https://bangla-times.com/
ঢাকারবিবার , ১০ মার্চ ২০২৪
  • অন্যান্য

লোকসভা ভোটে ৪২ প্রার্থীর নাম ঘোষণা করলেন মমতা

সমরেশ রায় ও শম্পা দাস , কলকাতা
মার্চ ১০, ২০২৪ ১০:১৬ অপরাহ্ণ । ৩৯ জন
Link Copied!

ব্রিগেড প্যারেড মাঠে রবিবার (১০ই মার্চ) সকাল ১১ টায় মুখ্যমন্ত্রীর মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের নেতৃত্বে এবং অভিষেক ব্যানার্জির উপস্থিতিতে এক বিশাল জনগণ জনসভা অনুষ্ঠিত হয়। কেন্দ্রীয় সরকারের বঞ্চনার বিরুদ্ধে এবং আসন্ন লোকসভা ভোটকে কেন্দ্র করেই এই সভা এবং এই মঞ্চ থেকে আগামী লোকসভা ভোটের ৪২ জন প্রার্থীর নাম ঘোষণা করা হয়। নাম ঘোষণা করেন অভিষেক ব্যানার্জি, ,নাম ঘোষণার পর একটি ramp করেন প্রার্থীদের নিয়ে মাননীয় মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়।

একদিকে রোববার ছুটির দিন, অন্যদিকে এইরকম একটি জনসভা, তুই মিলিয়ে রাস্তা প্রায় বন্ধ হয়ে যাওয়ার উপক্রম, পথ চলতি মানুষেরা রাস্তায় দাঁড়িয়ে ঘন্টার পর ঘন্টা গাড়ি না পাওয়াই। অন্যদিকে জনসভায় বাসে করে কর্মীরা ভিড় জমাচ্ছেন জনসভার উদ্দেশ্যে, পার্টির তরফ থেকে সমস্ত গাড়ি তুলে নেওয়ায়, রাস্তায় বাস নাই বললেই চলে।

ভোর থেকেই প্রার্থীরা আসতে শুরু করেছেন ব্রিগেড মাঠে এবং আস্তে আস্তে জমে উঠেছিল এই ব্রিগেড মাঠ।, তার সাথে সাথে বিভিন্ন জেলা থেকে মন্ত্রী ,সংসদ ও কাউন্সিলর থেকে শুরু করে উচ্চপদস্থ অফিসারেরা।

মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় অভিষেক ব্যানার্জি আসার আগে সমস্ত অন্যান্য মন্ত্রী ও সাংসদেরা মঞ্চে উপস্থিত হয়ে গেছেন। বেলা ১২ টা নাগাদ মঞ্চে উপস্থিত হন অভিষেক ব্যানার্জি ও তার কয়েক মুহূর্তেই উপস্থিত হন মাননীয় মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়।

অভিষেক ব্যানার্জি প্রথম থেকেই মঞ্চে উঠে গর্জে উঠেন কেন্দ্রীয় সরকারের বিরুদ্ধে, তিনি বলেন আমাকে ই ডি দেখিয়ে ধমকে ধুমকে চমকে দমাতে পারবেনা, ক্ষমতা থাকলে প্রমাণ করে দেখাক, তিনি আজ একটি ভিডিও চালিয়ে সবার সামনে তুলে ধরেন, কেন্দ্রীয় সরকার কিভাবে বাংলার মানুষদের অপমান করছে। কিভাবে টাকা আটকে রাখছে, সাধারণ মানুষ কাজ করে কি বলছেন, এর সাথে সাথে শুভেন্দু অধিকারী, যে অপমানজনক কথা বলেছেন তারও একটি ভিডিও তুলে ধরেন। আর এই সকল প্রশ্নের জবাব দেবে বাংলার মানুষ আসন্ন লোকসভা ভোটে, তারা কাকে চায় বাংলার দিদিকে না মোদিকে।

মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় মঞ্চে দাঁড়িয়ে বলেন, আর মানুষ উন্নয়ন দেখছে আমি বাংলার মানুষের জন্য কি করছি, আমি বাংলার মানুষকে যা কথা দিই তাই করে দেখায়, সরকারের মত মিথ্যা প্রতিশ্রুতি দিই না, আজ বাংলার মানুষ যা যা থেকে কেন্দ্রে সরকারের বঞ্চনার কার আমি তা পূরণ করেছি। বাংলার মানুষের নেত্রী তাই আমার যা করনীয় আমি করে দেখিয়েছি, ক্ষমতা থাকলে কেন্দ্রীয় সরকার সামনে এসে বলে দেখাক যে আমি সব করেছি।

আমি লক্ষী ভান্ডার ৫০০ টাকা থেকে করে হাজার টাকা করেছি, আইসিডিএস কর্মীদের টাকা বাড়িয়েছি, এতদিনের নিরীহ গরিব মানুষের টাকা দিয়েছি। আর এটাও বলে রাখি যদি কেন্দ্রীয় সরকার কোনদিন বন্ধ করে দেয়, আমি একটিও কোন কিছু বন্ধ হতে দেব না যুবশ্রী, কন্যাশ্রী, স্বাস্থ্য সাথী, স্টুডেন্ট ক্রেডিট কার্ড থেকে শুরু করে যা যা প্রকল্প আছে আমি চালিয়ে যাব।

তাই আজ বাংলার মানুষ তাদের দিদিকে চাই, বাংলার মানুষ মোদিক চায়না, তাই আগামী দিনে বাংলার মানুষ বুঝিয়ে দেবে কি চায়।

মঞ্চে উপস্থিত ছিলেন-মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় সম্মানীয় অভিষেক ব্যানার্জি, মন্ত্রী অরূপ বিশ্বাস ,সাংসদ মালা রায় , মহানাগরিক ও মন্ত্রী ফিরাদ হাকিম ,মন্ত্রী চন্দ্রিমা ভট্টাচার্য ,মন্ত্রী শশী পাঁজা, বিধায়ক নয়না দাস, সুদীপ বন্দ্যোপাধ্যায়, বিধায়ক দেবাশীষ কুমার, সাংসদ শান্তনু সেন, সাংসদ সৌগত রায়, বিধায়িকা রত্না চ্যাটার্জি, বিধায়ক অতীন ঘোষ, মন্ত্রী শোভন দেব চট্টোপাধ্যায়, জুন মালিয়া, সহ বিভিন্ন জেলার মন্ত্রী,সাংসদ, বিধায়ক, ও‌ পৌরমাতা এবং পৌরপিতারা।