ঢাকা ০২:৪৮ পূর্বাহ্ন, শনিবার, ২০ জুলাই ২০২৪, ৪ শ্রাবণ ১৪৩১ বঙ্গাব্দ

নতুন আতঙ্ক মাঙ্কিপক্স

বাংলা টাইমস ডেস্ক
  • সংবাদ প্রকাশের সময় : ০১:৩৬:০৪ পূর্বাহ্ন, শুক্রবার, ২৮ জুন ২০২৪ ৫০ বার পড়া হয়েছে
বাংলা টাইমস অনলাইনের সর্বশেষ নিউজ পেতে অনুসরণ করুন গুগল নিউজ (Google News) ফিডটি

বছর দেড়েক আগে রীতিমতো দাপট দেখিয়েছিলো মাঙ্কিপক্স। সারা বিশ্বের ১১০টিরও বেশি দেশে আতঙ্ক তৈরি করা সেই আদ্যপ্রাণী আবারও নতুন করে ভয় দেখাতে শুরু করেছে। আফ্রিকার কঙ্গোতে রীতিমতো দাপট দেখানো মাঙ্কিপক্স ভাইরাস বা এমপক্স (Mpox) পার্শ্ববর্তী দেশেও ছড়াতে শুরু করেছে। এমটাই মনে করছেন বিশেষজ্ঞরা।

এ অবস্থায় গবেষকরা বলছেন, এই ভাইরাস থেকে সব দেশকেই সতর্ক থাকতে হবে। কেননা এমপক্সের নতুন স্ট্রেন আরো ভয়ংকর। এর প্রকোপে শিশুমৃত্যু হয়েছে এবং গর্ভপাতের মতো ঘটনা। রাওয়ান্ডা বিশ্ববিদ্যালয়ের গবেষক জিন ক্লড উডাহেমুকা বলেন, সব দেশকে সতর্ক থাকতে হবে। কারণ এই নতুন স্ট্রেন দ্রুত ছড়িয়ে যাচ্ছে।

২০২২ সালে এমপক্সের এক নতুন স্ট্রেনের প্রকোপে সংক্রমণ ছড়িয়েছে। যা মূলত সমকামী ও উভকামী মানুষের মধ্যেই বেশি ছড়িয়েছিলো। সেই স্ট্রেনের নাম ছিলো ক্ল্যাড ২ স্ট্রেন। কিন্তু এবার ভয় দেখাচ্ছে ক্ল্যাড ১-ও।

প্রথমবার ১৯৭০ সালে এর সন্ধান মিলেছিলো। সেই স্ট্রেনই নতুন করে আবার ফিরে এসে আতঙ্ক তৈরি করছে। মূলত পশুখাদ্য থেকেই ছড়াচ্ছে। এটি অন্য স্ট্রেনটির থেকে ১০ গুণ ভয়ংকর। তবে নতুন স্ট্রেন ক্ল্যাড ১বি আরও বড় বিপদের কারণ হতে পারে। সেই আশঙ্কাই করছেন গবেষকরা। কেবলমাত্র কঙ্গোর দক্ষিণ কিভু প্রদেশেই আক্রান্তের সংখ্যা হাজার ছাড়িয়েছে।

যদিও এখন পর্যন্ত কঙ্গোর বাইরে সংক্রমণের কথা বলা হয়নি। কিন্তু ধারনা করা হচ্ছে আশপাশের দেশগুলোতে সংক্রমণ ছড়িয়ে পড়েছে। অনেক যৌনকর্মী প্রতিবেশী দেশ থেকে সংক্রমণ শরীরে নিয়ে চিকিৎসার জন্য এসেছে বলে জানা যায়। এখন পর্যন্ত চলতি বছর এমপক্সে আক্রান্ত হয়ে ৩৮৪ জন মারা গেছে। মৃতদের ৬০ ভাগই শিশু। বাড়ছে আতঙ্ক। পরিস্থিতির সাথে এমনকী কোভিড-১৯ সংক্রমণের শুরুর দিনগুলোর মিল খুঁজে পাচ্ছেন অনেক গবেষক।

নিউজটি শেয়ার করুন

আপনার মন্তব্য

Your email address will not be published. Required fields are marked *

আপনার ইমেইল এবং অন্যান্য তথ্য সংরক্ষন করুন

ট্যাগস :

নতুন আতঙ্ক মাঙ্কিপক্স

সংবাদ প্রকাশের সময় : ০১:৩৬:০৪ পূর্বাহ্ন, শুক্রবার, ২৮ জুন ২০২৪

বছর দেড়েক আগে রীতিমতো দাপট দেখিয়েছিলো মাঙ্কিপক্স। সারা বিশ্বের ১১০টিরও বেশি দেশে আতঙ্ক তৈরি করা সেই আদ্যপ্রাণী আবারও নতুন করে ভয় দেখাতে শুরু করেছে। আফ্রিকার কঙ্গোতে রীতিমতো দাপট দেখানো মাঙ্কিপক্স ভাইরাস বা এমপক্স (Mpox) পার্শ্ববর্তী দেশেও ছড়াতে শুরু করেছে। এমটাই মনে করছেন বিশেষজ্ঞরা।

এ অবস্থায় গবেষকরা বলছেন, এই ভাইরাস থেকে সব দেশকেই সতর্ক থাকতে হবে। কেননা এমপক্সের নতুন স্ট্রেন আরো ভয়ংকর। এর প্রকোপে শিশুমৃত্যু হয়েছে এবং গর্ভপাতের মতো ঘটনা। রাওয়ান্ডা বিশ্ববিদ্যালয়ের গবেষক জিন ক্লড উডাহেমুকা বলেন, সব দেশকে সতর্ক থাকতে হবে। কারণ এই নতুন স্ট্রেন দ্রুত ছড়িয়ে যাচ্ছে।

২০২২ সালে এমপক্সের এক নতুন স্ট্রেনের প্রকোপে সংক্রমণ ছড়িয়েছে। যা মূলত সমকামী ও উভকামী মানুষের মধ্যেই বেশি ছড়িয়েছিলো। সেই স্ট্রেনের নাম ছিলো ক্ল্যাড ২ স্ট্রেন। কিন্তু এবার ভয় দেখাচ্ছে ক্ল্যাড ১-ও।

প্রথমবার ১৯৭০ সালে এর সন্ধান মিলেছিলো। সেই স্ট্রেনই নতুন করে আবার ফিরে এসে আতঙ্ক তৈরি করছে। মূলত পশুখাদ্য থেকেই ছড়াচ্ছে। এটি অন্য স্ট্রেনটির থেকে ১০ গুণ ভয়ংকর। তবে নতুন স্ট্রেন ক্ল্যাড ১বি আরও বড় বিপদের কারণ হতে পারে। সেই আশঙ্কাই করছেন গবেষকরা। কেবলমাত্র কঙ্গোর দক্ষিণ কিভু প্রদেশেই আক্রান্তের সংখ্যা হাজার ছাড়িয়েছে।

যদিও এখন পর্যন্ত কঙ্গোর বাইরে সংক্রমণের কথা বলা হয়নি। কিন্তু ধারনা করা হচ্ছে আশপাশের দেশগুলোতে সংক্রমণ ছড়িয়ে পড়েছে। অনেক যৌনকর্মী প্রতিবেশী দেশ থেকে সংক্রমণ শরীরে নিয়ে চিকিৎসার জন্য এসেছে বলে জানা যায়। এখন পর্যন্ত চলতি বছর এমপক্সে আক্রান্ত হয়ে ৩৮৪ জন মারা গেছে। মৃতদের ৬০ ভাগই শিশু। বাড়ছে আতঙ্ক। পরিস্থিতির সাথে এমনকী কোভিড-১৯ সংক্রমণের শুরুর দিনগুলোর মিল খুঁজে পাচ্ছেন অনেক গবেষক।