ঢাকা ০৮:২০ অপরাহ্ন, সোমবার, ১৫ জুলাই ২০২৪, ৩১ আষাঢ় ১৪৩১ বঙ্গাব্দ

পানি সেচের অভাবে বন্ধ ৫০ বিঘা জমির বোরো আবাদ

আবু বকর সিদ্দিক বক্কর, আদমদীঘি (বগুড়া)
  • সংবাদ প্রকাশের সময় : ০৪:৫৫:৫২ অপরাহ্ন, শনিবার, ২ মার্চ ২০২৪ ১৭২ বার পড়া হয়েছে
বাংলা টাইমস অনলাইনের সর্বশেষ নিউজ পেতে অনুসরণ করুন গুগল নিউজ (Google News) ফিডটি

বগুড়া জেলার আদমদীঘি উপজেলার সান্তাহার ইউনিয়নের সান্দিড়া গ্রামের ফসলি মাঠের একটি স্কীমের সেচ কার্যক্রম পরিচালনাকারী আহম্মেদ আলীর বিরুদ্ধে কৃষি জমিতে সেচের পানি না দেওয়ার অভিযোগ পাওয়া গেছে।

পানি সেচের অভাবে উপজেলার সান্দিড়া ও কলসা মৌজার প্রায় ৫০ বিঘা জমিতে এখনো পর্যন্ত বোরো ধানের চাষাবাদ শুরু করতে পারেনি সেখানকার কৃষকরা। তারা নতুন করে সেচ প্রকল্প স্থাপনের দাবী জানিয়ে উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা রুমানা আফরোজ বরাবর একটি লিখিত আবেদন করেছেন।

জানা গেছে, গত কয়েক যুগ ধরে উপজেলার সান্দিড়া গ্রামের মৃত মছির আলীর ছেলে আহম্মেদ আলী তার নিজ কৃষি জমিসহ প্রায় অর্ধশত বিঘা জমিতে সেচ দিয়ে আসছিলেন। কিন্তু তিনি বৃদ্ধ হওয়ায় সঠিক ভাবে সেচ প্রদান করতে পারেন না। এ জন্য ধানের ফলন আশানুরূপ হয়না। প্রতিকার চেয়ে গত বছরের ১২ ফেব্রুয়ারী উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা বরাবর ২৭ জন কৃষক সম্মিলিত ভাবে একটি লিখিত অভিযোগ করেন। সে জন্য গত মৌসুমে কোনো রকমে চাষাবাদ করে ফসল ঘরে তুলতে পারলেও চলতি মৌসুমে নিজ জমি ছাড়া অন্য কারো জমিতে তিনি পানি দিবেন না বলে সাফ জানিয়ে দিয়েছেন আহম্মেদ আলী। নিরুপায় হয়ে ওই স্কীমের ৩২জন ভুক্তভোগী কৃষক স্বাক্ষরিত একটি লিখিত আবেদন গত ২৩ ফেব্রুয়ারী উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা বরাবর প্রদান করেন। সেই আবেদনে নতুন করে অনতি বিলম্বে তারা সেচ প্রকল্প স্থাপনের দাবী জানান।

স্কীমে পানি সেচের বিষয়ে জানতে চেয়ে সেচ কার্যক্রম পরিচালনাকারী আহম্মেদ আলীর সাথে একাধিকবার যোগাযোগ করার চেষ্টা করে তাকে পাওয়া যায়নি।

উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা রুমানা আফরোজ বিষয়টি নিশ্চিত করে বলেন, জমিতে সেচের পানি না দেওয়ার অভিযোগটি পেয়েছি। প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা নিতে তিন সদস্যের একটি কমিটি গঠন করা হয়েছে। তারা রবিবার (৩ মার্চ) ঘটনাস্থল পরিদর্শনে যাবেন।

নিউজটি শেয়ার করুন

আপনার মন্তব্য

Your email address will not be published. Required fields are marked *

আপনার ইমেইল এবং অন্যান্য তথ্য সংরক্ষন করুন

ট্যাগস :

পানি সেচের অভাবে বন্ধ ৫০ বিঘা জমির বোরো আবাদ

সংবাদ প্রকাশের সময় : ০৪:৫৫:৫২ অপরাহ্ন, শনিবার, ২ মার্চ ২০২৪

বগুড়া জেলার আদমদীঘি উপজেলার সান্তাহার ইউনিয়নের সান্দিড়া গ্রামের ফসলি মাঠের একটি স্কীমের সেচ কার্যক্রম পরিচালনাকারী আহম্মেদ আলীর বিরুদ্ধে কৃষি জমিতে সেচের পানি না দেওয়ার অভিযোগ পাওয়া গেছে।

পানি সেচের অভাবে উপজেলার সান্দিড়া ও কলসা মৌজার প্রায় ৫০ বিঘা জমিতে এখনো পর্যন্ত বোরো ধানের চাষাবাদ শুরু করতে পারেনি সেখানকার কৃষকরা। তারা নতুন করে সেচ প্রকল্প স্থাপনের দাবী জানিয়ে উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা রুমানা আফরোজ বরাবর একটি লিখিত আবেদন করেছেন।

জানা গেছে, গত কয়েক যুগ ধরে উপজেলার সান্দিড়া গ্রামের মৃত মছির আলীর ছেলে আহম্মেদ আলী তার নিজ কৃষি জমিসহ প্রায় অর্ধশত বিঘা জমিতে সেচ দিয়ে আসছিলেন। কিন্তু তিনি বৃদ্ধ হওয়ায় সঠিক ভাবে সেচ প্রদান করতে পারেন না। এ জন্য ধানের ফলন আশানুরূপ হয়না। প্রতিকার চেয়ে গত বছরের ১২ ফেব্রুয়ারী উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা বরাবর ২৭ জন কৃষক সম্মিলিত ভাবে একটি লিখিত অভিযোগ করেন। সে জন্য গত মৌসুমে কোনো রকমে চাষাবাদ করে ফসল ঘরে তুলতে পারলেও চলতি মৌসুমে নিজ জমি ছাড়া অন্য কারো জমিতে তিনি পানি দিবেন না বলে সাফ জানিয়ে দিয়েছেন আহম্মেদ আলী। নিরুপায় হয়ে ওই স্কীমের ৩২জন ভুক্তভোগী কৃষক স্বাক্ষরিত একটি লিখিত আবেদন গত ২৩ ফেব্রুয়ারী উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা বরাবর প্রদান করেন। সেই আবেদনে নতুন করে অনতি বিলম্বে তারা সেচ প্রকল্প স্থাপনের দাবী জানান।

স্কীমে পানি সেচের বিষয়ে জানতে চেয়ে সেচ কার্যক্রম পরিচালনাকারী আহম্মেদ আলীর সাথে একাধিকবার যোগাযোগ করার চেষ্টা করে তাকে পাওয়া যায়নি।

উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা রুমানা আফরোজ বিষয়টি নিশ্চিত করে বলেন, জমিতে সেচের পানি না দেওয়ার অভিযোগটি পেয়েছি। প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা নিতে তিন সদস্যের একটি কমিটি গঠন করা হয়েছে। তারা রবিবার (৩ মার্চ) ঘটনাস্থল পরিদর্শনে যাবেন।