ঢাকা ০৮:০৮ অপরাহ্ন, বৃহস্পতিবার, ১৮ জুলাই ২০২৪, ৩ শ্রাবণ ১৪৩১ বঙ্গাব্দ

অবৈধ সম্পদ : স্ত্রীসহ রাজউক পরিচালকের বিরুদ্ধে মামলা

নিজস্ব প্রতিবেদক
  • সংবাদ প্রকাশের সময় : ০৫:১৮:৫৬ অপরাহ্ন, বুধবার, ৩ জুলাই ২০২৪ ৩৬ বার পড়া হয়েছে
বাংলা টাইমস অনলাইনের সর্বশেষ নিউজ পেতে অনুসরণ করুন গুগল নিউজ (Google News) ফিডটি

অবৈধ সম্পদ অর্জনের অভিযোগে রাজউকের সহকারী পরিচালক মো. মোবারক হোসেনের বিরুদ্ধে মামলা করেছে দুদক। বুধবার (৩ জুলাই) র্নীতি দমন কমিশন (দুদক) দু’দকের ঢাকা সমন্বিত জেলা কার্যালয়ে সংস্থাটির সহকারী পরিচালক আসিফ আল মাহমুদ বাদী হয়ে মামলাটি দায়ের করেন। এছাড়া তার স্ত্রী সাহানা পারভীনের বিরুদ্ধেও মামলা করা হয়েছে।

জানা গেছে, পরিচালক (উন্নয়ন নিয়ন্ত্রণ-২) মোবারক হোসেনের দাখিল করা সম্পদ বিবরণী অনুযায়ী ৪১ লাখ ৪৬ হাজার ৮৪৫ টাকার আয়ের উৎসের সাথে অসঙ্গতিপূর্ণ সম্পদ অর্জনের প্রমাণ পাওয়া যায়। এ কারণেই তার বিরুদ্ধে মামলা দায়ের করেছে দুদক।

অন্যদিকে, মো. মোবারক হোসেনের স্ত্রী সাহানা পারভীন পেশায় গৃহিণী হলেও তার নামে এক কোটি ৫৮ লাখ ৭৩ হাজার ১৫২ টাকার জ্ঞাত আয়বহির্ভূত সম্পদ অর্জনের প্রমাণ মিলেছে। যা তার স্বামীর অবৈধভাবে অর্জিত অর্থ দিয়ে ওই সম্পদ করেছেন বলে দুদক মনে করছে। যে কারণে শাহানা পারভিনকে দ্বিতীয় আসামি করা হয়েছে এই মামলায়।

নিউজটি শেয়ার করুন

আপনার মন্তব্য

Your email address will not be published. Required fields are marked *

আপনার ইমেইল এবং অন্যান্য তথ্য সংরক্ষন করুন

ট্যাগস :

অবৈধ সম্পদ : স্ত্রীসহ রাজউক পরিচালকের বিরুদ্ধে মামলা

সংবাদ প্রকাশের সময় : ০৫:১৮:৫৬ অপরাহ্ন, বুধবার, ৩ জুলাই ২০২৪

অবৈধ সম্পদ অর্জনের অভিযোগে রাজউকের সহকারী পরিচালক মো. মোবারক হোসেনের বিরুদ্ধে মামলা করেছে দুদক। বুধবার (৩ জুলাই) র্নীতি দমন কমিশন (দুদক) দু’দকের ঢাকা সমন্বিত জেলা কার্যালয়ে সংস্থাটির সহকারী পরিচালক আসিফ আল মাহমুদ বাদী হয়ে মামলাটি দায়ের করেন। এছাড়া তার স্ত্রী সাহানা পারভীনের বিরুদ্ধেও মামলা করা হয়েছে।

জানা গেছে, পরিচালক (উন্নয়ন নিয়ন্ত্রণ-২) মোবারক হোসেনের দাখিল করা সম্পদ বিবরণী অনুযায়ী ৪১ লাখ ৪৬ হাজার ৮৪৫ টাকার আয়ের উৎসের সাথে অসঙ্গতিপূর্ণ সম্পদ অর্জনের প্রমাণ পাওয়া যায়। এ কারণেই তার বিরুদ্ধে মামলা দায়ের করেছে দুদক।

অন্যদিকে, মো. মোবারক হোসেনের স্ত্রী সাহানা পারভীন পেশায় গৃহিণী হলেও তার নামে এক কোটি ৫৮ লাখ ৭৩ হাজার ১৫২ টাকার জ্ঞাত আয়বহির্ভূত সম্পদ অর্জনের প্রমাণ মিলেছে। যা তার স্বামীর অবৈধভাবে অর্জিত অর্থ দিয়ে ওই সম্পদ করেছেন বলে দুদক মনে করছে। যে কারণে শাহানা পারভিনকে দ্বিতীয় আসামি করা হয়েছে এই মামলায়।