ঢাকা ০৩:২৩ পূর্বাহ্ন, শনিবার, ২০ জুলাই ২০২৪, ৪ শ্রাবণ ১৪৩১ বঙ্গাব্দ

চামড়া পাচার রোধে সীমান্তে বাড়তি সতর্কতা

যশোর প্রতিনিধি
  • সংবাদ প্রকাশের সময় : ০১:৪৩:৩১ অপরাহ্ন, মঙ্গলবার, ১৮ জুন ২০২৪ ৪৪ বার পড়া হয়েছে
বাংলা টাইমস অনলাইনের সর্বশেষ নিউজ পেতে অনুসরণ করুন গুগল নিউজ (Google News) ফিডটি

যশোরের বেনাপোলসহ শার্শা সীমান্ত দিয়ে ভারতে চামড়া পাচার রোধে বিজিবি সর্বোচ্চ সতর্কতা জারি করেছে। বেনাপোল সীমান্তের কয়েকটি এলাকা ঘুরে বিজিবির বাড়তি নিরাপত্তা ব্যবস্থা চোখে পড়েছে।

সোমবার (১৬ জুন) সকালে সতর্কতার বিষয়টি নিশ্চিত করেন যশোর-৪৯ বিজিবি ব্যাটালিয়নের অধিনায়ক লেফটেন্যান্ট কর্নেল আহমেদ জামিল।

জানা গেছে, দেশে চামড়ার বাজার মূল্য তুলনামূলক কম। অনেক সময় কেনা দামেও ব্যবসায়ীরা চামড়া বিক্রি করতে পারেন না। সরকারি দামে ক্রয়-বিক্রয়ে সাড়া থাকে না। ফলে স্থানীয়রা আশঙ্কা করছেন এ সময়টায় চামড়ার দাম ভারতে একটু বেশি থাকবে। সে জন্য বেশি মুনাফার আশায় চামড়া পাচার হওয়ার আশঙ্কা রয়েছে।

যশোরের শার্শা উপজেলার বিভিন্ন এলাকা ঘুরে দেখা যায়, পাঁচ মণ ওজনের গরুর চামড়া ৫৫০-৬০০ টাকা এবং ১০ মণ গরুর চামড়া ৮০০ টাকায় বিক্রি হচ্ছে। অপরদিকে, ভারতের পশ্চিমবঙ্গে পাঁচ মণ ওজনের কোরবানি গরুর চামড়া ৮০০ থেকে এক হাজার রুপি ও ১০ মণ ওজনের গরুর চামড়া প্রতি পিস ১২শ’ পর্যন্ত বিক্রি হচ্ছে।

সূত্র জানায়, যশোরের যেসব সীমান্ত দিয়ে চামড়া পাচারের সম্ভবনা রয়েছে সেসব এলাকায় বেশি নজরদারিতে রাখা হয়েছে। এরমধ্যে বেনাপোলের গাতীপাড়া, বড়আঁচড়া, ধান্যখোলা, সাদিপুর, রঘুনাথপুর, ঘিবা, পুটখালী ও শার্শার গোগা, অগ্রভুলোট, রুদ্রপুর, কাশিপুর,কায়বা, শিকারপুর, শালকোনা এবং শাহজাতপুর সীমান্ত এলাকায় নিরাপত্তা ব্যবস্থা বাড়ানো হয়েছে।

বেনাপোল বাগে জান্নত কওমী মসজিদের খাদেম আব্দুল ওহাব বলেন, এলাকার মানুষ তাদের কোরবানির পশুর চামড়া দান করেছেন। কিন্তু চামড়ার দাম এবার খুবই কম। গরুর চামড়া ছোট বড় মিলে গড়ে সাড়ে ৬০০ টাকা দাম পেয়েছেন। ছাগলের চামড়ার দাম হয়েছে প্রতি পিচ ১০০ টাকা।

যশোর-৪৯ বিজিবি ব্যাটালিয়নের অধিনায়ক লেফটেন্যান্ট কর্নেল আহমেদ জামিল বলেছেন, সীমান্ত দিয়ে ভারতে চামড়া পাচার রোধে বিজিবিকে সর্বোচ্চ সতর্কাবস্থায় রাখা হয়েছে। সীমান্তে বিজিবির কড়া নজরদারি রাখা হয়েছে।

নিউজটি শেয়ার করুন

আপনার মন্তব্য

Your email address will not be published. Required fields are marked *

আপনার ইমেইল এবং অন্যান্য তথ্য সংরক্ষন করুন

ট্যাগস :

চামড়া পাচার রোধে সীমান্তে বাড়তি সতর্কতা

সংবাদ প্রকাশের সময় : ০১:৪৩:৩১ অপরাহ্ন, মঙ্গলবার, ১৮ জুন ২০২৪

যশোরের বেনাপোলসহ শার্শা সীমান্ত দিয়ে ভারতে চামড়া পাচার রোধে বিজিবি সর্বোচ্চ সতর্কতা জারি করেছে। বেনাপোল সীমান্তের কয়েকটি এলাকা ঘুরে বিজিবির বাড়তি নিরাপত্তা ব্যবস্থা চোখে পড়েছে।

সোমবার (১৬ জুন) সকালে সতর্কতার বিষয়টি নিশ্চিত করেন যশোর-৪৯ বিজিবি ব্যাটালিয়নের অধিনায়ক লেফটেন্যান্ট কর্নেল আহমেদ জামিল।

জানা গেছে, দেশে চামড়ার বাজার মূল্য তুলনামূলক কম। অনেক সময় কেনা দামেও ব্যবসায়ীরা চামড়া বিক্রি করতে পারেন না। সরকারি দামে ক্রয়-বিক্রয়ে সাড়া থাকে না। ফলে স্থানীয়রা আশঙ্কা করছেন এ সময়টায় চামড়ার দাম ভারতে একটু বেশি থাকবে। সে জন্য বেশি মুনাফার আশায় চামড়া পাচার হওয়ার আশঙ্কা রয়েছে।

যশোরের শার্শা উপজেলার বিভিন্ন এলাকা ঘুরে দেখা যায়, পাঁচ মণ ওজনের গরুর চামড়া ৫৫০-৬০০ টাকা এবং ১০ মণ গরুর চামড়া ৮০০ টাকায় বিক্রি হচ্ছে। অপরদিকে, ভারতের পশ্চিমবঙ্গে পাঁচ মণ ওজনের কোরবানি গরুর চামড়া ৮০০ থেকে এক হাজার রুপি ও ১০ মণ ওজনের গরুর চামড়া প্রতি পিস ১২শ’ পর্যন্ত বিক্রি হচ্ছে।

সূত্র জানায়, যশোরের যেসব সীমান্ত দিয়ে চামড়া পাচারের সম্ভবনা রয়েছে সেসব এলাকায় বেশি নজরদারিতে রাখা হয়েছে। এরমধ্যে বেনাপোলের গাতীপাড়া, বড়আঁচড়া, ধান্যখোলা, সাদিপুর, রঘুনাথপুর, ঘিবা, পুটখালী ও শার্শার গোগা, অগ্রভুলোট, রুদ্রপুর, কাশিপুর,কায়বা, শিকারপুর, শালকোনা এবং শাহজাতপুর সীমান্ত এলাকায় নিরাপত্তা ব্যবস্থা বাড়ানো হয়েছে।

বেনাপোল বাগে জান্নত কওমী মসজিদের খাদেম আব্দুল ওহাব বলেন, এলাকার মানুষ তাদের কোরবানির পশুর চামড়া দান করেছেন। কিন্তু চামড়ার দাম এবার খুবই কম। গরুর চামড়া ছোট বড় মিলে গড়ে সাড়ে ৬০০ টাকা দাম পেয়েছেন। ছাগলের চামড়ার দাম হয়েছে প্রতি পিচ ১০০ টাকা।

যশোর-৪৯ বিজিবি ব্যাটালিয়নের অধিনায়ক লেফটেন্যান্ট কর্নেল আহমেদ জামিল বলেছেন, সীমান্ত দিয়ে ভারতে চামড়া পাচার রোধে বিজিবিকে সর্বোচ্চ সতর্কাবস্থায় রাখা হয়েছে। সীমান্তে বিজিবির কড়া নজরদারি রাখা হয়েছে।