ঢাকা ০৪:৪০ পূর্বাহ্ন, শুক্রবার, ১৯ জুলাই ২০২৪, ৩ শ্রাবণ ১৪৩১ বঙ্গাব্দ

পদ্মা সেতুর সমাপনী অনুষ্ঠান শুক্রবার, ব্যয় হবে ৫ কোটি টাকা

নিজস্ব প্রতিবেদক
  • সংবাদ প্রকাশের সময় : ০৬:২৩:১১ অপরাহ্ন, বুধবার, ৩ জুলাই ২০২৪ ২৯ বার পড়া হয়েছে
বাংলা টাইমস অনলাইনের সর্বশেষ নিউজ পেতে অনুসরণ করুন গুগল নিউজ (Google News) ফিডটি

আগামী শুক্রবার (৫ জুলাই) পদ্মা বহুমুখী সেতুর সমাপনী অনুষ্ঠান হবে। এতে প্রধান অতিথি হিসেবে উপস্থিত থাকবেন শেখ হাসিনা। অনুষ্ঠান আয়োজনে সম্ভাব্য ব্যয় ধরা হচ্ছে পাঁচকোটি টাকার বেশি। যে ব্যয় হবে তা সরাসরি ক্রয় পদ্ধতিতে করার অনুমোদন দিয়েছে অর্থনৈতিক বিষয়সংক্রান্ত মন্ত্রিসভা কমিটি।

বুধবার (৩ জুলাই) সচিবালয়ে অর্থনৈতিক বিষয়সংক্রান্ত মন্ত্রিসভা কমিটির বৈঠকে এই অনুমোদন দেয়া হয়।

বৈঠক শেষে মন্ত্রিপরিষদ বিভাগের সমন্বয় ও সংস্কার সচিব মো. মাহমুদুল হোসাইন খান এই তথ্য জানিয়েছেন।

এ সময় তিনি আরও বলেন,পদ্মা সেতু দিয়ে গত দুই বছরে এক কোটি ২৭ লাখ যানবাহন চলাচল করেছে। আর থেকে রাজস্ব আদায় হয়েছে এক হাজার ৬৬১ কোটি টাকা।

২০২৪ সালের ৩০ জুন পদ্মা সেতুর নির্মাণের মেয়াদ শেষ হয়েছে। মাওয়া প্রান্তে এই সমাপ্তি উপলক্ষে সুধী সমাবেশের আয়োজন করা হয়েছে। সুধী সমাবেশে প্রধানমন্ত্রী থাকার সম্মতি জ্ঞাপন করেছেন।

নিউজটি শেয়ার করুন

আপনার মন্তব্য

Your email address will not be published. Required fields are marked *

আপনার ইমেইল এবং অন্যান্য তথ্য সংরক্ষন করুন

ট্যাগস :

পদ্মা সেতুর সমাপনী অনুষ্ঠান শুক্রবার, ব্যয় হবে ৫ কোটি টাকা

সংবাদ প্রকাশের সময় : ০৬:২৩:১১ অপরাহ্ন, বুধবার, ৩ জুলাই ২০২৪

আগামী শুক্রবার (৫ জুলাই) পদ্মা বহুমুখী সেতুর সমাপনী অনুষ্ঠান হবে। এতে প্রধান অতিথি হিসেবে উপস্থিত থাকবেন শেখ হাসিনা। অনুষ্ঠান আয়োজনে সম্ভাব্য ব্যয় ধরা হচ্ছে পাঁচকোটি টাকার বেশি। যে ব্যয় হবে তা সরাসরি ক্রয় পদ্ধতিতে করার অনুমোদন দিয়েছে অর্থনৈতিক বিষয়সংক্রান্ত মন্ত্রিসভা কমিটি।

বুধবার (৩ জুলাই) সচিবালয়ে অর্থনৈতিক বিষয়সংক্রান্ত মন্ত্রিসভা কমিটির বৈঠকে এই অনুমোদন দেয়া হয়।

বৈঠক শেষে মন্ত্রিপরিষদ বিভাগের সমন্বয় ও সংস্কার সচিব মো. মাহমুদুল হোসাইন খান এই তথ্য জানিয়েছেন।

এ সময় তিনি আরও বলেন,পদ্মা সেতু দিয়ে গত দুই বছরে এক কোটি ২৭ লাখ যানবাহন চলাচল করেছে। আর থেকে রাজস্ব আদায় হয়েছে এক হাজার ৬৬১ কোটি টাকা।

২০২৪ সালের ৩০ জুন পদ্মা সেতুর নির্মাণের মেয়াদ শেষ হয়েছে। মাওয়া প্রান্তে এই সমাপ্তি উপলক্ষে সুধী সমাবেশের আয়োজন করা হয়েছে। সুধী সমাবেশে প্রধানমন্ত্রী থাকার সম্মতি জ্ঞাপন করেছেন।