https://bangla-times.com/
ঢাকারবিবার , ১০ মার্চ ২০২৪

‘উন্নয়নের জন্য ঐক্যের বিকল্প নেই’

লিয়াকত হোসাইন লায়ন
মার্চ ১০, ২০২৪ ১০:১০ অপরাহ্ণ । ২০৩ জন
Link Copied!

ধর্মমন্ত্রী মোঃ ফরিদুল হক খান বলেছেন, বৃহত্তর ময়মনসিংহের উন্নয়নের জন্য চাই সম্মিলিত প্রয়াস। উন্নয়নের জন্য চাই ঐক্য। উন্নয়নের জন্য ঐক্যের বিকল্প নেই।

রবিবার (১০মার্চ) বিকেলে ঢাকায় জাতীয় যাদুঘরে বঙ্গমাতা শেখ ফজিলাতুন্নেছা মুজিব মিলনায়তনে বৃহত্তর ময়মনসিংহ অঞ্চলের উন্নয়ন ভাবনা এবং মন্ত্রী, প্রতিমন্ত্রী ও সংসদ সদস্যদের সংবর্ধনা অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথির বক্তব্যে ধর্মমন্ত্রী এসব কথা বলেন।

এ সসময় ধর্মমন্ত্রী বলেন, মানব সভ্যতার ইতিহাসে উন্নয়ন আকাঙ্ক্ষা একটি চিরন্তন ঘটনা। সভ্যতার শুরু থেকেই প্রতিনিয়তই মানুষ নিজেকে অতিক্রম করার নিরন্তর চেষ্টা চালিয়ে যাচ্ছে। ভবিষ্যতেও এটি চলবে।আমাদের মূল উন্নয়ন দর্শনটি দিয়ে গেছেন স্বাধীন বাংলাদেশের স্বপ্নদ্রষ্টা ও মহান রূপকার জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান। বঙ্গবন্ধুর আজন্ম লালিত স্বপ্ন ছিলো সোনার বাংলা গড়ে তোলা। এটি এমন এক উন্নয়ন দর্শন যেটি সর্বদাই প্রাসঙ্গিক থাকবে। প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার নেতৃত্বে আমরা সে লক্ষ্যেই কাজ করে যাচ্ছি।

তিনি আরও বলেন, সময়ের সাথে সাথে উন্নয়ন পরিকল্পনায় নতুন নতুন দৃষ্টিভঙ্গি বা দর্শন যুক্ত হয়েছে। বর্তমানে টেকসই উন্নয়নের সাথে নতুন যে দর্শন যুক্ত হয়েছে সেটি হল অন্তর্ভুক্তিমূলক উন্নয়ন। এসডিজি’র একটি মূলনীতি হলো কাউকে পিছিয়ে রাখা যাবে না। উন্নয়ন হতে হবে সুষম, কোনরূপ বৈষম্য রাখা যাবে না।

দেশের উন্নয়নের জন্য সরকার একটি গুরুত্বপূর্ণ ফ্যাক্টর। দেশপ্রেমী, প্রগতিশীল, উন্নয়নকামী ও ইতিবাচক নেতৃত্ব ছাড়া দেশের উন্নয়ন সম্ভব নয়। যে নেতৃত্ব দেশপ্রেম, প্রগতি ও উন্নয়নের কথা বলে সেই নেতৃত্বকে এগিয়ে নিতে হবে, সাধ্যমতো পৃষ্ঠপোষকতা করতে হবে। প্রধানমন্ত্রী দেশের উন্নয়নে যে কর্মসূচি হাতে নিয়েছেন সেগুলোকে এগিয়ে নিতে হবে। রূপকল্প ২০৪১ ও ডেল্টা প্লান ২১০০ বাস্তবায়িত হলেই বাংলাদেশের প্রতিটি জনপদের চেহারা পাল্টে যাবে।

বৃহত্তর ময়মনসিংহ সমন্বয় পরিষদের চেয়ারম্যান ও সরকারি প্রতিষ্ঠান সম্পর্কিত সংসদীয় স্থায়ী কমিটির সভাপতি মোঃ আবুল কালাম আজাদের সভাপতিত্বে অনুষ্ঠানে বাংলাদেশ জাতীয় সংসদের উপনেতা বেগম মতিয়া চৌধুরী, বাণিজ্য প্রতিমন্ত্রী আহসানুল ইসলাম টিটু, টাঙ্গাইল-২ আসনের সংসদ সদস্য তানভীর হাসান, জামালপুর- ১ আসনের সংসদ সদস্য নূর মোহাম্মদ ও শেরপুর-৩ আসনের সংসদ সদস্য এমডি শহিদুল ইসলাম উপস্থিত ছিলেন। অনুষ্ঠানের মূল প্রবন্ধ উপস্থাপন করেন সাবেক সিনিয়র সচিব মোঃ আব্দুস সামাদ।