ঢাকা ০৩:৫৮ পূর্বাহ্ন, শনিবার, ২০ জুলাই ২০২৪, ৪ শ্রাবণ ১৪৩১ বঙ্গাব্দ

পাহাড় ধসে শিশুসহ দু’জনের মৃত্যু

কক্সবাজার প্রতিনিধি
  • সংবাদ প্রকাশের সময় : ১১:০৬:৩২ পূর্বাহ্ন, বৃহস্পতিবার, ১১ জুলাই ২০২৪ ১০ বার পড়া হয়েছে
বাংলা টাইমস অনলাইনের সর্বশেষ নিউজ পেতে অনুসরণ করুন গুগল নিউজ (Google News) ফিডটি

কক্সবাজার শহরের শহরের সিকদার পাড়া ও পূর্ব পল্যান কাটা এলাকায় পাহাড় ধসে শিশুসহ দুইজনের মৃত্যু হয়েছে। বৃহস্পতিবার (১১ জুলাই) ভোরে এ ঘটনা ঘটে।

নিহতরা হলো- মো: হাসান (১০) ও জমিলা বেগম (৩০)।

নিহত জমিলা বেগমের স্বামী করিম জানান, বৃহস্পতিবার (১১ জুলাই) সকাল ৬টার দিকে ঘুম থেকে উঠেই নাস্তা খাওয়ার প্রস্তুতি নিচ্ছিল সপরিবার। এ সময় হঠাৎ পাহাড়ের কাঁদামাটি বসত ঘরে পড়লে চাপা পড়ে গৃহবধূ জমিলা। তাকে স্থানীয়রা উদ্ধার করে হাসপাতালে নিয়ে গেলে কর্তব্যরত চিকিৎসক মৃত ঘোষণা করেন।

কক্সবাজার জেলা সদর হাসপাতালের আবাসিক অফিসার আশিকুর রহমান বলেন, পাহাড় ধসে দু’জনের মৃত্যু হয়েছে। এরমধ্যে এক শিশু ও নারী। তাদের মরদেহ হাসপাতালের মর্গে রাখা হয়েছে।

এ বিষয়ে কক্সবাজার সদর থানা পুলিশের ওসি রকিবুজ্জামান বলেন, পাহাড় ধসে দু’জনের মৃত্যু খবর শুনেছি। ঘটনার পর পাহাড় ধস এলাকা পরিদর্শন করেন কক্সবাজার ফায়ার সার্ভিস।

নিউজটি শেয়ার করুন

আপনার মন্তব্য

Your email address will not be published. Required fields are marked *

আপনার ইমেইল এবং অন্যান্য তথ্য সংরক্ষন করুন

ট্যাগস :

পাহাড় ধসে শিশুসহ দু’জনের মৃত্যু

সংবাদ প্রকাশের সময় : ১১:০৬:৩২ পূর্বাহ্ন, বৃহস্পতিবার, ১১ জুলাই ২০২৪

কক্সবাজার শহরের শহরের সিকদার পাড়া ও পূর্ব পল্যান কাটা এলাকায় পাহাড় ধসে শিশুসহ দুইজনের মৃত্যু হয়েছে। বৃহস্পতিবার (১১ জুলাই) ভোরে এ ঘটনা ঘটে।

নিহতরা হলো- মো: হাসান (১০) ও জমিলা বেগম (৩০)।

নিহত জমিলা বেগমের স্বামী করিম জানান, বৃহস্পতিবার (১১ জুলাই) সকাল ৬টার দিকে ঘুম থেকে উঠেই নাস্তা খাওয়ার প্রস্তুতি নিচ্ছিল সপরিবার। এ সময় হঠাৎ পাহাড়ের কাঁদামাটি বসত ঘরে পড়লে চাপা পড়ে গৃহবধূ জমিলা। তাকে স্থানীয়রা উদ্ধার করে হাসপাতালে নিয়ে গেলে কর্তব্যরত চিকিৎসক মৃত ঘোষণা করেন।

কক্সবাজার জেলা সদর হাসপাতালের আবাসিক অফিসার আশিকুর রহমান বলেন, পাহাড় ধসে দু’জনের মৃত্যু হয়েছে। এরমধ্যে এক শিশু ও নারী। তাদের মরদেহ হাসপাতালের মর্গে রাখা হয়েছে।

এ বিষয়ে কক্সবাজার সদর থানা পুলিশের ওসি রকিবুজ্জামান বলেন, পাহাড় ধসে দু’জনের মৃত্যু খবর শুনেছি। ঘটনার পর পাহাড় ধস এলাকা পরিদর্শন করেন কক্সবাজার ফায়ার সার্ভিস।