https://bangla-times.com/
ঢাকাশুক্রবার , ৭ জুন ২০২৪
  • অন্যান্য

সাব-রেজিস্ট্রারের সাড়ে ১১ কোটি টাকা জব্দ

মো. মশিউর রহমান,টাঙ্গাইল
জুন ৭, ২০২৪ ১১:৩১ অপরাহ্ণ । ১১৫ জন
Link Copied!

অবৈধভাবে সম্পদ অর্জনের দায়ে এক সাব-রেজিস্ট্রার,তার স্ত্রী ও মেয়ের স্থাবর-অস্থাবর সম্পত্তি জব্দের নির্দেশ দিয়েছেন আদালত। ৫ জুন (বুধবার) টাঙ্গাইলের সিনিয়র দায়রা জজ আদালতের বিচারক নাজিমুদ্দৌলা এই নির্দেশ দেন। অভিযুক্ত নুরুল আমিন তালুকদার বর্তমানে গাজীপুরের কালিয়াকৈর উপজেলায় সাব-রেজিস্ট্রার হিসেবে কর্মরত।

আদালতের নির্দেশে সাব-রেজিস্ট্রার নুরুল আমিন তালুকদার তার স্ত্রী নুরুন্নাহার খানম এবং মেয়ে জিনাত তালুকদারের নামে স্থাবর-অস্থাবর সম্পত্তিসহ বিভিন্ন ব্যাংকে রাখা প্রায় সাড়ে ১১ কোটি টাকা জব্দ করেছে দুদক। এর আগে নুরুল আমিন তালুকদারের দুর্নীতি ও অনিয়মের অভিযোগের প্রমাণ পাওয়ার পর তার বিরুদ্ধে ২০২৩ সালের (২৩ জুলাই) টাঙ্গাইল আদালতে মামলা করে দুদক।

জানা যায়, নুরুল আমিন তালুকদারের ৪টি ব্যাংক হিসাবে ১২ লাখ এক হাজার ১১১ টাকা, স্ত্রী নুরুন্নাহারের ১০টি ব্যাংক হিসাবে চার কোটি ৪ লাখ ৫৩ হাজার ৩৬৮ টাকা এবং মেয়ে জিনাত তালুকদারের ৪টি ব্যাংক হিসাবে এক কোটি ২৪ লাখ ৮২ হাজার ১৩৩ টাকাসহ ৫ কোটি ৪১ লাখ ৩৬ হাজার ৬১২ টাকা জব্দ করা হয়। এছাড়াও নুরুল আমিন তালুকদারের স্ত্রী নুরুন্নাহার খানমের ৭৫ শতাংশ সম্পত্তি রয়েছে। যার মূল্য তিন কোটি ৫৭ লাখ ৭০ হাজার ৯৪০ টাকা। মেয়ে জিনাত তালুকদারের নামে ২টি ফ্ল্যাট রয়েছে। যার মূল্য ৭৭ লাখ টাকা। জিনাতের একটি প্রাইভেটকার (টয়োটা) রয়েছে। যার মূল্য ২৯ লাখ টাকা। এসব সম্পদ জব্দের নির্দেশ দেন আদালত। এছাড়াও ভূঞাপুর উপজেলা বাসস্ট্যান্ডের কাছে বহুতল বাণিজ্যিক ভবন নির্মাণ করা হচ্ছে।

এসব বিষয়ে সাব-রেজিস্ট্রার নুরুল আমিন তালুকদার বলেন, দুদকের অনুসন্ধানের কোনো অভিযোগের কপি বা আদালত আমার স্ত্রী ও মেয়ের নামে স্থাবর-অস্থাবর সম্পত্তিসহ ব্যাংক হিসাব জব্দের বিষয়ে জানা নেই।

দুর্নীতি দমন কমিশনের (দুদক) টাঙ্গাইল জেলা কার্যালয়ের সহকারী পরিচালক ও অনুসন্ধানকারী কর্মকর্তা নুর আলম জানান, এসবের বাইরে তার কোনো সম্পদ আছে কিনা তা জানতে চাওয়া হবে। অভিযুক্ত সাব-রেজিস্ট্রারের বিরুদ্ধে মানি লন্ডারিং আইনে মামলার প্রস্তুতি চলছে।