ঢাকা ০৯:০২ পূর্বাহ্ন, মঙ্গলবার, ২৩ জুলাই ২০২৪, ৮ শ্রাবণ ১৪৩১ বঙ্গাব্দ

দুই জায়গা থেকে মুক্তিযোদ্ধার ভাতা তোলেন ইউনুস

কাজিপুর (সিরাজগঞ্জ) প্রতিনিধি
  • সংবাদ প্রকাশের সময় : ০৯:১৫:৪০ অপরাহ্ন, মঙ্গলবার, ২ জুলাই ২০২৪ ৫৪ বার পড়া হয়েছে
বাংলা টাইমস অনলাইনের সর্বশেষ নিউজ পেতে অনুসরণ করুন গুগল নিউজ (Google News) ফিডটি

আওয়ামী লীগ সরকার গঠনের মধ্য দিয়ে দেশের সব মুক্তিযোদ্ধাদের জন্য সন্মানি ভাতা চালু হয়। ফলে সব মুক্তিযোদ্ধা সরকারি ভাতা নিয়ে থাকেন।

কিন্তু এই সুযোগে প্রতারণার আশ্রয় নিয়ে গাজী মো. ইউনুস সবাকে ধোঁকা দিয়ে দুই জায়গা থেকে মুক্তিযোদ্ধার ভাতা উত্তোলন করছেন। গাজী মোঃ ইউনুস একজন মুক্তিযোদ্ধা । মুক্তিযোদ্ধার ভাতা পান দুই জায়গা থেকে । তিনি সাধারণ মুক্তিযোদ্ধা ভাতা ও একই সঙ্গে মুক্তিযোদ্ধাহত মুক্তিযোদ্ধার ভাতা পান। নামের গড়মিল দেখিয়ে লাখ লাখ টাকা হাতিয়ে নিচ্ছেন । বাংকে স্টেটমেন্ট অনুযায়ী সিরাজগঞ্জের কাজীপুর সোনালী বাংক থেকে ও সিরাজগঞ্জ সদর অগ্রণী ব্যাংক থেকে মুক্তিযোদ্ধার সন্মানী ও যুদ্ধাহত মুক্তিযোদ্ধার ভাতা উত্তোলন করেন গাজী মোঃ ইউনুস উদ্দিন। সেখানেই দেয়া আছে পিতা কছিমুদ্দিন সরকার এর নামের জায়গায় তার মায়ের নাম সুখিতননেছা। শুধু কি তাই মায়ের নামের পাশে লেখা আছে স্ত্রীর নাম মনোয়ারা । তার দেয়া তথ্যে মুক্তিযোদ্ধা হিসেবে তার গেজেট নম্বর উল্লেখ রয়েছে (৮৯৭), জাতীয় পরিচয় পত্রে ঠিকানা হিসেবে মোঃ ইউনুস উদ্দিন, পিতা: কছিমুদ্দিন, মাতাঃ সুখিতন নেছা , গ্রাম :গান্দাইল, ডাকঘর : গান্দাইল, থানা: কাজিপুর, জেলা: সিরাজগঞ্জ । ইউনুস উদ্দিন জাতীয় পরিচয় পত্র নম্বর : ১৫০২৫৭৭৬৪২৭ এবং মুক্তিবার্তা নম্বর : ৩১২০৬০১৮২।

মুক্তিযোদ্ধার ভাতা জালিয়াতির বিষয় জানতে চাইলে কাজিপুর উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা (ইউএনও) সোহরাব হোসেন বলেন, একজন মুক্তিযোদ্ধা দুই জায়গা থেকে ভাতা পেতে পারেন না। এ রকম অভিযোগ পেলে প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা গ্রহণ করা হবে ।

নাম না প্রকাশ করার শর্তে একাধিক মুক্তিযোদ্ধা বলেন, সাক্ষ্য দেয়ার নামে তিনি টাকা নিয়ে মুক্তিযোদ্ধার পক্ষে সাক্ষ্য দিতেন ।

মুক্তিযোদ্ধার ভাতা জালিয়াতির অভিযোগের বিষয়ে জানতে চাইলে তিনি বলেন, সরকার আমাদের ভালবেসে ভাতা দিচ্ছে। একই সঙ্গে দুই জায়গায় ভাতা উত্তোলন এর বিষয়টি প্রথমে অস্বীকার করলেও পরে বিষয়টি স্বীকার করেন।

নিউজটি শেয়ার করুন

আপনার মন্তব্য

Your email address will not be published. Required fields are marked *

আপনার ইমেইল এবং অন্যান্য তথ্য সংরক্ষন করুন

ট্যাগস :

দুই জায়গা থেকে মুক্তিযোদ্ধার ভাতা তোলেন ইউনুস

সংবাদ প্রকাশের সময় : ০৯:১৫:৪০ অপরাহ্ন, মঙ্গলবার, ২ জুলাই ২০২৪

আওয়ামী লীগ সরকার গঠনের মধ্য দিয়ে দেশের সব মুক্তিযোদ্ধাদের জন্য সন্মানি ভাতা চালু হয়। ফলে সব মুক্তিযোদ্ধা সরকারি ভাতা নিয়ে থাকেন।

কিন্তু এই সুযোগে প্রতারণার আশ্রয় নিয়ে গাজী মো. ইউনুস সবাকে ধোঁকা দিয়ে দুই জায়গা থেকে মুক্তিযোদ্ধার ভাতা উত্তোলন করছেন। গাজী মোঃ ইউনুস একজন মুক্তিযোদ্ধা । মুক্তিযোদ্ধার ভাতা পান দুই জায়গা থেকে । তিনি সাধারণ মুক্তিযোদ্ধা ভাতা ও একই সঙ্গে মুক্তিযোদ্ধাহত মুক্তিযোদ্ধার ভাতা পান। নামের গড়মিল দেখিয়ে লাখ লাখ টাকা হাতিয়ে নিচ্ছেন । বাংকে স্টেটমেন্ট অনুযায়ী সিরাজগঞ্জের কাজীপুর সোনালী বাংক থেকে ও সিরাজগঞ্জ সদর অগ্রণী ব্যাংক থেকে মুক্তিযোদ্ধার সন্মানী ও যুদ্ধাহত মুক্তিযোদ্ধার ভাতা উত্তোলন করেন গাজী মোঃ ইউনুস উদ্দিন। সেখানেই দেয়া আছে পিতা কছিমুদ্দিন সরকার এর নামের জায়গায় তার মায়ের নাম সুখিতননেছা। শুধু কি তাই মায়ের নামের পাশে লেখা আছে স্ত্রীর নাম মনোয়ারা । তার দেয়া তথ্যে মুক্তিযোদ্ধা হিসেবে তার গেজেট নম্বর উল্লেখ রয়েছে (৮৯৭), জাতীয় পরিচয় পত্রে ঠিকানা হিসেবে মোঃ ইউনুস উদ্দিন, পিতা: কছিমুদ্দিন, মাতাঃ সুখিতন নেছা , গ্রাম :গান্দাইল, ডাকঘর : গান্দাইল, থানা: কাজিপুর, জেলা: সিরাজগঞ্জ । ইউনুস উদ্দিন জাতীয় পরিচয় পত্র নম্বর : ১৫০২৫৭৭৬৪২৭ এবং মুক্তিবার্তা নম্বর : ৩১২০৬০১৮২।

মুক্তিযোদ্ধার ভাতা জালিয়াতির বিষয় জানতে চাইলে কাজিপুর উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা (ইউএনও) সোহরাব হোসেন বলেন, একজন মুক্তিযোদ্ধা দুই জায়গা থেকে ভাতা পেতে পারেন না। এ রকম অভিযোগ পেলে প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা গ্রহণ করা হবে ।

নাম না প্রকাশ করার শর্তে একাধিক মুক্তিযোদ্ধা বলেন, সাক্ষ্য দেয়ার নামে তিনি টাকা নিয়ে মুক্তিযোদ্ধার পক্ষে সাক্ষ্য দিতেন ।

মুক্তিযোদ্ধার ভাতা জালিয়াতির অভিযোগের বিষয়ে জানতে চাইলে তিনি বলেন, সরকার আমাদের ভালবেসে ভাতা দিচ্ছে। একই সঙ্গে দুই জায়গায় ভাতা উত্তোলন এর বিষয়টি প্রথমে অস্বীকার করলেও পরে বিষয়টি স্বীকার করেন।