ঢাকা ০৯:২৮ অপরাহ্ন, শনিবার, ১৩ জুলাই ২০২৪, ২৯ আষাঢ় ১৪৩১ বঙ্গাব্দ

স্ত্রীর সামনে মেঘনায় ডুবে গেলেন স্বামী

চাঁদপুর প্রতিনিধি
  • আপডেট সময় : ০৪:২৮:২৪ অপরাহ্ন, বৃহস্পতিবার, ২০ জুন ২০২৪ ২১ বার পড়া হয়েছে
বাংলা টাইমস অনলাইনের সর্বশেষ নিউজ পেতে অনুসরণ করুন গুগল নিউজ (Google News) ফিডটি

চাঁদপুরের মেঘনায় স্বামী-স্ত্রী একসাথে গোসলে নেমে চোখের সামনে তীব্র স্রোতের তোরে ডুবে গেলেন স্বামী জহিরুল ইসলাম(৩০)। ঘটনাটি ঘটেছে বৃহস্পতিবার (২০ জুন) সকাল ৭টায় চাঁদপুর শহরের বড়সেটশন লঞ্চঘাট এলাকায়।

প্রত্যক্ষদর্শীরা জানান, নিখোঁজ জহিরের বাড়ি বরিশাল। তিন তার স্ত্রী ও দু’সন্তান নিয়ে বড়স্টেশন মেঘনাপাড়ে ভাড়া বাসায় থাকতেন। তবে জহির কখনো অটো চালাতেন আবার কখনো লঞ্চঘাটে বাদাম বিক্রি করতেন।

নিখোঁজ জহিরের ভাই নজরুল ইসলাম বলেন,আমার ভাই সাঁতার জানতেন। এজন্য প্রতিদিন এখানে গোসল করেন। বৃহস্পতিবার (২০ জুন) তার স্ত্রী মনিরা বেগমসহ গোসল করতে নেমে আর উঠেনি। আমরা ধারণা করছি নদীর তীব্র স্রোতে সে ডুবে গেছে।

চাঁদপুর নৌ ফায়ার সার্ভিসের ইনচার্জ মোসলেম মিয়জী বলেন, বৃহস্পতিবার (২০ জুন) সকাল সাড়ে ৭টায় খবর পেয়ে ডুবুরি দল নিয়ে তার মরদেহ উদ্ধারে অভিযান অব্যাহত রেখেছি। কিন্তু নদীর তীব্র স্রোতে তার মরদেহ সন্ধান করা কস্ট হচ্ছে।

নিউজটি শেয়ার করুন

আপনার মন্তব্য

Your email address will not be published. Required fields are marked *

আপনার ইমেইল এবং অন্যান্য তথ্য সংরক্ষন করুন

ট্যাগস :

স্ত্রীর সামনে মেঘনায় ডুবে গেলেন স্বামী

আপডেট সময় : ০৪:২৮:২৪ অপরাহ্ন, বৃহস্পতিবার, ২০ জুন ২০২৪

চাঁদপুরের মেঘনায় স্বামী-স্ত্রী একসাথে গোসলে নেমে চোখের সামনে তীব্র স্রোতের তোরে ডুবে গেলেন স্বামী জহিরুল ইসলাম(৩০)। ঘটনাটি ঘটেছে বৃহস্পতিবার (২০ জুন) সকাল ৭টায় চাঁদপুর শহরের বড়সেটশন লঞ্চঘাট এলাকায়।

প্রত্যক্ষদর্শীরা জানান, নিখোঁজ জহিরের বাড়ি বরিশাল। তিন তার স্ত্রী ও দু’সন্তান নিয়ে বড়স্টেশন মেঘনাপাড়ে ভাড়া বাসায় থাকতেন। তবে জহির কখনো অটো চালাতেন আবার কখনো লঞ্চঘাটে বাদাম বিক্রি করতেন।

নিখোঁজ জহিরের ভাই নজরুল ইসলাম বলেন,আমার ভাই সাঁতার জানতেন। এজন্য প্রতিদিন এখানে গোসল করেন। বৃহস্পতিবার (২০ জুন) তার স্ত্রী মনিরা বেগমসহ গোসল করতে নেমে আর উঠেনি। আমরা ধারণা করছি নদীর তীব্র স্রোতে সে ডুবে গেছে।

চাঁদপুর নৌ ফায়ার সার্ভিসের ইনচার্জ মোসলেম মিয়জী বলেন, বৃহস্পতিবার (২০ জুন) সকাল সাড়ে ৭টায় খবর পেয়ে ডুবুরি দল নিয়ে তার মরদেহ উদ্ধারে অভিযান অব্যাহত রেখেছি। কিন্তু নদীর তীব্র স্রোতে তার মরদেহ সন্ধান করা কস্ট হচ্ছে।