ঢাকা ০৯:০৩ পূর্বাহ্ন, মঙ্গলবার, ২৩ জুলাই ২০২৪, ৮ শ্রাবণ ১৪৩১ বঙ্গাব্দ

সবজি ক্ষেতের সাথে কিসের শত্রুতা!

আজিজুল হক সরকার,ফুলবাড়ী (দিনাজপুর)
  • সংবাদ প্রকাশের সময় : ০৯:১৭:০৩ পূর্বাহ্ন, শনিবার, ৬ জুলাই ২০২৪ ৪১ বার পড়া হয়েছে

1-4480x2038-1-0#

বাংলা টাইমস অনলাইনের সর্বশেষ নিউজ পেতে অনুসরণ করুন গুগল নিউজ (Google News) ফিডটি

দিনাজপুরের ফুলবাড়ী উপজেলার বলিহরপুর গ্রামের এক চাষির ২৫ শতক জমির পটল, করলা, ঢেঢ়স,বরবটি,পুঁইশাক,পবাশাকের গাছ কেটে দিয়েছে দুর্বৃত্তরাা। এতে প্রায় দুই লাখ টাকার ক্ষতি হয়েছে বলে জানান ভুক্তভোগী চাষি লালবাবু রায়। কিন্তু জানেন না কীসের কারণে কে এই শত্রুতা করেছে! শুক্রবার ওই চাষির বাড়িতে গিয়ে দেখা যায় তার পরিবার আহাজারি করছেন।

স্থানীয় সুভাস চন্দ্র, ভাদু চন্দ্র, ভবেন চন্দ্র জানান, বৃহস্পতিবার(৪ জুলাই ) দিবাগত রাতে লালবাবু রায়-এর পটল, ঢেঢ়স,বরবটি,পুঁইশাক,পবাশাকের গাছ কে বা কারা কেটে ফেলে।গরীব মানুষ ওই আবাদ করে সংসারের কিছুটা স্বচ্ছলতা আনতে চেয়েছিল,তার সর্বনাশ হয়ে গেল।

ভুক্তভোগী লালবাবু রায়ের মা কল্যাণী রায় জানান, তার এক ছটাক জায়গা-জমি নেই। ফুলবাড়ী সুজাপুর গ্রামের ীশবু দত্তের কাছ থেকে ২৫ শতক জমি ২০ হাজার টাকায় বর্গা নিয়ে তিনি পটলসহ ান্যান্য সবজি চাষ করেন। এতে তার খরচ হয় সার-বীজ-লেবার সব মিলে প্রায় ২৫ হাজার টাকা। পটল গাছে ফুল ও ফল আসতে শুরু করেছে। তার আশা ছিল আগাম পটল চাষে তিনি লক্ষাধিক টাকা এবং ঢেঢ়স,করলা, বরবটি,পুঁইশাক,পবাশাক বিক্রি করে আরো ৮০ হাজার টাকা আয় করতে পারবেন। এ জমিটুকু চাষাবাদ করেই আমার সংসার চলতো। দ‚র্বৃত্তরা আমার সব আশা-আকাঙ্খা শেষ করে দিল। এতে তাঁর মাথায় হাত পড়েছে।

শিবনগর ইউপি চেয়ারম্যান মো. ছামেদুল ইসলাম মাস্টার জানান, এখনো কেউ জানাননি।তবে এরকম গরীব কৃসকের কেউ ক্ষতিসাধন করলে তদন্ত সাপেক্ষে ব্যবস্থা নেয়া হবে এবং সম্ভবমত ওই কৃষককে সহযোগিতা করা হবে।

ফুলবাড়ী থানার অফিসার ইনচার্জ (ওসি) মো. মোস্তাফিজার রহমান বলেন, এ ব্যাপারে কোনো অভিযোগ পাইনি। অভিযোগ পেলে তদন্ত সাপেক্ষে প্রয়োজনীয় আইনানুগ ব্যবস্থা নেয়া হবে।

নিউজটি শেয়ার করুন

আপনার মন্তব্য

Your email address will not be published. Required fields are marked *

আপনার ইমেইল এবং অন্যান্য তথ্য সংরক্ষন করুন

ট্যাগস :

সবজি ক্ষেতের সাথে কিসের শত্রুতা!

সংবাদ প্রকাশের সময় : ০৯:১৭:০৩ পূর্বাহ্ন, শনিবার, ৬ জুলাই ২০২৪

দিনাজপুরের ফুলবাড়ী উপজেলার বলিহরপুর গ্রামের এক চাষির ২৫ শতক জমির পটল, করলা, ঢেঢ়স,বরবটি,পুঁইশাক,পবাশাকের গাছ কেটে দিয়েছে দুর্বৃত্তরাা। এতে প্রায় দুই লাখ টাকার ক্ষতি হয়েছে বলে জানান ভুক্তভোগী চাষি লালবাবু রায়। কিন্তু জানেন না কীসের কারণে কে এই শত্রুতা করেছে! শুক্রবার ওই চাষির বাড়িতে গিয়ে দেখা যায় তার পরিবার আহাজারি করছেন।

স্থানীয় সুভাস চন্দ্র, ভাদু চন্দ্র, ভবেন চন্দ্র জানান, বৃহস্পতিবার(৪ জুলাই ) দিবাগত রাতে লালবাবু রায়-এর পটল, ঢেঢ়স,বরবটি,পুঁইশাক,পবাশাকের গাছ কে বা কারা কেটে ফেলে।গরীব মানুষ ওই আবাদ করে সংসারের কিছুটা স্বচ্ছলতা আনতে চেয়েছিল,তার সর্বনাশ হয়ে গেল।

ভুক্তভোগী লালবাবু রায়ের মা কল্যাণী রায় জানান, তার এক ছটাক জায়গা-জমি নেই। ফুলবাড়ী সুজাপুর গ্রামের ীশবু দত্তের কাছ থেকে ২৫ শতক জমি ২০ হাজার টাকায় বর্গা নিয়ে তিনি পটলসহ ান্যান্য সবজি চাষ করেন। এতে তার খরচ হয় সার-বীজ-লেবার সব মিলে প্রায় ২৫ হাজার টাকা। পটল গাছে ফুল ও ফল আসতে শুরু করেছে। তার আশা ছিল আগাম পটল চাষে তিনি লক্ষাধিক টাকা এবং ঢেঢ়স,করলা, বরবটি,পুঁইশাক,পবাশাক বিক্রি করে আরো ৮০ হাজার টাকা আয় করতে পারবেন। এ জমিটুকু চাষাবাদ করেই আমার সংসার চলতো। দ‚র্বৃত্তরা আমার সব আশা-আকাঙ্খা শেষ করে দিল। এতে তাঁর মাথায় হাত পড়েছে।

শিবনগর ইউপি চেয়ারম্যান মো. ছামেদুল ইসলাম মাস্টার জানান, এখনো কেউ জানাননি।তবে এরকম গরীব কৃসকের কেউ ক্ষতিসাধন করলে তদন্ত সাপেক্ষে ব্যবস্থা নেয়া হবে এবং সম্ভবমত ওই কৃষককে সহযোগিতা করা হবে।

ফুলবাড়ী থানার অফিসার ইনচার্জ (ওসি) মো. মোস্তাফিজার রহমান বলেন, এ ব্যাপারে কোনো অভিযোগ পাইনি। অভিযোগ পেলে তদন্ত সাপেক্ষে প্রয়োজনীয় আইনানুগ ব্যবস্থা নেয়া হবে।