ঢাকা ১১:৩৯ অপরাহ্ন, শনিবার, ১৩ জুলাই ২০২৪, ২৯ আষাঢ় ১৪৩১ বঙ্গাব্দ

মিয়ানমারে গোলাগুলি, আতঙ্ক টেকনাফে

কক্সবাজার প্রতিনিধি
  • আপডেট সময় : ১২:০৮:৫৭ পূর্বাহ্ন, মঙ্গলবার, ৯ জুলাই ২০২৪ ২১ বার পড়া হয়েছে
বাংলা টাইমস অনলাইনের সর্বশেষ নিউজ পেতে অনুসরণ করুন গুগল নিউজ (Google News) ফিডটি

মিয়ানমারের রাখাইনে সংঘাতের জেরে কক্সবাজারের টেকনাফ সীমান্তবর্তী নাফন ওপারে মংডু শহরে তীব্র লড়াই চলছে। রোববার (৭ জুলাই) রাতভর বিস্ফোরণের বিকট শব্দ সীমান্তের এপারে ভেসে আসে। থেমে থেমে মর্টার শেল ও গোলাগুলির শব্দে ঘুম নেই টেকনাফের বাসিন্দাদের। ফলে স্থানীয়দের মধ্যে দেখা দিয়েছে চরম আতঙ্ক। সোমবার (৮ জুলাই) বিকাল পর্যন্ত থেমে থেমে বিস্ফোরণের শব্দ শোনা যায়।

টেকনাফ সদর ইউনিয়নের মৌলভীপাড়ার বাসিন্দা নুরুল আমিন বলেন, রোববার রাতভর মিয়ানমারের গোলাগুলির বিকট শব্দ ভেসে আসে। এখনো থেমে থেমে বিস্ফোরণের শব্দ শোনা যাচ্ছে। এই সংঘাত কবে শেষ হবে জানি না।

তিনি আরও বলেন, রোববার (৭ জুলাই) রাতে নাফ নদের ওপারে মিয়ানমারের বিস্ফোরণের শব্দে বাড়িঘরে কম্পন সৃষ্টি হয়। মনে হয়েছে বাড়ির ওপরে পড়ছে এসব গুলি।

এ বিষয়ে টেকনাফ ইউএনও আদনান চৌধুরী বলেন, সীমান্তে বিজিবি ও কোস্টগার্ড সতর্ক অবস্থানে রয়েছে। এছাড়া কোনো রোহিঙ্গা যেনো অনুপ্রবেশ করতে না পারে সে বিষয়েও সতর্ক অবস্থানে সীমান্তরক্ষী বাহিনীগুলো।

নিউজটি শেয়ার করুন

আপনার মন্তব্য

Your email address will not be published. Required fields are marked *

আপনার ইমেইল এবং অন্যান্য তথ্য সংরক্ষন করুন

ট্যাগস :

মিয়ানমারে গোলাগুলি, আতঙ্ক টেকনাফে

আপডেট সময় : ১২:০৮:৫৭ পূর্বাহ্ন, মঙ্গলবার, ৯ জুলাই ২০২৪

মিয়ানমারের রাখাইনে সংঘাতের জেরে কক্সবাজারের টেকনাফ সীমান্তবর্তী নাফন ওপারে মংডু শহরে তীব্র লড়াই চলছে। রোববার (৭ জুলাই) রাতভর বিস্ফোরণের বিকট শব্দ সীমান্তের এপারে ভেসে আসে। থেমে থেমে মর্টার শেল ও গোলাগুলির শব্দে ঘুম নেই টেকনাফের বাসিন্দাদের। ফলে স্থানীয়দের মধ্যে দেখা দিয়েছে চরম আতঙ্ক। সোমবার (৮ জুলাই) বিকাল পর্যন্ত থেমে থেমে বিস্ফোরণের শব্দ শোনা যায়।

টেকনাফ সদর ইউনিয়নের মৌলভীপাড়ার বাসিন্দা নুরুল আমিন বলেন, রোববার রাতভর মিয়ানমারের গোলাগুলির বিকট শব্দ ভেসে আসে। এখনো থেমে থেমে বিস্ফোরণের শব্দ শোনা যাচ্ছে। এই সংঘাত কবে শেষ হবে জানি না।

তিনি আরও বলেন, রোববার (৭ জুলাই) রাতে নাফ নদের ওপারে মিয়ানমারের বিস্ফোরণের শব্দে বাড়িঘরে কম্পন সৃষ্টি হয়। মনে হয়েছে বাড়ির ওপরে পড়ছে এসব গুলি।

এ বিষয়ে টেকনাফ ইউএনও আদনান চৌধুরী বলেন, সীমান্তে বিজিবি ও কোস্টগার্ড সতর্ক অবস্থানে রয়েছে। এছাড়া কোনো রোহিঙ্গা যেনো অনুপ্রবেশ করতে না পারে সে বিষয়েও সতর্ক অবস্থানে সীমান্তরক্ষী বাহিনীগুলো।