ঢাকা ০৪:২০ অপরাহ্ন, রবিবার, ২১ জুলাই ২০২৪, ৬ শ্রাবণ ১৪৩১ বঙ্গাব্দ

‘বিএনপির শিক্ষিত নেতারা অশিক্ষিতের মতো কথা বলে’

চট্টগ্রাম ব্যুরো
  • সংবাদ প্রকাশের সময় : ১১:১৬:১১ অপরাহ্ন, শনিবার, ২৯ জুন ২০২৪ ৩৩ বার পড়া হয়েছে
বাংলা টাইমস অনলাইনের সর্বশেষ নিউজ পেতে অনুসরণ করুন গুগল নিউজ (Google News) ফিডটি

পররাষ্ট্রমন্ত্রী হাছান মাহমুদ বলেছেন, প্রধানমন্ত্রীর ভারত সফরে স্বাক্ষরিত সমঝোতা স্মারক নিয়ে বিএনপি নেতারা অশিক্ষিতের মতো কথা বলছেন। প্রধানমন্ত্রীর ভারত সফরে কিছু সমঝোতা স্মারক সই হয়েছে। আর কিছু সমঝোতা স্মারক নবায়ন করা হয়েছে। কোনো চুক্তি সই হয়নি। অথচ বিএনপি নেতারা গলা ফাটিয়ে বলে যাচ্ছেন চুক্তি সই হয়েছে। মির্জা ফখরুল সাহেব নাকি ঢাকা কলেজে পড়াতেন, বিএনপির আরও কিছু নেতা, মঈন খানও শিক্ষিত। বিএনপির এ সব শিক্ষিত নেতারা চুক্তি আর সমঝোতা স্মারকের মধ্যে পার্থক্য কেন বুঝতে পারছেন না, কেন তারা অশিক্ষিতের মতো কথা বলছেন, সেটি আমার বোধগম্য নয়।

আওয়ামী লীগের প্রতিষ্ঠার হীরকজয়ন্তী উপলক্ষ্যে শনিবার (২৯ জুন) দুপুরে চট্টগ্রামে ‘বাংলাদেশ আওয়ামী লীগ ও বঙ্গবন্ধু’ শীর্ষক এক সেমিনারে তিনি একথা বলেন।

দেশের স্বার্থেই সমঝোতা স্মারকগুলো সই করা হয়েছে জানিয়ে তিনি বলেন, আমরা কানেক্টিভিটি বাড়াতে চাচ্ছি। কানেক্টিভিটি বাড়ানোর জন্যই ইতোমধ্যে ঢাকা-কলকাতা, খুলনা-কলকাতা, দিনাজপুর-শিলিগুড়ি ট্রেন চালু হয়েছে, আখাউড়া দিয়ে ট্রেন চালুর প্রস্তুতি সম্পন্ন হয়েছে। আমরা ভারতের বুকের ওপর দিয়ে নেপাল থেকে জলবিদ্যুৎ আমদানির চুক্তি সই করেছি, ভুটানের সঙ্গেও আলাপ-আলোচনা চলছে। সেই কানেক্টিভিটিকে আমরা আরও বাড়াতে চাই এবং সেই কানেক্টিভিটির সঙ্গে আমরা নেপাল ও ভুটানকেও যুক্ত করতে চাই। এ অঞ্চলের মানুষের উন্নয়ন ও অর্থনৈতিক সমৃদ্ধির স্বার্থেই আমরা কানেক্টিভিটি বাড়াতে চাই। কিন্তু বিএনপি সেটি নিয়ে বিভ্রান্তি ছড়াচ্ছে।

প্রধান অতিথির বক্তব্যে পররাষ্ট্রমন্ত্রী বলেন, যে দলের নেত্রী বলেছিলেন সাবমেরিন ক্যাবলের সঙ্গে বাংলাদেশ যুক্ত হলে দেশের সমস্ত সিক্রেসি আউট হয়ে যাবে, তাদের কানেক্টিভিটির মর্ম বোঝার কথা নয়। যেমন নেত্রী তার তেমন সভাসদ! এজন্য তারা এসব আবোল-তাবোল কথা বলছেন আর বিভ্রান্তি ছড়াচ্ছেন। কোনো কোনো পীর সাহেবও দেখি লাফাচ্ছেন। অথচ গাজায় নির্বিচারে মানুষ হত্যা হচ্ছে, মানবতার বিরুদ্ধে অপরাধ সংঘঠিত হচ্ছে। প্রায় ৩৮হাজার নিরীহ মানুষকে হত্যা করা হয়েছে, তাদের বিরুদ্ধে মিছিল নিয়ে লাফাতে দেখি না। বিএনপি আর জামাত এ নিয়ে একটি শব্দও বলেনি।

চট্টগ্রাম উত্তর জেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি এম এ সালামের সভাপতিত্বে ও সাধারণ সম্পাদক শেখ আতাউর রহমানের সঞ্চালনায় সেমিনারে আরও বক্তব্য দেন- উত্তর জেলার সহ-সভাপতি অধ্যাপক মো. মঈনুদ্দীন, আবুল কালাম আজাদ, জেলা পরিষদের চেয়ারম্যান এটিএম পেয়ারুল ইসলাম, যুগ্ম সম্পাদক দেবাশীষ পালিত, সদস্য ইফতেখার হোসেন বাবুল, বেদারুল আলম চৌধুরী বেদার, সরোয়ার শামীম, জেলা মহিলা আওয়ামী লীগের সিনিয়র সহ-সভাপতি সৈয়দা রিফাত আক্তার নিশু, স্বেচ্ছাসেবক লীগের সাধারণ সম্পাদক নাছির উদ্দিন রিয়াজ, যুব মহিলা লীগের সাধারণ সম্পাদক রওশন আরা রতœা, ছাত্রলীগের সাধারণ সম্পাদক রেজাউল করিম প্রমুখ।

নিউজটি শেয়ার করুন

আপনার মন্তব্য

Your email address will not be published. Required fields are marked *

আপনার ইমেইল এবং অন্যান্য তথ্য সংরক্ষন করুন

ট্যাগস :

‘বিএনপির শিক্ষিত নেতারা অশিক্ষিতের মতো কথা বলে’

সংবাদ প্রকাশের সময় : ১১:১৬:১১ অপরাহ্ন, শনিবার, ২৯ জুন ২০২৪

পররাষ্ট্রমন্ত্রী হাছান মাহমুদ বলেছেন, প্রধানমন্ত্রীর ভারত সফরে স্বাক্ষরিত সমঝোতা স্মারক নিয়ে বিএনপি নেতারা অশিক্ষিতের মতো কথা বলছেন। প্রধানমন্ত্রীর ভারত সফরে কিছু সমঝোতা স্মারক সই হয়েছে। আর কিছু সমঝোতা স্মারক নবায়ন করা হয়েছে। কোনো চুক্তি সই হয়নি। অথচ বিএনপি নেতারা গলা ফাটিয়ে বলে যাচ্ছেন চুক্তি সই হয়েছে। মির্জা ফখরুল সাহেব নাকি ঢাকা কলেজে পড়াতেন, বিএনপির আরও কিছু নেতা, মঈন খানও শিক্ষিত। বিএনপির এ সব শিক্ষিত নেতারা চুক্তি আর সমঝোতা স্মারকের মধ্যে পার্থক্য কেন বুঝতে পারছেন না, কেন তারা অশিক্ষিতের মতো কথা বলছেন, সেটি আমার বোধগম্য নয়।

আওয়ামী লীগের প্রতিষ্ঠার হীরকজয়ন্তী উপলক্ষ্যে শনিবার (২৯ জুন) দুপুরে চট্টগ্রামে ‘বাংলাদেশ আওয়ামী লীগ ও বঙ্গবন্ধু’ শীর্ষক এক সেমিনারে তিনি একথা বলেন।

দেশের স্বার্থেই সমঝোতা স্মারকগুলো সই করা হয়েছে জানিয়ে তিনি বলেন, আমরা কানেক্টিভিটি বাড়াতে চাচ্ছি। কানেক্টিভিটি বাড়ানোর জন্যই ইতোমধ্যে ঢাকা-কলকাতা, খুলনা-কলকাতা, দিনাজপুর-শিলিগুড়ি ট্রেন চালু হয়েছে, আখাউড়া দিয়ে ট্রেন চালুর প্রস্তুতি সম্পন্ন হয়েছে। আমরা ভারতের বুকের ওপর দিয়ে নেপাল থেকে জলবিদ্যুৎ আমদানির চুক্তি সই করেছি, ভুটানের সঙ্গেও আলাপ-আলোচনা চলছে। সেই কানেক্টিভিটিকে আমরা আরও বাড়াতে চাই এবং সেই কানেক্টিভিটির সঙ্গে আমরা নেপাল ও ভুটানকেও যুক্ত করতে চাই। এ অঞ্চলের মানুষের উন্নয়ন ও অর্থনৈতিক সমৃদ্ধির স্বার্থেই আমরা কানেক্টিভিটি বাড়াতে চাই। কিন্তু বিএনপি সেটি নিয়ে বিভ্রান্তি ছড়াচ্ছে।

প্রধান অতিথির বক্তব্যে পররাষ্ট্রমন্ত্রী বলেন, যে দলের নেত্রী বলেছিলেন সাবমেরিন ক্যাবলের সঙ্গে বাংলাদেশ যুক্ত হলে দেশের সমস্ত সিক্রেসি আউট হয়ে যাবে, তাদের কানেক্টিভিটির মর্ম বোঝার কথা নয়। যেমন নেত্রী তার তেমন সভাসদ! এজন্য তারা এসব আবোল-তাবোল কথা বলছেন আর বিভ্রান্তি ছড়াচ্ছেন। কোনো কোনো পীর সাহেবও দেখি লাফাচ্ছেন। অথচ গাজায় নির্বিচারে মানুষ হত্যা হচ্ছে, মানবতার বিরুদ্ধে অপরাধ সংঘঠিত হচ্ছে। প্রায় ৩৮হাজার নিরীহ মানুষকে হত্যা করা হয়েছে, তাদের বিরুদ্ধে মিছিল নিয়ে লাফাতে দেখি না। বিএনপি আর জামাত এ নিয়ে একটি শব্দও বলেনি।

চট্টগ্রাম উত্তর জেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি এম এ সালামের সভাপতিত্বে ও সাধারণ সম্পাদক শেখ আতাউর রহমানের সঞ্চালনায় সেমিনারে আরও বক্তব্য দেন- উত্তর জেলার সহ-সভাপতি অধ্যাপক মো. মঈনুদ্দীন, আবুল কালাম আজাদ, জেলা পরিষদের চেয়ারম্যান এটিএম পেয়ারুল ইসলাম, যুগ্ম সম্পাদক দেবাশীষ পালিত, সদস্য ইফতেখার হোসেন বাবুল, বেদারুল আলম চৌধুরী বেদার, সরোয়ার শামীম, জেলা মহিলা আওয়ামী লীগের সিনিয়র সহ-সভাপতি সৈয়দা রিফাত আক্তার নিশু, স্বেচ্ছাসেবক লীগের সাধারণ সম্পাদক নাছির উদ্দিন রিয়াজ, যুব মহিলা লীগের সাধারণ সম্পাদক রওশন আরা রতœা, ছাত্রলীগের সাধারণ সম্পাদক রেজাউল করিম প্রমুখ।