https://bangla-times.com/
ঢাকারবিবার , ১২ মে ২০২৪
  • অন্যান্য

এসএসসির ফলাফলে দেশসেরা যশোর বোর্ড

যশোর প্রতিনিধি
মে ১২, ২০২৪ ৫:২৭ অপরাহ্ণ । ১৮ জন
Link Copied!

এসএসসি পরীক্ষায় পাসের হারে দেশসেরা হয়েছে যশোর বোর্ড। এ বছর ফলাফলে যশোর বোর্ডের পাসের হার ৯২ দশমিক ৩৩। যা দেশের সব শিক্ষাবোর্ডের মধ্যে সর্বোচ্চ।

এর আগে ২০২২ সালেও ৯৫ দশমিক ১৭ শতাংশ পাসের হার নিয়ে দেশসেরা হয়েছিল এই বোর্ড। তবে গতবছর পাসের হার ৯ শতাংশ করে ৮৬ দশমিক ১৭ ভাগে নেমে যাওয়ায় শীর্ষস্থান হাতছাড়া হয়েছিলো। তবে জিপিএ-৫ প্রাপ্তি গতবছরের তুলনায় সামান্য বেড়েছে। এবছর জিপিএ-৫ পেয়েছে ২০ হাজার ৭৬১ জন; গতবছর এই সংখ্যা ছিল ২০ হাজার ৬১৭।

রোববার (১২ মে ) প্রকাশিত ফলাফলে যশোর বোর্ডের এ চিত্র উঠে এসেছে। বোর্ড কর্তৃপক্ষ বলছে, শিক্ষক ও শিক্ষাপ্রতিষ্ঠানের যথাযথ নজরদাবি এবং অভিভাবকদের সহযোগিতায় শিক্ষার্থীরা যথাযথ প্রস্তুতি নিতে পারায় এই ফলাফল অর্জন সম্ভব হয়েছে।

যশোর মাধ্যমিক ও উচ্চ মাধ্যমিক শিক্ষাবোর্ডের পরীক্ষা নিয়ন্ত্রক ড. বিশ্বাস শাহিন আহম্মদ জানান, চলতি বছর যশোর বোর্ডে মোট এক লাখ ৬০ হাজার ৯২৬ জন শিক্ষার্থী এসএসসি পরীক্ষায় অংশগ্রহণ করে। এদের মধ্যে উত্তীর্ণ হয়েছে ১ লাখ ৪৮ হাজার ৫৭৭ জন। পাসের হার ৯২ দশমিক ৩৩ ভাগ। পাসের হারের এই ফলাফলে যশোর বোর্ড এবার দেশসেরা অবস্থান ফিরে পেয়েছে। এর আগে ২০২২ সালেও দেশসেরা হয়েছিল যশোর বোর্ড। এছাড়া এবছর জিপিএ-৫ পেয়েছে ২০ হাজার ৭৬১ জন। এদের মধ্যে ছাত্রী ১১ হাজার ৪৩১ ও ছাত্র ৯ হাজার ৩৩০ জন।

তথ্য অনুযায়ী, ২০২৩ সালে যশোর বোর্ডে এক লাখ ৫৫ হাজার ৭৫৯ শিক্ষার্থী এসএসসি পরীক্ষায় অংশগ্রহণ করেছিল। এরমধ্যে উত্তীর্ণ হয়েছিলো এক লাখ ৩৪ হাজার ২১৩ জন। পাসের হার ছিলো ৮৬ দশমিক ১৭ ভাগ। জিপিএ-৫ পেয়েছিল ২০ হাজার ৬১৭ জন। এদের মধ্যে ছাত্রী ১১ হাজার ৩৭০ ও ছাত্র ৯ হাজার ২৪৭ জন।

২০২২ সালে এই বোর্ডে এক লাখ ৬৯ হাজার ৫০১ শিক্ষার্থী এসএসসি পরীক্ষায় অংশগ্রহণ করেছিলো। এরমধ্যে উত্তীর্ণ হয়েছিলো এক লাখ ৬১ হাজার ৩১৪ জন। পাসের হার ছিলো ৯৫ দশমিক ১৭ ভাগ। জিপিএ-৫ পেয়েছিলো ৩০ হাজার ৮৯২ জন। এই ফলাফলে দেশসেরা হয়েছিলো যশোর। এবারও দেশসেরা হলেও ২০২২ সালের পাসের হারকে অতিক্রম করতে পারেনি।

এর আগে ২০২১ সালের সংক্ষিপ্ত সিলেবাস ও পরীক্ষায় যশোর বোর্ডে এক লাখ ৭৮ হাজার ৭৯৫ শিক্ষার্থী এসএসসি পরীক্ষায় অংশগ্রহণ করেছিলেঅ। এরমধ্যে উত্তীর্ণ হয় এক লাখ ৬৬ হাজার ৪৩৯ জন। পাসের হার ছিল ৯৩ দশমিক ০৯ ভাগ। জিপিএ-৫ পেয়েছিল ১৬ হাজার ৪৬১ জন।

যশোর মাধ্যমিক ও উচ্চ মাধ্যমিক শিক্ষাবোর্ড’র পরীক্ষা নিয়ন্ত্রক ড. বিশ্বাস শাহিন আহম্মদ জানান, শিক্ষক ও শিক্ষাপ্রতিষ্ঠানের যথাযথ নজরদাবি এবং অভিভাবকদের সহযোগিতায় শিক্ষার্থীরা যথাযথ প্রস্তুতি নিতে পারায় এই ফলাফল অর্জন সম্ভব হয়েছে। বিশেষ করে যশোরে বোর্ডে ষষ্ঠ থেকে দশম শ্রেণি পর্যন্ত প্রশ্নব্যাংকের মাধ্যমে প্রশ্ন হওয়ায় শিক্ষার্থীরা সেভাবেই গড়ে উঠেছে। এছাড়া যশোর বোর্ডের গৃহীত বিভিন্ন পদক্ষেপের কারণে শিক্ষার্থীদের মূল বইয়ের প্রতি নির্ভরতা বেড়েছে। এজন্য তারা ভাল ফলাফল অর্জন করেছে।