ঢাকা ০৭:৫৭ পূর্বাহ্ন, মঙ্গলবার, ২৩ জুলাই ২০২৪, ৮ শ্রাবণ ১৪৩১ বঙ্গাব্দ

কর্মবিরতিতে পল্লী বিদ্যুতের কর্মকর্তা-কর্মচারীরা, বিদ্যুৎ বিপর্যয়ের শংকা

দেবব্রত দত্ত
  • সংবাদ প্রকাশের সময় : ১১:১৭:১০ পূর্বাহ্ন, সোমবার, ১ জুলাই ২০২৪ ৪৭ বার পড়া হয়েছে
বাংলা টাইমস অনলাইনের সর্বশেষ নিউজ পেতে অনুসরণ করুন গুগল নিউজ (Google News) ফিডটি

দুই দফা দাবিতে কর্মবিরতি পালন করছে সারাদেশের ৮০টি পল্লী বিদ্যুৎ সমিতির ৪০ হাজার কর্মকর্তা-কর্মচারীরা। সোমবার (১ জুলাই) থেকে তারা এই কর্মবিরতি পালন করছেন। এর ফলে বিদ্যুৎ বিপর্যয়ের শংকা রয়েছে। তবে, জরুরী বিদ্যুৎ সেবা চালু রেখেই অনির্দিষ্টকালের জন্য কর্মবিরতি পালন করছে তারা।

এর আগে, রোববার (৩০ জুন) ভার্চুয়াল সংবাদ সম্মেলনে এ কর্মসূচি ঘোষণা করেন পল্লী বিদ্যুৎ সমিতির এজিএম প্রকৌশলী রাজন কুমার দাস ।

সংবাদ সম্মেলনে তিনি বলেন, বিদ্যুৎ সরবরাহের কাজে নিয়োজিত পল্লী বিদ্যুৎ সমিতির কর্মকর্তা-কর্মচারীরা ঝুঁকি নিয়ে নিরবচ্ছিন্ন বিদ্যুৎ সেবা দিয়ে যাচ্ছে। কিন্তু পল্লী বিদ্যুতায়ন বোর্ডের নীতির কারণে বিভিন্ন সুযোগ সুবিধা থেকে বঞ্চিত হচ্ছে পল্লী বিদ্যুৎ সমিতির প্রায় ৪০ হাজার কর্মকর্তা-কর্মচারী। কর্মীরা একই প্রতিষ্ঠানে চাকরি করলেও পদ-পদবী, বেতনভাতা, বোনাসসহ পদোন্নতির ক্ষেত্রে চরম বৈষম্যের শিকার হয়ে আসছে।

তিনি আরও বলেন, এসব বৈষম্যের বিরুদ্ধে গত ৫ মে থেকে কর্মবিরতি পালন করেছেন কর্মকর্তা কর্মচারীরা। সমস্যা সমাধানে ১৫ কার্যদিবসের মধ্যে আলোচনায় বসবে, বিদ্যুৎ বিভাগের এমন আশ্বাসে কাজে ফিরে যাই। বিদ্যুৎ বিভাগের চাহিদা অনুযায়ী সারাদেশের ৮০টি পল্লী বিদ্যুৎ সমিতির ৩৭৫৪২ জন কর্মকর্তা-কর্মচারীর স্বাক্ষর সম্বলিত চিঠি বিদ্যুৎ বিভাগসহ বিআরইবিতে জমা দেয়া হয়। যেখানে বোর্ডের প্রতি অনাস্থা জানানো হয়।

নিউজটি শেয়ার করুন

আপনার মন্তব্য

Your email address will not be published. Required fields are marked *

আপনার ইমেইল এবং অন্যান্য তথ্য সংরক্ষন করুন

ট্যাগস :

কর্মবিরতিতে পল্লী বিদ্যুতের কর্মকর্তা-কর্মচারীরা, বিদ্যুৎ বিপর্যয়ের শংকা

সংবাদ প্রকাশের সময় : ১১:১৭:১০ পূর্বাহ্ন, সোমবার, ১ জুলাই ২০২৪

দুই দফা দাবিতে কর্মবিরতি পালন করছে সারাদেশের ৮০টি পল্লী বিদ্যুৎ সমিতির ৪০ হাজার কর্মকর্তা-কর্মচারীরা। সোমবার (১ জুলাই) থেকে তারা এই কর্মবিরতি পালন করছেন। এর ফলে বিদ্যুৎ বিপর্যয়ের শংকা রয়েছে। তবে, জরুরী বিদ্যুৎ সেবা চালু রেখেই অনির্দিষ্টকালের জন্য কর্মবিরতি পালন করছে তারা।

এর আগে, রোববার (৩০ জুন) ভার্চুয়াল সংবাদ সম্মেলনে এ কর্মসূচি ঘোষণা করেন পল্লী বিদ্যুৎ সমিতির এজিএম প্রকৌশলী রাজন কুমার দাস ।

সংবাদ সম্মেলনে তিনি বলেন, বিদ্যুৎ সরবরাহের কাজে নিয়োজিত পল্লী বিদ্যুৎ সমিতির কর্মকর্তা-কর্মচারীরা ঝুঁকি নিয়ে নিরবচ্ছিন্ন বিদ্যুৎ সেবা দিয়ে যাচ্ছে। কিন্তু পল্লী বিদ্যুতায়ন বোর্ডের নীতির কারণে বিভিন্ন সুযোগ সুবিধা থেকে বঞ্চিত হচ্ছে পল্লী বিদ্যুৎ সমিতির প্রায় ৪০ হাজার কর্মকর্তা-কর্মচারী। কর্মীরা একই প্রতিষ্ঠানে চাকরি করলেও পদ-পদবী, বেতনভাতা, বোনাসসহ পদোন্নতির ক্ষেত্রে চরম বৈষম্যের শিকার হয়ে আসছে।

তিনি আরও বলেন, এসব বৈষম্যের বিরুদ্ধে গত ৫ মে থেকে কর্মবিরতি পালন করেছেন কর্মকর্তা কর্মচারীরা। সমস্যা সমাধানে ১৫ কার্যদিবসের মধ্যে আলোচনায় বসবে, বিদ্যুৎ বিভাগের এমন আশ্বাসে কাজে ফিরে যাই। বিদ্যুৎ বিভাগের চাহিদা অনুযায়ী সারাদেশের ৮০টি পল্লী বিদ্যুৎ সমিতির ৩৭৫৪২ জন কর্মকর্তা-কর্মচারীর স্বাক্ষর সম্বলিত চিঠি বিদ্যুৎ বিভাগসহ বিআরইবিতে জমা দেয়া হয়। যেখানে বোর্ডের প্রতি অনাস্থা জানানো হয়।