডিকেল ভিসা চালু করবে ভারত

নিজস্ব প্রতিবেদক
  • সংবাদ প্রকাশের সময় : ০৪:৫৯:১৯ অপরাহ্ন, শনিবার, ২২ জুন ২০২৪ ৩৬ বার পড়া হয়েছে
বাংলা টাইমস অনলাইনের সর্বশেষ নিউজ পেতে অনুসরণ করুন গুগল নিউজ (Google News) ফিডটি

ভারতের প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদি জানিয়েছেন, বাংলাদেশিদের জন্য ই-মেডিকেল ভিসা চালু করা হবে। শনিবার (২২ জুন) দিল্লির হায়দরাবাদ হাউসে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার সাথে একান্ত ও দ্বিপক্ষীয় বৈঠক শেষে নরেন্দ্র মোদি এ কথা বলেন।

এ সময় নরেন্দ্র মোদি বলেন, বাংলাদেশের মানুষের সুবিধার কথা বিবেচনায় নিয়ে রংপুরে একটি নতুন সহকারী হাইকমিশন খোলার উদ্যোগ নেয়া হয়েছে।

দুই দিনের রাষ্ট্রীয় সফরে দিল্লিতে রয়েছেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা। শনিবার (২২ জুন) তাকে ভারতের রাষ্ট্রপতি ভবনে অভ্যর্থনা জানিয়েছেন নরেন্দ্র মোদি।

শেখ হাসিনা-‌নরেন্দ্র মো‌দির বৈঠক নিয়ে ভারতের পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয় জানিয়েছে, দু’দেশের ঐতিহাসিক বন্ধন আরো গভীর করার লক্ষ্যে আলোচনা করেন দুই দেশের সরকারপ্রধান। এ আলোচনায় উন্নয়ন অংশীদারত্ব, পানিসম্পদ, জ্বালানি, বাণিজ্য, প্রতিরক্ষা সহযোগিতাসহ আরো বেশ কয়েকটি বিষয়ে দ্বিপাক্ষিক সহযোগিতার বিভিন্ন ক্ষেত্রকে অন্তর্ভুক্ত করা হয়েছে।

নিউজটি শেয়ার করুন

আপনার মন্তব্য

Your email address will not be published. Required fields are marked *

আপনার ইমেইল এবং অন্যান্য তথ্য সংরক্ষন করুন

ট্যাগস :

বাংলাদেশিদের জন্য ই-মেডিকেল ভিসা চালু করবে ভারত

সংবাদ প্রকাশের সময় : ০৪:৫৯:১৯ অপরাহ্ন, শনিবার, ২২ জুন ২০২৪

ভারতের প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদি জানিয়েছেন, বাংলাদেশিদের জন্য ই-মেডিকেল ভিসা চালু করা হবে। শনিবার (২২ জুন) দিল্লির হায়দরাবাদ হাউসে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার সাথে একান্ত ও দ্বিপক্ষীয় বৈঠক শেষে নরেন্দ্র মোদি এ কথা বলেন।

এ সময় নরেন্দ্র মোদি বলেন, বাংলাদেশের মানুষের সুবিধার কথা বিবেচনায় নিয়ে রংপুরে একটি নতুন সহকারী হাইকমিশন খোলার উদ্যোগ নেয়া হয়েছে।

দুই দিনের রাষ্ট্রীয় সফরে দিল্লিতে রয়েছেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা। শনিবার (২২ জুন) তাকে ভারতের রাষ্ট্রপতি ভবনে অভ্যর্থনা জানিয়েছেন নরেন্দ্র মোদি।

শেখ হাসিনা-‌নরেন্দ্র মো‌দির বৈঠক নিয়ে ভারতের পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয় জানিয়েছে, দু’দেশের ঐতিহাসিক বন্ধন আরো গভীর করার লক্ষ্যে আলোচনা করেন দুই দেশের সরকারপ্রধান। এ আলোচনায় উন্নয়ন অংশীদারত্ব, পানিসম্পদ, জ্বালানি, বাণিজ্য, প্রতিরক্ষা সহযোগিতাসহ আরো বেশ কয়েকটি বিষয়ে দ্বিপাক্ষিক সহযোগিতার বিভিন্ন ক্ষেত্রকে অন্তর্ভুক্ত করা হয়েছে।