ঢাকা ০৪:০৮ পূর্বাহ্ন, শনিবার, ২০ জুলাই ২০২৪, ৪ শ্রাবণ ১৪৩১ বঙ্গাব্দ

লঞ্চে সন্তান প্রসব, আজীবন ভাড়া ফ্রি

ভোলা প্রতিনিধি
  • সংবাদ প্রকাশের সময় : ০৭:৪১:৫৭ অপরাহ্ন, শুক্রবার, ১৪ জুন ২০২৪ ৪৯ বার পড়া হয়েছে
বাংলা টাইমস অনলাইনের সর্বশেষ নিউজ পেতে অনুসরণ করুন গুগল নিউজ (Google News) ফিডটি

ভোলায় লঞ্চে কন্যা সন্তান প্রসব করেছেন এক প্রসূতি। ওই প্রসূতি মায়ের নাম- মোসা. সাহিদা বেগম। বুধবার (১২ জুন) ঢাকা থেকে ছেড়ে আসা লালমোহন নৌরুটের এমভি গ্লোরী অব শ্রীনগর-৮ লঞ্চে কন্যাসন্তান প্রসব করেন তিনি।

লঞ্চে সন্তান জন্মের ফলে ওইদিনের লঞ্চ ভাড়াসহ এবং ওই প্রসূতি এবং শিশুর আজীবন যাতায়াত ভাড়া ফ্রি করেছেন লঞ্চ কর্তৃপক্ষ।

এমভি গ্লোরী অব শ্রীনগর-৮ লঞ্চের কেবিন ইনচার্জ মো. সুমন জানান, ওই নারী এবং তার স্বামী মিলে ঢাকা থেকে আমাদের লঞ্চে লালমোহনের উদ্দেশ্যে রওয়ানা করেন। এরপর বৃহস্পতিবার (১৩ জুন) সকাল সাড়ে ১০ টার দিকে হঠাৎ করে সাহিদা বেগম নামে ওই নারীর প্রসব বেদনা উঠে। পরে আমরা তাকে লঞ্চের একটি কেবিনে নিয়ে যাই।

তিনি আরও জানান, লঞ্চে কোনো ডাক্তার বা নার্স রয়েছে কিনা খোঁজ নেই। খোঁজাখুঁজির একপর্যায়ে একজন চিকিৎসকের সন্ধান পাওয়া যায়। ওই চিকিৎসকের সাথে কয়েকজন নারী প্রসূতি সাহিদাকে সন্তান প্রসব করাতে এগিয়ে আসেন। তাদের প্রচেষ্টায় প্রসূতি সাহিদা বেগম একজন ফুটফুটে কন্যা সন্তান প্রসব করেন। প্রসূতি সাহিদা বেগম ও তার স্বামী শাহীন লালমোহন উপজেলার ফরাজগঞ্জ ইউনিয়নের ৬ নম্বর ওয়ার্ডের মোল্লা বাড়ির বাসিন্দা।

এমভি গ্লোরী অব শ্রীনগর-৮ লঞ্চের পরিচালক মো. নাইম খান বলেন, লঞ্চে সন্তান প্রসব করা ওই প্রসূতিসহ তার স্বামীর ওইদিনের ভাড়া মওকুফ করা হয়েছে। এছাড়া আমাদের লঞ্চে ওই প্রসূতি মা এবং শিশুর আজীবন ফ্রিতে যাতায়াতের ব্যবস্থা করা হয়েছে।

নিউজটি শেয়ার করুন

আপনার মন্তব্য

Your email address will not be published. Required fields are marked *

আপনার ইমেইল এবং অন্যান্য তথ্য সংরক্ষন করুন

ট্যাগস :

লঞ্চে সন্তান প্রসব, আজীবন ভাড়া ফ্রি

সংবাদ প্রকাশের সময় : ০৭:৪১:৫৭ অপরাহ্ন, শুক্রবার, ১৪ জুন ২০২৪

ভোলায় লঞ্চে কন্যা সন্তান প্রসব করেছেন এক প্রসূতি। ওই প্রসূতি মায়ের নাম- মোসা. সাহিদা বেগম। বুধবার (১২ জুন) ঢাকা থেকে ছেড়ে আসা লালমোহন নৌরুটের এমভি গ্লোরী অব শ্রীনগর-৮ লঞ্চে কন্যাসন্তান প্রসব করেন তিনি।

লঞ্চে সন্তান জন্মের ফলে ওইদিনের লঞ্চ ভাড়াসহ এবং ওই প্রসূতি এবং শিশুর আজীবন যাতায়াত ভাড়া ফ্রি করেছেন লঞ্চ কর্তৃপক্ষ।

এমভি গ্লোরী অব শ্রীনগর-৮ লঞ্চের কেবিন ইনচার্জ মো. সুমন জানান, ওই নারী এবং তার স্বামী মিলে ঢাকা থেকে আমাদের লঞ্চে লালমোহনের উদ্দেশ্যে রওয়ানা করেন। এরপর বৃহস্পতিবার (১৩ জুন) সকাল সাড়ে ১০ টার দিকে হঠাৎ করে সাহিদা বেগম নামে ওই নারীর প্রসব বেদনা উঠে। পরে আমরা তাকে লঞ্চের একটি কেবিনে নিয়ে যাই।

তিনি আরও জানান, লঞ্চে কোনো ডাক্তার বা নার্স রয়েছে কিনা খোঁজ নেই। খোঁজাখুঁজির একপর্যায়ে একজন চিকিৎসকের সন্ধান পাওয়া যায়। ওই চিকিৎসকের সাথে কয়েকজন নারী প্রসূতি সাহিদাকে সন্তান প্রসব করাতে এগিয়ে আসেন। তাদের প্রচেষ্টায় প্রসূতি সাহিদা বেগম একজন ফুটফুটে কন্যা সন্তান প্রসব করেন। প্রসূতি সাহিদা বেগম ও তার স্বামী শাহীন লালমোহন উপজেলার ফরাজগঞ্জ ইউনিয়নের ৬ নম্বর ওয়ার্ডের মোল্লা বাড়ির বাসিন্দা।

এমভি গ্লোরী অব শ্রীনগর-৮ লঞ্চের পরিচালক মো. নাইম খান বলেন, লঞ্চে সন্তান প্রসব করা ওই প্রসূতিসহ তার স্বামীর ওইদিনের ভাড়া মওকুফ করা হয়েছে। এছাড়া আমাদের লঞ্চে ওই প্রসূতি মা এবং শিশুর আজীবন ফ্রিতে যাতায়াতের ব্যবস্থা করা হয়েছে।