ঢাকা ০৭:১০ অপরাহ্ন, শুক্রবার, ১৯ জুলাই ২০২৪, ৪ শ্রাবণ ১৪৩১ বঙ্গাব্দ

অনির্দিষ্টকাল বন্ধ ৩৫টি পাবলিক বিশ্ববিদ্যালয়

নিজস্ব প্রতিবেদক
  • সংবাদ প্রকাশের সময় : ১১:৩৮:৪২ পূর্বাহ্ন, সোমবার, ১ জুলাই ২০২৪ ৫৯ বার পড়া হয়েছে
বাংলা টাইমস অনলাইনের সর্বশেষ নিউজ পেতে অনুসরণ করুন গুগল নিউজ (Google News) ফিডটি

বৈষম্যমূলক পে-স্কেল ও পেনশন স্কেলের প্রতিবাদে সর্বাত্মক কর্মবিরতি পালন করছেন ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়সহ দেশের ৩৫টি পাবলিক বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষক-কর্মকর্তা-কর্মচারীরা। ফলে বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষা কার্যক্রম পুরোপুরি বন্ধ হয়ে পড়েছে।

সোমবার (১ জুলাই) সকাল থেকে এই কর্মবিরতি পালন করা হচ্ছে। ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়, জগন্নাথ বিশ্ববিদ্যালয়সহ অন্য বিশ্ববিদ্যালয়গুলোয় শিক্ষকদের কর্মবিরতির কারণে অনির্দিষ্টকালের জন্য ক্লাস-পরীক্ষা বন্ধ থাকছে।

এর আগে রোববার (৩০ জুন) ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ে অবস্থান কর্মসূচিতে শিক্ষকদের কর্মবিরতির ঘোষণা দেন বিশ্ববিদ্যালয় শিক্ষক সমিতি ও বাংলাদেশ বিশ্ববিদ্যালয় শিক্ষক সমিতি ফেডারেশনের নেতারা। এরপর দেশের ৩৫ বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষকরা কর্মবিরতির ঘোষণা দেয়।

জগন্নাথ বিশ্ববিদ্যালয় সূত্রে জানা যায়, সোমবার (১ জুলাই) থেকে শিক্ষকরা অফিসে এলেও পরীক্ষা কিংবা ক্লাস নিবে না। বাংলাদেশ বিশ্ববিদ্যালয় শিক্ষক সমিতি ফেডারেশনের সিদ্ধান্ত অনুযায়ী পরবর্তী নির্দেশনা না দেয়া পর্যন্ত কার্যক্রম বন্ধ থাকবে।

এছাড়া যশোর বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয়, সিলেট শাহজালাল বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয়সহ অন্য সব বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষকরাও বাংলাদেশ বিশ্ববিদ্যালয় শিক্ষক সমিতি ফেডারেশনের সিদ্ধান্ত অনুযায়ী ক্লাস-পরীক্ষাসহ সকল ধরণের কার্যক্রম বর্জন করছেন।

সরকারি ও স্বায়ত্তশাসিত বিশ্ববিদ্যালয়গুলোর শিক্ষকদের তিনটি দাবি। দাবিগুলো হলো- প্রত্যয় স্কিমের প্রজ্ঞাপন প্রত্যাহার, সুপার গ্রেডে বিশ্ববিদ্যালয় শিক্ষকদের অন্তর্ভুক্তি এবং শিক্ষকদের জন্য স্বতন্ত্র বেতন স্কেল প্রবর্তন। এছাড়া কর্মকর্তা-কর্মচারীদের দাবি শুধু প্রত্যয় স্কিমের প্রজ্ঞাপন বাতিল।

নিউজটি শেয়ার করুন

আপনার মন্তব্য

Your email address will not be published. Required fields are marked *

আপনার ইমেইল এবং অন্যান্য তথ্য সংরক্ষন করুন

ট্যাগস :

অনির্দিষ্টকাল বন্ধ ৩৫টি পাবলিক বিশ্ববিদ্যালয়

সংবাদ প্রকাশের সময় : ১১:৩৮:৪২ পূর্বাহ্ন, সোমবার, ১ জুলাই ২০২৪

বৈষম্যমূলক পে-স্কেল ও পেনশন স্কেলের প্রতিবাদে সর্বাত্মক কর্মবিরতি পালন করছেন ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়সহ দেশের ৩৫টি পাবলিক বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষক-কর্মকর্তা-কর্মচারীরা। ফলে বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষা কার্যক্রম পুরোপুরি বন্ধ হয়ে পড়েছে।

সোমবার (১ জুলাই) সকাল থেকে এই কর্মবিরতি পালন করা হচ্ছে। ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়, জগন্নাথ বিশ্ববিদ্যালয়সহ অন্য বিশ্ববিদ্যালয়গুলোয় শিক্ষকদের কর্মবিরতির কারণে অনির্দিষ্টকালের জন্য ক্লাস-পরীক্ষা বন্ধ থাকছে।

এর আগে রোববার (৩০ জুন) ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ে অবস্থান কর্মসূচিতে শিক্ষকদের কর্মবিরতির ঘোষণা দেন বিশ্ববিদ্যালয় শিক্ষক সমিতি ও বাংলাদেশ বিশ্ববিদ্যালয় শিক্ষক সমিতি ফেডারেশনের নেতারা। এরপর দেশের ৩৫ বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষকরা কর্মবিরতির ঘোষণা দেয়।

জগন্নাথ বিশ্ববিদ্যালয় সূত্রে জানা যায়, সোমবার (১ জুলাই) থেকে শিক্ষকরা অফিসে এলেও পরীক্ষা কিংবা ক্লাস নিবে না। বাংলাদেশ বিশ্ববিদ্যালয় শিক্ষক সমিতি ফেডারেশনের সিদ্ধান্ত অনুযায়ী পরবর্তী নির্দেশনা না দেয়া পর্যন্ত কার্যক্রম বন্ধ থাকবে।

এছাড়া যশোর বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয়, সিলেট শাহজালাল বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয়সহ অন্য সব বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষকরাও বাংলাদেশ বিশ্ববিদ্যালয় শিক্ষক সমিতি ফেডারেশনের সিদ্ধান্ত অনুযায়ী ক্লাস-পরীক্ষাসহ সকল ধরণের কার্যক্রম বর্জন করছেন।

সরকারি ও স্বায়ত্তশাসিত বিশ্ববিদ্যালয়গুলোর শিক্ষকদের তিনটি দাবি। দাবিগুলো হলো- প্রত্যয় স্কিমের প্রজ্ঞাপন প্রত্যাহার, সুপার গ্রেডে বিশ্ববিদ্যালয় শিক্ষকদের অন্তর্ভুক্তি এবং শিক্ষকদের জন্য স্বতন্ত্র বেতন স্কেল প্রবর্তন। এছাড়া কর্মকর্তা-কর্মচারীদের দাবি শুধু প্রত্যয় স্কিমের প্রজ্ঞাপন বাতিল।