ঢাকা ০৫:৪৮ অপরাহ্ন, মঙ্গলবার, ১৬ জুলাই ২০২৪, ১ শ্রাবণ ১৪৩১ বঙ্গাব্দ

আশ্রয়ণ প্রকল্পের ঘর পেতেও টাকা!

মাহবুব বিশ্বাস, বরগুনা
  • সংবাদ প্রকাশের সময় : ১০:৩৫:৫৭ অপরাহ্ন, সোমবার, ৮ জুলাই ২০২৪ ১৬ বার পড়া হয়েছে
বাংলা টাইমস অনলাইনের সর্বশেষ নিউজ পেতে অনুসরণ করুন গুগল নিউজ (Google News) ফিডটি

আশ্রায়ণ প্রকল্পের ঘর পাইয়ে দেয়ার কথা বলে ইউপি সদস্য ইব্রাহিম খান ও আওয়ামীলীগ সাবেক সভাপতি আইয়ুব আলী মোল্লা অসহায় দুই পরিবারের কাছ থেকে ১১ হজার টাকা করে নিয়েছেন বলে অভিযোগ পাওয়া গেছে। চরকগাছিয়া গ্রামের আলমগীর গাজী ও রুবেল মোল্লা এই অভিযোগ করেন।

জানা গেছে, তালতলী উপজেলার পঁচাকোড়ালিয়া ইউনিয়নের চরকগাছিয়া গ্রামে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা আশ্রয়ণ প্রকল্পের আওতায় ১৮ টি পরিবারের নামে ঘর বরাদ্দ দেয়। অভিযোগ রয়েছে, পচাঁকোড়ালিয়া ইউনিয়ন পরিষদ সদস্য এবং উপজেলা বিএনপি সদস্য ইব্রাহিম খাঁন ও আড়পাঙ্গাশিয়া ইউনিয়ন ওয়ার্ড আওয়ামী লীগ সাবেক সভাপতি আইয়ুব আলী মোল্লা আবাসনের ঘর পাইয়ে দেয়ার কথা বলে চরকগছিয়া গ্রামের রশিদ গাজীর ছেলে আলমগীর গাজী ও মানিক মোল্লার ছেলে রুবেল মোল্লার কাছে ২৫ টাকা দাবী করেন। তাদের দাবীকৃত টাকা থেকে ইউপি সদস্যকে তারা ২২ হাজার টাকা দিয়েছেন। অসহায় দুই পরিবারের কাছ থেকে টাকা নেয়ায় ইউপি সদস্য ও আওয়ামী লীগ নেতার শাস্তি দাবী করেন তারা।

রুবেল মোল্লার মা রাজিয়া বেগম বলেন, ‘মেম্বর মোরে ঘর পাইয়ে দেয়ার কতা কইয়্যা ২৫ টাহা ঘুষ চাইছে। মুই ১১ আজার টাহা ঘুষ দিছি।’

আলমগীর গাজী বলেন, আড়পাঙ্গাশিয়া ওয়ার্ড আওয়ামী লীগ সাবেক সভাপতি আইয়্বু আলী মোল্লা ঘর পাইয়ে দেয়ার কথা বলে আমার কাছে ২৫ হাজার টাকা দাবী করে। আমি তার নির্দেশে ইউপি সদস্য ইব্রাহিম খানের কাছে ১১ হাজার টাকা দিয়েছি।

আড়পাঙ্গাশিয়া ওয়ার্ড আওয়ামীলীগ সাবেক সভাপতি আইয়ুব আলী মোল্লা টাকা নেয়ার কথা অস্বীকার করে বলেন, দেড় মাস আগে রুবেল ও আলমগীর গাজী আমার কাছে কাগজপত্র দিয়েছে।

পঁচাকোড়ালিয়া ইউপি সদস্য উপজেলা বিএনপি সদস্য ইব্রাহিম খাঁন টাকা নেয়ার কথা অস্বীকার করে বলেন, আমি কারো কাছ থেকে টাকা পয়সা নেইনি।

এসব বিষয়ে তালতলী ইউএনও সিফাত আনোয়ার তুমপা বলেন, এ বিষয়ে এষনো কোনো অভিযোগ পাইনি। অভিযোগ পেলে আইনগত ব্যবস্থা নেয়া হবে।

তিনি আরও বলেন, প্রধানমন্ত্রীর দেয়া আশ্রয়ণ প্রকল্প থেকে কেউ ঘর দেয়ার কথা বলে টাকা নিলে তাকে ছাড় দেয়া হবে না।

নিউজটি শেয়ার করুন

আপনার মন্তব্য

Your email address will not be published. Required fields are marked *

আপনার ইমেইল এবং অন্যান্য তথ্য সংরক্ষন করুন

ট্যাগস :

আশ্রয়ণ প্রকল্পের ঘর পেতেও টাকা!

সংবাদ প্রকাশের সময় : ১০:৩৫:৫৭ অপরাহ্ন, সোমবার, ৮ জুলাই ২০২৪

আশ্রায়ণ প্রকল্পের ঘর পাইয়ে দেয়ার কথা বলে ইউপি সদস্য ইব্রাহিম খান ও আওয়ামীলীগ সাবেক সভাপতি আইয়ুব আলী মোল্লা অসহায় দুই পরিবারের কাছ থেকে ১১ হজার টাকা করে নিয়েছেন বলে অভিযোগ পাওয়া গেছে। চরকগাছিয়া গ্রামের আলমগীর গাজী ও রুবেল মোল্লা এই অভিযোগ করেন।

জানা গেছে, তালতলী উপজেলার পঁচাকোড়ালিয়া ইউনিয়নের চরকগাছিয়া গ্রামে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা আশ্রয়ণ প্রকল্পের আওতায় ১৮ টি পরিবারের নামে ঘর বরাদ্দ দেয়। অভিযোগ রয়েছে, পচাঁকোড়ালিয়া ইউনিয়ন পরিষদ সদস্য এবং উপজেলা বিএনপি সদস্য ইব্রাহিম খাঁন ও আড়পাঙ্গাশিয়া ইউনিয়ন ওয়ার্ড আওয়ামী লীগ সাবেক সভাপতি আইয়ুব আলী মোল্লা আবাসনের ঘর পাইয়ে দেয়ার কথা বলে চরকগছিয়া গ্রামের রশিদ গাজীর ছেলে আলমগীর গাজী ও মানিক মোল্লার ছেলে রুবেল মোল্লার কাছে ২৫ টাকা দাবী করেন। তাদের দাবীকৃত টাকা থেকে ইউপি সদস্যকে তারা ২২ হাজার টাকা দিয়েছেন। অসহায় দুই পরিবারের কাছ থেকে টাকা নেয়ায় ইউপি সদস্য ও আওয়ামী লীগ নেতার শাস্তি দাবী করেন তারা।

রুবেল মোল্লার মা রাজিয়া বেগম বলেন, ‘মেম্বর মোরে ঘর পাইয়ে দেয়ার কতা কইয়্যা ২৫ টাহা ঘুষ চাইছে। মুই ১১ আজার টাহা ঘুষ দিছি।’

আলমগীর গাজী বলেন, আড়পাঙ্গাশিয়া ওয়ার্ড আওয়ামী লীগ সাবেক সভাপতি আইয়্বু আলী মোল্লা ঘর পাইয়ে দেয়ার কথা বলে আমার কাছে ২৫ হাজার টাকা দাবী করে। আমি তার নির্দেশে ইউপি সদস্য ইব্রাহিম খানের কাছে ১১ হাজার টাকা দিয়েছি।

আড়পাঙ্গাশিয়া ওয়ার্ড আওয়ামীলীগ সাবেক সভাপতি আইয়ুব আলী মোল্লা টাকা নেয়ার কথা অস্বীকার করে বলেন, দেড় মাস আগে রুবেল ও আলমগীর গাজী আমার কাছে কাগজপত্র দিয়েছে।

পঁচাকোড়ালিয়া ইউপি সদস্য উপজেলা বিএনপি সদস্য ইব্রাহিম খাঁন টাকা নেয়ার কথা অস্বীকার করে বলেন, আমি কারো কাছ থেকে টাকা পয়সা নেইনি।

এসব বিষয়ে তালতলী ইউএনও সিফাত আনোয়ার তুমপা বলেন, এ বিষয়ে এষনো কোনো অভিযোগ পাইনি। অভিযোগ পেলে আইনগত ব্যবস্থা নেয়া হবে।

তিনি আরও বলেন, প্রধানমন্ত্রীর দেয়া আশ্রয়ণ প্রকল্প থেকে কেউ ঘর দেয়ার কথা বলে টাকা নিলে তাকে ছাড় দেয়া হবে না।