ঢাকা ০৪:০৯ অপরাহ্ন, রবিবার, ২১ জুলাই ২০২৪, ৬ শ্রাবণ ১৪৩১ বঙ্গাব্দ

পায়রায় উৎপাদন শুরু, কমবে লোডশেডিং

উত্তম কুমার হাওলাদার, পটুয়াখালী
  • সংবাদ প্রকাশের সময় : ০৭:৫২:১৫ অপরাহ্ন, মঙ্গলবার, ২ জুলাই ২০২৪ ৩৭ বার পড়া হয়েছে
বাংলা টাইমস অনলাইনের সর্বশেষ নিউজ পেতে অনুসরণ করুন গুগল নিউজ (Google News) ফিডটি

৭ দিন পর বিদ্যুৎ উৎপাদন শুরু করেছে পটুয়াখালীর কলাপাড়ায় অবস্থিত দেশের বৃহত্তম পায়রা ১৩২০ মেগাওয়াট তাপ বিদ্যুৎ কেন্দ্রের ইউনিট-১। বিষয়টি নিশ্চিত করেন তাপ বিদ্যুৎ কেন্দ্রের সহকারী ব্যবস্থাপক (ইনভেস্টিগেশন) শাহ মনি জিকো।

সেমবার (২ জুলাই) বিকালে এই ইউনিটটি চালু করা হয়। কেন্দ্রটি থেকে এখন পুরো ১৩২০ মেগাওয়াট বিদ্যুৎ জাতীয় গ্রীডে সরবরাহ করা হচ্ছে। এর আগে গত ২৪ জুন বিকাল ৪টার দিকে রক্ষনাবেক্ষনের জন্য দু’টি ইউনিটের মধ্যে একটি ইউনিটের (৬৬০ মেগাওয়াট) বিদ্যুৎ উৎপাদন বন্ধ করে দেয় কর্তৃপক্ষ। এর ফলে তীব্র লোডশেডিংয়ের কবলে পড়ে দক্ষিণাঞ্চল। তবে এ কেন্দ্রের ইউনিট-১ চালু হওয়ায় লোডশেডিং অনেকটা কমবে বলে জানান সংশ্লিষ্টরা।

পায়রা ১৩২০ মেগাওয়াট তাপ বিদ্যুৎ কেন্দ্রের সহকারী ব্যবস্থাপক (ইনভেস্টিগেশন) শাহ মনি জিকো জানিয়েছেন, ২৪ জুন থেকে নিরবচ্ছিন্ন বিদ্যুৎ উৎপাদনের জন্য নিয়মিত যন্ত্রাংশ রক্ষণাবেক্ষণের কাজ চলছিলো। যে কারণে এতোদিন প্রথম ইউনিটের বিদ্যুৎ উৎপাদনও বন্ধ ছিলো। একটা নির্দিষ্ট সময় পরপর রক্ষণাবেক্ষণ কাজ করতে হয়। রক্ষণাবেক্ষণ শেষে ৪ জুলাই প্রথম ইউনিট চালু করার কথা ছিলো। কিন্তু সোমবার (২ জুলাই) বিকালে সাড়ে ৪টার দিকে ইউনিট-১ থেকে বিদ্যুৎ উৎপাদন করতে সক্ষম হয়।

নিউজটি শেয়ার করুন

আপনার মন্তব্য

Your email address will not be published. Required fields are marked *

আপনার ইমেইল এবং অন্যান্য তথ্য সংরক্ষন করুন

ট্যাগস :

পায়রায় উৎপাদন শুরু, কমবে লোডশেডিং

সংবাদ প্রকাশের সময় : ০৭:৫২:১৫ অপরাহ্ন, মঙ্গলবার, ২ জুলাই ২০২৪

৭ দিন পর বিদ্যুৎ উৎপাদন শুরু করেছে পটুয়াখালীর কলাপাড়ায় অবস্থিত দেশের বৃহত্তম পায়রা ১৩২০ মেগাওয়াট তাপ বিদ্যুৎ কেন্দ্রের ইউনিট-১। বিষয়টি নিশ্চিত করেন তাপ বিদ্যুৎ কেন্দ্রের সহকারী ব্যবস্থাপক (ইনভেস্টিগেশন) শাহ মনি জিকো।

সেমবার (২ জুলাই) বিকালে এই ইউনিটটি চালু করা হয়। কেন্দ্রটি থেকে এখন পুরো ১৩২০ মেগাওয়াট বিদ্যুৎ জাতীয় গ্রীডে সরবরাহ করা হচ্ছে। এর আগে গত ২৪ জুন বিকাল ৪টার দিকে রক্ষনাবেক্ষনের জন্য দু’টি ইউনিটের মধ্যে একটি ইউনিটের (৬৬০ মেগাওয়াট) বিদ্যুৎ উৎপাদন বন্ধ করে দেয় কর্তৃপক্ষ। এর ফলে তীব্র লোডশেডিংয়ের কবলে পড়ে দক্ষিণাঞ্চল। তবে এ কেন্দ্রের ইউনিট-১ চালু হওয়ায় লোডশেডিং অনেকটা কমবে বলে জানান সংশ্লিষ্টরা।

পায়রা ১৩২০ মেগাওয়াট তাপ বিদ্যুৎ কেন্দ্রের সহকারী ব্যবস্থাপক (ইনভেস্টিগেশন) শাহ মনি জিকো জানিয়েছেন, ২৪ জুন থেকে নিরবচ্ছিন্ন বিদ্যুৎ উৎপাদনের জন্য নিয়মিত যন্ত্রাংশ রক্ষণাবেক্ষণের কাজ চলছিলো। যে কারণে এতোদিন প্রথম ইউনিটের বিদ্যুৎ উৎপাদনও বন্ধ ছিলো। একটা নির্দিষ্ট সময় পরপর রক্ষণাবেক্ষণ কাজ করতে হয়। রক্ষণাবেক্ষণ শেষে ৪ জুলাই প্রথম ইউনিট চালু করার কথা ছিলো। কিন্তু সোমবার (২ জুলাই) বিকালে সাড়ে ৪টার দিকে ইউনিট-১ থেকে বিদ্যুৎ উৎপাদন করতে সক্ষম হয়।