ঢাকা ০৮:১৪ অপরাহ্ন, শুক্রবার, ১৯ জুলাই ২০২৪, ৪ শ্রাবণ ১৪৩১ বঙ্গাব্দ

বেনজিরের বাড়িতে অভিযান, মিললো চায়ের কাপ-খাট-টিভি

মাছুম মিয়া, রূপগঞ্জ (নারায়ণগঞ্জ)
  • সংবাদ প্রকাশের সময় : ০৯:২২:০৭ অপরাহ্ন, বুধবার, ১০ জুলাই ২০২৪ ২৩ বার পড়া হয়েছে
বাংলা টাইমস অনলাইনের সর্বশেষ নিউজ পেতে অনুসরণ করুন গুগল নিউজ (Google News) ফিডটি

সাবেক আইজিপি বেনজির আহমেদের রূপগঞ্জের ডুপ্লেক্স বাড়িটিতে দ্বিতীয় দফায় তলল্লাশি চালিয়ে পুরোপুরি দখলে নিলো নারায়ণগঞ্জ জেলা প্রশাসন ও দুর্নীতি দমন কমিশন (দুদক)।

বুধবার (১০ জুলাই) দুপুর থেকে বিকেল পর্যন্ত বাড়ির ভেতরে তল্লাশি চালিয়ে বাড়িটি পুরোপুরি দখলে নেয়া হয়। তল্লাশির তালিকায় রয়েছে চায়ের কাপ,পেয়ালা, টিভি, ওয়ালটন কোম্পানির ফ্রিজ, ডাইনিং টেবিলসহ তিনটি খাট।

এর আগে, দুদুকের মামলায় হাইকোর্টের আদেশে (৬ জুলাই) শনিবার দুপুরে বাড়িটি জব্দ করা হয়। তবে দরজায় লাগানো ডিজিটাল লক থাকায় বেনজিরের প্রযুক্তির কাছে ব্যর্থ হয়ে ফিরে যান। তারা পরে বুধবার (১০ জুলাই) দুপুর ১২টা থেকে বিকাল ৫টা পর্যন্ত ৫ ঘন্টার তল্লাশিতে পাওয়া শুধুমাত্র কয়েকটি চায়ের কাপ,পেয়ালা, টিভি, ওয়ালটন কোম্পানির ফ্রিজ, ডাইনিং টেবিলসহ তিটি খাট। এর আগে গণমাধ্যম কর্মীদের প্রবেশে বাঁধা দিয়ে নারায়ণগঞ্জ জেলা অতিরিক্ত জেলা প্রশাসক (রাজস্ব) শফিকুল আলম, নারায়ণগঞ্জ জেলা দুদকের উপ পরিচালক মাইনুল হাসান রওশানী, নির্বাহী ম্যাজিস্টেট ও সহকারী কমিশনার (ভূমি) সিমন সরকারসহ সংশ্লিষ্টরা তল্লাশিতে অংশ নেন।

এরপর বিকাল ৫টায় প্রেসব্রিফিং করে দুদক কর্মকর্তা মাইনুল হাসান রওশানী বলেন, আদালতের নির্দেশ পালন করেছি মাত্র। ভেতরে থাকা মালামালের তালিকা করতে সময় লেগেছে। যা আদালতের কাছে আমরা জমা দেবো।

উলে­খ্য, সাবেক আইজিপি বেনজীর আহমেদ দেশের বিভিন্ন স্থানে অবৈধ স্থাপনা গড়েছেন। এ থেকে বাদ যায়নি নারায়ণগঞ্জের রূপগঞ্জের দক্ষিণবাগ চোরাবো মোড়ের ডুপ্লেক্স বাড়িও। আনন্দ হাউজিং নামীয় পুলিশ কর্মকর্তাদের গড়া আবাসন কোম্পানিতে ২৪ কাঠা জমিতে তার মেয়ে মির্জা ফারহীন রিশতা বিনতে বেনজিরের নামে গড়ে তুলেছেন আলিসান বাড়ি। যেখানে সাধারণের প্রবেশ ছিলো নিষেধাজ্ঞা।

জানা গেছে, আট বছর আগে এলাকার প্রয়াত প্রেমানন্দ সরকারের সন্তানদের কাছ থেকে এক কোটি ৮৩ লাখ টাকায় ৫৫ শতাংশ জায়গা কিনেন তিনি। এরপর জমিতে ওই বাড়ি করেন তিনি। তার ওই বাড়ি ঘিরে স্থানীয় মানুষদের মধ্যে তৈরি হয়েছে নানা গল্প, রহস্য। একটি জাতীয় দৈনিকে বেনজিরের আলাদিনের চেরাগ নামে সংবাদ প্রকাশের পর বাড়ির তত্ত্বাবধায়ক আবদুল্লাহ ভেতরে থাকা মালামাল সরিয়ে ফেলেন।

নিউজটি শেয়ার করুন

আপনার মন্তব্য

Your email address will not be published. Required fields are marked *

আপনার ইমেইল এবং অন্যান্য তথ্য সংরক্ষন করুন

ট্যাগস :

বেনজিরের বাড়িতে অভিযান, মিললো চায়ের কাপ-খাট-টিভি

সংবাদ প্রকাশের সময় : ০৯:২২:০৭ অপরাহ্ন, বুধবার, ১০ জুলাই ২০২৪

সাবেক আইজিপি বেনজির আহমেদের রূপগঞ্জের ডুপ্লেক্স বাড়িটিতে দ্বিতীয় দফায় তলল্লাশি চালিয়ে পুরোপুরি দখলে নিলো নারায়ণগঞ্জ জেলা প্রশাসন ও দুর্নীতি দমন কমিশন (দুদক)।

বুধবার (১০ জুলাই) দুপুর থেকে বিকেল পর্যন্ত বাড়ির ভেতরে তল্লাশি চালিয়ে বাড়িটি পুরোপুরি দখলে নেয়া হয়। তল্লাশির তালিকায় রয়েছে চায়ের কাপ,পেয়ালা, টিভি, ওয়ালটন কোম্পানির ফ্রিজ, ডাইনিং টেবিলসহ তিনটি খাট।

এর আগে, দুদুকের মামলায় হাইকোর্টের আদেশে (৬ জুলাই) শনিবার দুপুরে বাড়িটি জব্দ করা হয়। তবে দরজায় লাগানো ডিজিটাল লক থাকায় বেনজিরের প্রযুক্তির কাছে ব্যর্থ হয়ে ফিরে যান। তারা পরে বুধবার (১০ জুলাই) দুপুর ১২টা থেকে বিকাল ৫টা পর্যন্ত ৫ ঘন্টার তল্লাশিতে পাওয়া শুধুমাত্র কয়েকটি চায়ের কাপ,পেয়ালা, টিভি, ওয়ালটন কোম্পানির ফ্রিজ, ডাইনিং টেবিলসহ তিটি খাট। এর আগে গণমাধ্যম কর্মীদের প্রবেশে বাঁধা দিয়ে নারায়ণগঞ্জ জেলা অতিরিক্ত জেলা প্রশাসক (রাজস্ব) শফিকুল আলম, নারায়ণগঞ্জ জেলা দুদকের উপ পরিচালক মাইনুল হাসান রওশানী, নির্বাহী ম্যাজিস্টেট ও সহকারী কমিশনার (ভূমি) সিমন সরকারসহ সংশ্লিষ্টরা তল্লাশিতে অংশ নেন।

এরপর বিকাল ৫টায় প্রেসব্রিফিং করে দুদক কর্মকর্তা মাইনুল হাসান রওশানী বলেন, আদালতের নির্দেশ পালন করেছি মাত্র। ভেতরে থাকা মালামালের তালিকা করতে সময় লেগেছে। যা আদালতের কাছে আমরা জমা দেবো।

উলে­খ্য, সাবেক আইজিপি বেনজীর আহমেদ দেশের বিভিন্ন স্থানে অবৈধ স্থাপনা গড়েছেন। এ থেকে বাদ যায়নি নারায়ণগঞ্জের রূপগঞ্জের দক্ষিণবাগ চোরাবো মোড়ের ডুপ্লেক্স বাড়িও। আনন্দ হাউজিং নামীয় পুলিশ কর্মকর্তাদের গড়া আবাসন কোম্পানিতে ২৪ কাঠা জমিতে তার মেয়ে মির্জা ফারহীন রিশতা বিনতে বেনজিরের নামে গড়ে তুলেছেন আলিসান বাড়ি। যেখানে সাধারণের প্রবেশ ছিলো নিষেধাজ্ঞা।

জানা গেছে, আট বছর আগে এলাকার প্রয়াত প্রেমানন্দ সরকারের সন্তানদের কাছ থেকে এক কোটি ৮৩ লাখ টাকায় ৫৫ শতাংশ জায়গা কিনেন তিনি। এরপর জমিতে ওই বাড়ি করেন তিনি। তার ওই বাড়ি ঘিরে স্থানীয় মানুষদের মধ্যে তৈরি হয়েছে নানা গল্প, রহস্য। একটি জাতীয় দৈনিকে বেনজিরের আলাদিনের চেরাগ নামে সংবাদ প্রকাশের পর বাড়ির তত্ত্বাবধায়ক আবদুল্লাহ ভেতরে থাকা মালামাল সরিয়ে ফেলেন।