ঢাকা ০১:০৫ অপরাহ্ন, রবিবার, ২১ জুলাই ২০২৪, ৬ শ্রাবণ ১৪৩১ বঙ্গাব্দ

সিলেটে বন্যা/ পানিতে ডুবে-বিদ্যুৎস্পৃষ্টে শিশুসহ ৭ জনের মৃত্যু

সিলেট ব্যুরো
  • সংবাদ প্রকাশের সময় : ০৫:২৫:৪৫ অপরাহ্ন, বৃহস্পতিবার, ২০ জুন ২০২৪ ৩৯ বার পড়া হয়েছে
বাংলা টাইমস অনলাইনের সর্বশেষ নিউজ পেতে অনুসরণ করুন গুগল নিউজ (Google News) ফিডটি

সিলেটে বন্যা ভয়াবহ আকার ধারণ করেছে। পানিবন্দী জীবন যাপন করছে মানুষ। এরমধ্যে পানিতে ডুবে ও বিদ্যুৎস্পৃষ্ট হয়ে শিশুসহ ৭ জনের মৃত্যু হয়েছে। বৃহস্পতিবার (২০ জুন) ও বুধবার (১৯ জুন) সিলেট ও মৌলভীবাজারে এসব মৃত্যুর ঘটনা ঘটে।

বৃহস্পতিবার (২০ জুন)সকাল ৯টায় সিলেটের গোয়াইনঘাট উপজেলার বিছনাকান্দি বগাইয়া হাওড়ে গ্রামে বিদ্যুতের সঞ্চালন লাইনে জড়িয়ে এক যুবকের মৃত্যু হয়। তার নাম-জুয়েল মিয়া (১৭)।

এর আগে, বুধবার (১৯ জুন) রাত ১২টার দিকে উপজেলার কাপনা নদী থেকে নৌকা ডুবে নিখোঁজ যুবকের মরদেহ উদ্ধার করে স্থানীয়রা। তার নাম-মৃত মোহাম্মদ সাখাওয়াত হোসেন (২৬)। নৌকায় বাড়ি ফেরার পথে নৌকাটি ডুবে যায়। এতে তার মৃত্যু হয়।

এর আগে, বুধবার (১৯ জুন) সন্ধ্যায় বিছনাকান্দির হাদারপার বাজার সংলগ্ন উপরগ্রামে বিদ্যুৎস্পৃষ্ট হয়ে নাজমিন আক্তার (১০) নামের এক শিশুর মৃত্যু হয়।

একই দিন বিকেলে সিলেটের দক্ষিণ সুরমার ঝালোপাড়ায় বিদ্যুৎস্পৃষ্ট হয়ে এক নারীর মৃত্যু হয়। তার নাম- মিনতি রানী (৪০)।তিনি ঝালোপাড়ার নৃসিংহ জিউর আখড়ার পার্শ্ববর্তী বাসার বাসিন্দা।

বুধবার (১৯ জুন) বিকেলে জকিগঞ্জ উপজেলায় মাছ ধরতে গিয়ে স্রোতে ভেসে যাওয়া আব্দুল হালিম (৫৫) নামের একজনের মৃত্যু হয়।

বৃহস্পতিবার (২০ জুন) দুপুরে মৌলভীবাজারের শ্যামেরকোনা গ্রামে পানিতে ডুবে এক শিশু ও এক কিশোরের মৃত্যু হয়েছে। তারা হলো- ছাদি মিয়া (৮) এবং হৃদয় মিয়া (১৭)।

এ বিষয়ে চাঁদনীঘাট ইউনিয়নের চেয়ারম্যান আকতার উদ্দিন জানান, ধলাই নদীর বাঁধ ভেঙে শ্যামেরকোনা গ্রামসহ আশপাশের গ্রামের রাস্তাঘাট পানিতে তলিয়ে গেছে। সাঁতার না জানায় দু’জনই পানিতে ডুবে যায়। পরে তাদের উদ্ধার করে মৌলভীবাজার হাসপাতালে নিয়ে গেলে চিকিৎসক মৃত ঘোষণা করেন।

নিউজটি শেয়ার করুন

আপনার মন্তব্য

Your email address will not be published. Required fields are marked *

আপনার ইমেইল এবং অন্যান্য তথ্য সংরক্ষন করুন

ট্যাগস :

সিলেটে বন্যা/ পানিতে ডুবে-বিদ্যুৎস্পৃষ্টে শিশুসহ ৭ জনের মৃত্যু

সংবাদ প্রকাশের সময় : ০৫:২৫:৪৫ অপরাহ্ন, বৃহস্পতিবার, ২০ জুন ২০২৪

সিলেটে বন্যা ভয়াবহ আকার ধারণ করেছে। পানিবন্দী জীবন যাপন করছে মানুষ। এরমধ্যে পানিতে ডুবে ও বিদ্যুৎস্পৃষ্ট হয়ে শিশুসহ ৭ জনের মৃত্যু হয়েছে। বৃহস্পতিবার (২০ জুন) ও বুধবার (১৯ জুন) সিলেট ও মৌলভীবাজারে এসব মৃত্যুর ঘটনা ঘটে।

বৃহস্পতিবার (২০ জুন)সকাল ৯টায় সিলেটের গোয়াইনঘাট উপজেলার বিছনাকান্দি বগাইয়া হাওড়ে গ্রামে বিদ্যুতের সঞ্চালন লাইনে জড়িয়ে এক যুবকের মৃত্যু হয়। তার নাম-জুয়েল মিয়া (১৭)।

এর আগে, বুধবার (১৯ জুন) রাত ১২টার দিকে উপজেলার কাপনা নদী থেকে নৌকা ডুবে নিখোঁজ যুবকের মরদেহ উদ্ধার করে স্থানীয়রা। তার নাম-মৃত মোহাম্মদ সাখাওয়াত হোসেন (২৬)। নৌকায় বাড়ি ফেরার পথে নৌকাটি ডুবে যায়। এতে তার মৃত্যু হয়।

এর আগে, বুধবার (১৯ জুন) সন্ধ্যায় বিছনাকান্দির হাদারপার বাজার সংলগ্ন উপরগ্রামে বিদ্যুৎস্পৃষ্ট হয়ে নাজমিন আক্তার (১০) নামের এক শিশুর মৃত্যু হয়।

একই দিন বিকেলে সিলেটের দক্ষিণ সুরমার ঝালোপাড়ায় বিদ্যুৎস্পৃষ্ট হয়ে এক নারীর মৃত্যু হয়। তার নাম- মিনতি রানী (৪০)।তিনি ঝালোপাড়ার নৃসিংহ জিউর আখড়ার পার্শ্ববর্তী বাসার বাসিন্দা।

বুধবার (১৯ জুন) বিকেলে জকিগঞ্জ উপজেলায় মাছ ধরতে গিয়ে স্রোতে ভেসে যাওয়া আব্দুল হালিম (৫৫) নামের একজনের মৃত্যু হয়।

বৃহস্পতিবার (২০ জুন) দুপুরে মৌলভীবাজারের শ্যামেরকোনা গ্রামে পানিতে ডুবে এক শিশু ও এক কিশোরের মৃত্যু হয়েছে। তারা হলো- ছাদি মিয়া (৮) এবং হৃদয় মিয়া (১৭)।

এ বিষয়ে চাঁদনীঘাট ইউনিয়নের চেয়ারম্যান আকতার উদ্দিন জানান, ধলাই নদীর বাঁধ ভেঙে শ্যামেরকোনা গ্রামসহ আশপাশের গ্রামের রাস্তাঘাট পানিতে তলিয়ে গেছে। সাঁতার না জানায় দু’জনই পানিতে ডুবে যায়। পরে তাদের উদ্ধার করে মৌলভীবাজার হাসপাতালে নিয়ে গেলে চিকিৎসক মৃত ঘোষণা করেন।