ঢাকা ০৪:৩৬ পূর্বাহ্ন, শুক্রবার, ১৯ জুলাই ২০২৪, ৩ শ্রাবণ ১৪৩১ বঙ্গাব্দ

রোগীর মৃত্যু: হাসপাতালে অপারেশন বন্ধের নির্দেশ

বরগুনা প্রতিনিধি
  • সংবাদ প্রকাশের সময় : ০৬:২৪:১৪ অপরাহ্ন, রবিবার, ৭ জুলাই ২০২৪ ২৯ বার পড়া হয়েছে
বাংলা টাইমস অনলাইনের সর্বশেষ নিউজ পেতে অনুসরণ করুন গুগল নিউজ (Google News) ফিডটি

আমতলী স্পেশালাইজড হাসপাতালের অপারেশন বন্ধের নির্দেশ দিয়েছেন বরগুনা সিভিল সার্জন ডাঃ প্রদীপ কুমার মন্ডল।

রবিবার (৭ জুলাই) হাসপাতাল পরিদর্শণ শেষে তিনি এ নির্দেশ দেন। অপারেশনে মৃত্যুর তিন দিন পেরিয়ে গেলেও স্বাস্থ্য বিভাগ ও প্রশাসন তদন্ত কমিটি গঠন করেনি। এতে সুষ্ঠু বিচার কার্যক্রমে বাধাগ্রস্থ হওয়ার আশঙ্কা করেছেন অপারেশনে মারা যাওয়া আলাউদ্দিনের পরিবার। মৃত্যু আলাউদ্দিনের ভাই সরাফ উদ্দিন মুসুল্লীর অভিযোগ করে বলেন, আইনী পদক্ষেপ যাতে নিতে না পারি তার জন্য হাসপাতাল কর্তৃপক্ষ বিভিন্নভাবে চাপ প্রয়োগ করছেন।

জানাগেছে, আমতলী উপজেলার উত্তর তক্তাবুনিয়া গ্রামের আলাউদ্দিন মুসুল্লী দালাল তপন খাঁনের মাধ্যমে একে স্কুল সড়কের ইউনিক স্পেশালাইজড হাসপাতালে হার্নিয়া রোগ নিয়ে ভর্তি হয়। গত শুক্রবার রাতে ডাঃ মাহবুবুর রহমান কচি ওই রোগীর অপারেশন করেন। অপারেশনের দুই ঘন্টা পরে রোগী আলাউদ্দিন গুরুতর অসুস্থ্য হয়ে ওই হসপিটালে মারা যায়। কিন্তু হাসপাতার কর্তৃপক্ষ রোগী মারা যাওয়ার বিষয়টি বুঝতে দেয়নি তার পরিবারের সদস্যদের।

পরে রাত সাড়ে ১২ টার দিকে হাসপাতাল কর্তৃপক্ষ উন্নত চিকিৎসার কথা বলে ঘটনা ধামাচাপা দিতে মৃত্যু আলাউদ্দিনসহ তার স্বজনদের এ্যাম্বুলেন্সে তুলে দেয় এমন অভিযোগ স্বজনদের। তারা তাকে পটুয়াখালী মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে নিয়ে যায়। ওই হাসপাতালের কর্তব্যরত চিকিৎসক তাকে মৃত্যু ঘোষনা করেছেন। এ ঘটনায় বরগুনা সিভিল সার্জন ডাঃ প্রদীপ কুমার মন্ডল রবিবার ঘটনাস্থল পরিদর্শণ করেছেন। পরে তিনি পরবর্তি নির্দেশ না দেয়া পর্যন্ত ইউনিক স্পেশালাইজড হাসপাতালের সকল ধরনের অপারেশন বন্ধের নির্দেশ দিয়েছেন। অপর দিকে ঘটনার তিন দিন পেরিয়ে গেলেও বরগুনা স্বাস্থ্য বিভাগ ও প্রশাসন তদন্ত কমিটি গঠন করেননি। এতে সুষ্ঠু বিচার কার্যক্রমে বাধা গ্রন্থ হওয়ার আশঙ্কা করেছেন ভুক্তভোগী পরিবার।

অপারেশনে মৃত্যু আলাউদ্দিনের ভাই সরাফ উদ্দিন মুসুল্লী বলেন, আমার ভাইয়ের মৃত্যুর তিন দিন পেরিয়ে গেলেও স্বাস্থ্য বিভাগ ও প্রশাসন ওই হাসপাতালের বিরুদ্ধে ব্যবস্থা নেয়নি। তিনি আরো বলেন, আমরা যাতে আইনী পদক্ষেপ নিতে না পারি তার জন্য হাসপাতাল কর্তৃপক্ষ বিভিন্নভাবে চাপ প্রয়োগ করছেন।

বরগুনা সিভিল সার্জন ডাঃ প্রদীপ কুমার মন্ডল বলেন, হাসপাতাল পরিদর্শণ করে সকল ধরনের অপারেশন বন্ধের নির্দেশ দিয়েছি। পরবর্তি নির্দেশ না দেয়া পর্যন্ত হাসপাতালের সকল ধরনের অপারেশন বন্ধ থাকবে। তিনি আরো বলেন, দুই এক দিনের মধ্যে এ ঘটনার তদন্ত কমিটি গঠন করা হবে।

নিউজটি শেয়ার করুন

আপনার মন্তব্য

Your email address will not be published. Required fields are marked *

আপনার ইমেইল এবং অন্যান্য তথ্য সংরক্ষন করুন

ট্যাগস :

রোগীর মৃত্যু: হাসপাতালে অপারেশন বন্ধের নির্দেশ

সংবাদ প্রকাশের সময় : ০৬:২৪:১৪ অপরাহ্ন, রবিবার, ৭ জুলাই ২০২৪

আমতলী স্পেশালাইজড হাসপাতালের অপারেশন বন্ধের নির্দেশ দিয়েছেন বরগুনা সিভিল সার্জন ডাঃ প্রদীপ কুমার মন্ডল।

রবিবার (৭ জুলাই) হাসপাতাল পরিদর্শণ শেষে তিনি এ নির্দেশ দেন। অপারেশনে মৃত্যুর তিন দিন পেরিয়ে গেলেও স্বাস্থ্য বিভাগ ও প্রশাসন তদন্ত কমিটি গঠন করেনি। এতে সুষ্ঠু বিচার কার্যক্রমে বাধাগ্রস্থ হওয়ার আশঙ্কা করেছেন অপারেশনে মারা যাওয়া আলাউদ্দিনের পরিবার। মৃত্যু আলাউদ্দিনের ভাই সরাফ উদ্দিন মুসুল্লীর অভিযোগ করে বলেন, আইনী পদক্ষেপ যাতে নিতে না পারি তার জন্য হাসপাতাল কর্তৃপক্ষ বিভিন্নভাবে চাপ প্রয়োগ করছেন।

জানাগেছে, আমতলী উপজেলার উত্তর তক্তাবুনিয়া গ্রামের আলাউদ্দিন মুসুল্লী দালাল তপন খাঁনের মাধ্যমে একে স্কুল সড়কের ইউনিক স্পেশালাইজড হাসপাতালে হার্নিয়া রোগ নিয়ে ভর্তি হয়। গত শুক্রবার রাতে ডাঃ মাহবুবুর রহমান কচি ওই রোগীর অপারেশন করেন। অপারেশনের দুই ঘন্টা পরে রোগী আলাউদ্দিন গুরুতর অসুস্থ্য হয়ে ওই হসপিটালে মারা যায়। কিন্তু হাসপাতার কর্তৃপক্ষ রোগী মারা যাওয়ার বিষয়টি বুঝতে দেয়নি তার পরিবারের সদস্যদের।

পরে রাত সাড়ে ১২ টার দিকে হাসপাতাল কর্তৃপক্ষ উন্নত চিকিৎসার কথা বলে ঘটনা ধামাচাপা দিতে মৃত্যু আলাউদ্দিনসহ তার স্বজনদের এ্যাম্বুলেন্সে তুলে দেয় এমন অভিযোগ স্বজনদের। তারা তাকে পটুয়াখালী মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে নিয়ে যায়। ওই হাসপাতালের কর্তব্যরত চিকিৎসক তাকে মৃত্যু ঘোষনা করেছেন। এ ঘটনায় বরগুনা সিভিল সার্জন ডাঃ প্রদীপ কুমার মন্ডল রবিবার ঘটনাস্থল পরিদর্শণ করেছেন। পরে তিনি পরবর্তি নির্দেশ না দেয়া পর্যন্ত ইউনিক স্পেশালাইজড হাসপাতালের সকল ধরনের অপারেশন বন্ধের নির্দেশ দিয়েছেন। অপর দিকে ঘটনার তিন দিন পেরিয়ে গেলেও বরগুনা স্বাস্থ্য বিভাগ ও প্রশাসন তদন্ত কমিটি গঠন করেননি। এতে সুষ্ঠু বিচার কার্যক্রমে বাধা গ্রন্থ হওয়ার আশঙ্কা করেছেন ভুক্তভোগী পরিবার।

অপারেশনে মৃত্যু আলাউদ্দিনের ভাই সরাফ উদ্দিন মুসুল্লী বলেন, আমার ভাইয়ের মৃত্যুর তিন দিন পেরিয়ে গেলেও স্বাস্থ্য বিভাগ ও প্রশাসন ওই হাসপাতালের বিরুদ্ধে ব্যবস্থা নেয়নি। তিনি আরো বলেন, আমরা যাতে আইনী পদক্ষেপ নিতে না পারি তার জন্য হাসপাতাল কর্তৃপক্ষ বিভিন্নভাবে চাপ প্রয়োগ করছেন।

বরগুনা সিভিল সার্জন ডাঃ প্রদীপ কুমার মন্ডল বলেন, হাসপাতাল পরিদর্শণ করে সকল ধরনের অপারেশন বন্ধের নির্দেশ দিয়েছি। পরবর্তি নির্দেশ না দেয়া পর্যন্ত হাসপাতালের সকল ধরনের অপারেশন বন্ধ থাকবে। তিনি আরো বলেন, দুই এক দিনের মধ্যে এ ঘটনার তদন্ত কমিটি গঠন করা হবে।