ঢাকা ১০:৩৩ অপরাহ্ন, বৃহস্পতিবার, ১৮ জুলাই ২০২৪, ৩ শ্রাবণ ১৪৩১ বঙ্গাব্দ

বিয়ে করছেন ‘ধর্ষক’, ১৫ দিনের জামিন দিলেন আদালত

বাংলা টাইমস ডেস্ক
  • সংবাদ প্রকাশের সময় : ০১:১০:৫৪ পূর্বাহ্ন, বুধবার, ১৯ জুন ২০২৪ ৫৯ বার পড়া হয়েছে
বাংলা টাইমস অনলাইনের সর্বশেষ নিউজ পেতে অনুসরণ করুন গুগল নিউজ (Google News) ফিডটি

বিয়ে করতে চলেছেন ধর্ষণের আসামী। এজন্য অভিযুক্তকে ১৫ দিনের জামিনে মুক্তি দিয়েছেন কর্নাটক হাই কোর্ট (Karnataka High Court)। ১৬ বছর ৯ মাসের নাবালিকাকে ধর্ষণে অভিযুক্ত হন যুবক। এরপর কয়েক বছর থেকে ওই অপরাধেই কারাবন্দী তিনি।

সম্প্রতি দুই পরিবার এবং আদালতের সম্মতিতে নির্যাতিতার সাথে বিয়ের দিনক্ষণ ঠিক হয় তার। সেই অনুষ্ঠান উপলক্ষে দুই সপ্তাহের জামিন দিলো আদালত।

২০২৩ সালের ফেব্রুয়ারি মাসে নির্যাতিতার মা পুলিশে লিখিত অভিযোগ করেন। তিনি জানান, ১৬ বছর ৯ মাস বয়সি তার মেয়ে একাধিকবার অভিযুক্ত যুবকের যৌন লালসার স্বীকার হয়েছে। যুবকের বিরুদ্ধে আইনে মামলা হয়। এরপর থেকেই কারাবন্দী ওই যুবক। এরমধ্যে ১৮ বছর পূর্ণ হয়েছে নির্যাতিতার। পাশাপাশি একটি শিশু সন্তানের জন্ম দিয়েছেন তিনি। ডিএনএ পরীক্ষায় স্পষ্ট হয়েছে সন্তানের বাবা ধর্ষণে অভিযুক্ত ওই যুবক।

সম্প্রতি দুই পরিবারের সদস্যরা বিয়েতে রাজি হন। সেই অনুযায়ী আদালতে আবেদন করেন তারা। শুনানিতে বৈবাহিক অনুষ্ঠানে অংশগ্রহণের জন্য অভিযুক্তের ১৫ দিনের জামিনের আবেদনে মঞ্জুর করেন কর্নাটক হাই কোর্ট।

আদালত জানিয়েছেন, আগামী ৩ জুন সন্ধ্যার মধ্যে আত্মসমর্পণ করতে হবে অভিযুক্তকে। ৪ জুন শুনানিতে যুগলকে আইনত বিবাহের শংসাপত্র প্রদান করা হবে। এরপর পর মুক্তি।

নিউজটি শেয়ার করুন

আপনার মন্তব্য

Your email address will not be published. Required fields are marked *

আপনার ইমেইল এবং অন্যান্য তথ্য সংরক্ষন করুন

ট্যাগস :

বিয়ে করছেন ‘ধর্ষক’, ১৫ দিনের জামিন দিলেন আদালত

সংবাদ প্রকাশের সময় : ০১:১০:৫৪ পূর্বাহ্ন, বুধবার, ১৯ জুন ২০২৪

বিয়ে করতে চলেছেন ধর্ষণের আসামী। এজন্য অভিযুক্তকে ১৫ দিনের জামিনে মুক্তি দিয়েছেন কর্নাটক হাই কোর্ট (Karnataka High Court)। ১৬ বছর ৯ মাসের নাবালিকাকে ধর্ষণে অভিযুক্ত হন যুবক। এরপর কয়েক বছর থেকে ওই অপরাধেই কারাবন্দী তিনি।

সম্প্রতি দুই পরিবার এবং আদালতের সম্মতিতে নির্যাতিতার সাথে বিয়ের দিনক্ষণ ঠিক হয় তার। সেই অনুষ্ঠান উপলক্ষে দুই সপ্তাহের জামিন দিলো আদালত।

২০২৩ সালের ফেব্রুয়ারি মাসে নির্যাতিতার মা পুলিশে লিখিত অভিযোগ করেন। তিনি জানান, ১৬ বছর ৯ মাস বয়সি তার মেয়ে একাধিকবার অভিযুক্ত যুবকের যৌন লালসার স্বীকার হয়েছে। যুবকের বিরুদ্ধে আইনে মামলা হয়। এরপর থেকেই কারাবন্দী ওই যুবক। এরমধ্যে ১৮ বছর পূর্ণ হয়েছে নির্যাতিতার। পাশাপাশি একটি শিশু সন্তানের জন্ম দিয়েছেন তিনি। ডিএনএ পরীক্ষায় স্পষ্ট হয়েছে সন্তানের বাবা ধর্ষণে অভিযুক্ত ওই যুবক।

সম্প্রতি দুই পরিবারের সদস্যরা বিয়েতে রাজি হন। সেই অনুযায়ী আদালতে আবেদন করেন তারা। শুনানিতে বৈবাহিক অনুষ্ঠানে অংশগ্রহণের জন্য অভিযুক্তের ১৫ দিনের জামিনের আবেদনে মঞ্জুর করেন কর্নাটক হাই কোর্ট।

আদালত জানিয়েছেন, আগামী ৩ জুন সন্ধ্যার মধ্যে আত্মসমর্পণ করতে হবে অভিযুক্তকে। ৪ জুন শুনানিতে যুগলকে আইনত বিবাহের শংসাপত্র প্রদান করা হবে। এরপর পর মুক্তি।