ঢাকা ০৮:৪৮ পূর্বাহ্ন, মঙ্গলবার, ২৩ জুলাই ২০২৪, ৮ শ্রাবণ ১৪৩১ বঙ্গাব্দ

এনবিআরের মতিউরের স্ত্রী-সন্তানের পাসপোর্টের তথ্য চাইলো দুদক

নিজস্ব প্রতিবেদক
  • সংবাদ প্রকাশের সময় : ০৫:৪৭:২৯ অপরাহ্ন, মঙ্গলবার, ৯ জুলাই ২০২৪ ২৩ বার পড়া হয়েছে
বাংলা টাইমস অনলাইনের সর্বশেষ নিউজ পেতে অনুসরণ করুন গুগল নিউজ (Google News) ফিডটি

ছাগলকাণ্ডে আলোচিত এনবিআরের সাবেক কর্মকর্তা মতিউর রহমানসহ তার দুই স্ত্রী ও দুই সন্তানের জাতীয় পরিচয়পত্র এবং পাসপোর্টের তথ্য চেয়ে চিঠি দিয়েছে দুর্নীতি দমন কমিশন (দুদক)।

মঙ্গলবার (৯ জুলাই) দুদকের প্রধান কার্যালয় থেকে নির্বাচন কমিশন ও পাসপোর্ট অফিসে পাঠানো র্পথক চিঠিতে এ তথ্য চাওয়া হয়।

কোরবানীর ঈদে এনবিআরের সাবেক কর্মকর্তা মতিউর রহমানের দ্বিতীয় স্ত্রীর ছেলে মুশফিকুর রহমান ১৫ লাখ টাকার ছাগল কিনে সামাজিক যোগাযোগমাধ্যমে ব্যাপক আলোচনায় আসে। ছেলের বিলাসী জীবনযাপন নিয়ে তুমুল আলোচনা-সমালোচনার সূত্র ধরেই মতিউরের বিপুল সম্পদের বিষয়টি সামনে আসে।

এরপর থেকে মতিউর রহমান ও তার পরিবারের সদস্যদের নামে শুটিং স্পট, রিসোর্ট, পার্ক, বিলাসবহুল বাংলোবাড়ি, জমিসহ নামে-বেনামে বিপুল সম্পত্তির তথ্য বেরিয়ে আসে। পুঁজিবাজারেও মোটা অঙ্কের বিনিয়োগ রয়েছে মতিউরের।

এ ঘটনার পর এনবিআরের সাবেক এই কর্মকর্তা মতিউর, তার স্ত্রী নরসিংদীর রায়পুরার উপজেলা চেয়ারম্যান লায়লা কানিজ ও তাদের ছেলে আহম্মেদ তৌফিকুর রহমান অর্ণবকে বিদেশ গমনে নিষেধাজ্ঞা দেন আদালত।

মতিউরকে এনবিআর কর্মকর্তার দায়িত্ব থেকে সরিয়ে ওএসডি করা হয়। রাষ্ট্রীয় সোনালী ব্যাংকের পরিচালকের পদ থেকেও তাকে সরানো হয় ।

ছাগলকান্ডের পর থেকেই গা ঢাকা দিয়েছেন আলোচিত কর্মকর্তা মতিউর। তার ও তার পরিবারের সদস্যদের বিপুল অবৈধ অর্থ সম্পদের খোঁজ পেয়েছে দুদক। সেসব সম্পদ জব্দে আালতের অনুমতিও মিলেছে।

শুধু পরিবারের সদস্যদেরই নয়, মতিউরের বান্ধবী ও রাজস্ব কর্মকর্তা আরজিনাও অঢেল সম্পদের মালিক। সম্প্রতি মতিউর-আরজিনার একটি ফোনালাপ ফাঁস হয়। সেই ফোনালাপ থেকেই ছাগলকাণ্ডের মতিউরের সাথে তার অধস্তন আরজিনা খাতুনের সম্পর্ক নিয়ে অনেক অজানা তথ্য সামনে এসে পড়েছে।

নিউজটি শেয়ার করুন

আপনার মন্তব্য

Your email address will not be published. Required fields are marked *

আপনার ইমেইল এবং অন্যান্য তথ্য সংরক্ষন করুন

ট্যাগস :

এনবিআরের মতিউরের স্ত্রী-সন্তানের পাসপোর্টের তথ্য চাইলো দুদক

সংবাদ প্রকাশের সময় : ০৫:৪৭:২৯ অপরাহ্ন, মঙ্গলবার, ৯ জুলাই ২০২৪

ছাগলকাণ্ডে আলোচিত এনবিআরের সাবেক কর্মকর্তা মতিউর রহমানসহ তার দুই স্ত্রী ও দুই সন্তানের জাতীয় পরিচয়পত্র এবং পাসপোর্টের তথ্য চেয়ে চিঠি দিয়েছে দুর্নীতি দমন কমিশন (দুদক)।

মঙ্গলবার (৯ জুলাই) দুদকের প্রধান কার্যালয় থেকে নির্বাচন কমিশন ও পাসপোর্ট অফিসে পাঠানো র্পথক চিঠিতে এ তথ্য চাওয়া হয়।

কোরবানীর ঈদে এনবিআরের সাবেক কর্মকর্তা মতিউর রহমানের দ্বিতীয় স্ত্রীর ছেলে মুশফিকুর রহমান ১৫ লাখ টাকার ছাগল কিনে সামাজিক যোগাযোগমাধ্যমে ব্যাপক আলোচনায় আসে। ছেলের বিলাসী জীবনযাপন নিয়ে তুমুল আলোচনা-সমালোচনার সূত্র ধরেই মতিউরের বিপুল সম্পদের বিষয়টি সামনে আসে।

এরপর থেকে মতিউর রহমান ও তার পরিবারের সদস্যদের নামে শুটিং স্পট, রিসোর্ট, পার্ক, বিলাসবহুল বাংলোবাড়ি, জমিসহ নামে-বেনামে বিপুল সম্পত্তির তথ্য বেরিয়ে আসে। পুঁজিবাজারেও মোটা অঙ্কের বিনিয়োগ রয়েছে মতিউরের।

এ ঘটনার পর এনবিআরের সাবেক এই কর্মকর্তা মতিউর, তার স্ত্রী নরসিংদীর রায়পুরার উপজেলা চেয়ারম্যান লায়লা কানিজ ও তাদের ছেলে আহম্মেদ তৌফিকুর রহমান অর্ণবকে বিদেশ গমনে নিষেধাজ্ঞা দেন আদালত।

মতিউরকে এনবিআর কর্মকর্তার দায়িত্ব থেকে সরিয়ে ওএসডি করা হয়। রাষ্ট্রীয় সোনালী ব্যাংকের পরিচালকের পদ থেকেও তাকে সরানো হয় ।

ছাগলকান্ডের পর থেকেই গা ঢাকা দিয়েছেন আলোচিত কর্মকর্তা মতিউর। তার ও তার পরিবারের সদস্যদের বিপুল অবৈধ অর্থ সম্পদের খোঁজ পেয়েছে দুদক। সেসব সম্পদ জব্দে আালতের অনুমতিও মিলেছে।

শুধু পরিবারের সদস্যদেরই নয়, মতিউরের বান্ধবী ও রাজস্ব কর্মকর্তা আরজিনাও অঢেল সম্পদের মালিক। সম্প্রতি মতিউর-আরজিনার একটি ফোনালাপ ফাঁস হয়। সেই ফোনালাপ থেকেই ছাগলকাণ্ডের মতিউরের সাথে তার অধস্তন আরজিনা খাতুনের সম্পর্ক নিয়ে অনেক অজানা তথ্য সামনে এসে পড়েছে।