ঢাকা ১১:২৮ পূর্বাহ্ন, শুক্রবার, ১৯ জুলাই ২০২৪, ৪ শ্রাবণ ১৪৩১ বঙ্গাব্দ

অস্থির পেঁয়াজের বাজার, অজুহাত বন্যার

আবুল কাশেম রুমন, সিলেট
  • সংবাদ প্রকাশের সময় : ১০:৩৯:৩৬ পূর্বাহ্ন, রবিবার, ৭ জুলাই ২০২৪ ২৯ বার পড়া হয়েছে
বাংলা টাইমস অনলাইনের সর্বশেষ নিউজ পেতে অনুসরণ করুন গুগল নিউজ (Google News) ফিডটি

সিলেটের বন্যার পরিস্থিতি এখন অস্বাভাবিক। বন্যা স্বাভাবিক হলেও মানুষের চাপ পড়েছে নিত্যপণ্যের উপর। ৫ দিনের ব্যবধানে বেড়েছে পেঁয়াজের দাম। এখন কেজি ১২০ টাকায় ঠেকেছে।

সিলেটের বড় পাইকারী বাজার কালিঘাটেও বাড়তি দামে বিক্রি হচ্ছে পেঁয়াজ। তার প্রভাব পড়েছে খুচরা বাজারে। মোট কথা সিলেটের সর্বত্রই পেঁয়াজের বাজারে অস্থিরতা বিরাজ করছে।

কিন্তু, হঠাৎ পেঁয়াজের দাম বেড়ে যাওয়ায় আমদানির উদ্যোগের কথা শোনাচ্ছেন ব্যবসায়ীরা। তারা বলছেন, ভারতের বিকল্প হিসেবে কয়েকটি দেশ থেকে আমদানির জন্য খোলা হয়েছে ঋণপত্র (এলসি)। এই মাসের শেষ দিকে আমদানি করা পেঁয়াজ ঢুকতে পারে দেশের বাজারে। আর তখন দাম অনেকটাই কমতে পারে। আর সিলেটে পেঁয়াজের দাম বাড়ার কারণ হিসেবে ব্যবসায়ীরা বন্যার অজুহাত দেখাচ্ছে।

কৃষি বিপণন অধিদপ্তরের তথ্যমতে, উৎপাদনসহ অন্য খরচ হিসাব করে খুচরা পর্যায়ে পেঁয়াজের কেজি ৬৫ টাকা হওয়ার কথা। তবে সংস্থাটিরই তথ্য, বৃহস্পতিবার (৪ জুলাই) খুচরায় পেঁয়াজের দর ছিলো ৯৫ থেকে ১০৫ টাকা। তবে বাজারের প্রকৃত চিত্র ভিন্ন।

রোববার (৭ জুলাই) রাজধানীর বন্দরবাজার, আম্বরখানা, কদমতলি, উপশহর, মিরাবাজার, সুবিধবাজার,চৌহাট্টাসহ কয়েকটি বাজারে দেশি ভালো মানের পেঁয়াজের কেজি বিক্রি হচ্ছে ১১০ থেকে ১২০ টাকায়। আর দেশি হাইব্রিড জাতের পেঁয়াজের কেজি বিক্রি হচ্ছে ১০৫ থেকে ১১০ টাকায়। তবে পাড়া-মহল্লায় ১২০ টাকার কমে মিলছে না পেঁয়াজ।

সরকারি সংস্থা ট্রেডিং করপোরেশন অব বাংলাদেশের (টিসিবি) বাজারদর অনুযায়ী, সিলেটের বাজারে দেশি ও আমদানি করা পেঁয়াজ বিক্রি হয়েছে প্রতি কেজি ১০০ থেকে ১১০ টাকায়। তথ্যমতে, একমাসে দেশি পেঁয়াজের দর ২৭ ও আমদানি করা পেঁয়াজের দর ১৭ শতাংশ বেড়েছে।

নিউজটি শেয়ার করুন

আপনার মন্তব্য

Your email address will not be published. Required fields are marked *

আপনার ইমেইল এবং অন্যান্য তথ্য সংরক্ষন করুন

ট্যাগস :

অস্থির পেঁয়াজের বাজার, অজুহাত বন্যার

সংবাদ প্রকাশের সময় : ১০:৩৯:৩৬ পূর্বাহ্ন, রবিবার, ৭ জুলাই ২০২৪

সিলেটের বন্যার পরিস্থিতি এখন অস্বাভাবিক। বন্যা স্বাভাবিক হলেও মানুষের চাপ পড়েছে নিত্যপণ্যের উপর। ৫ দিনের ব্যবধানে বেড়েছে পেঁয়াজের দাম। এখন কেজি ১২০ টাকায় ঠেকেছে।

সিলেটের বড় পাইকারী বাজার কালিঘাটেও বাড়তি দামে বিক্রি হচ্ছে পেঁয়াজ। তার প্রভাব পড়েছে খুচরা বাজারে। মোট কথা সিলেটের সর্বত্রই পেঁয়াজের বাজারে অস্থিরতা বিরাজ করছে।

কিন্তু, হঠাৎ পেঁয়াজের দাম বেড়ে যাওয়ায় আমদানির উদ্যোগের কথা শোনাচ্ছেন ব্যবসায়ীরা। তারা বলছেন, ভারতের বিকল্প হিসেবে কয়েকটি দেশ থেকে আমদানির জন্য খোলা হয়েছে ঋণপত্র (এলসি)। এই মাসের শেষ দিকে আমদানি করা পেঁয়াজ ঢুকতে পারে দেশের বাজারে। আর তখন দাম অনেকটাই কমতে পারে। আর সিলেটে পেঁয়াজের দাম বাড়ার কারণ হিসেবে ব্যবসায়ীরা বন্যার অজুহাত দেখাচ্ছে।

কৃষি বিপণন অধিদপ্তরের তথ্যমতে, উৎপাদনসহ অন্য খরচ হিসাব করে খুচরা পর্যায়ে পেঁয়াজের কেজি ৬৫ টাকা হওয়ার কথা। তবে সংস্থাটিরই তথ্য, বৃহস্পতিবার (৪ জুলাই) খুচরায় পেঁয়াজের দর ছিলো ৯৫ থেকে ১০৫ টাকা। তবে বাজারের প্রকৃত চিত্র ভিন্ন।

রোববার (৭ জুলাই) রাজধানীর বন্দরবাজার, আম্বরখানা, কদমতলি, উপশহর, মিরাবাজার, সুবিধবাজার,চৌহাট্টাসহ কয়েকটি বাজারে দেশি ভালো মানের পেঁয়াজের কেজি বিক্রি হচ্ছে ১১০ থেকে ১২০ টাকায়। আর দেশি হাইব্রিড জাতের পেঁয়াজের কেজি বিক্রি হচ্ছে ১০৫ থেকে ১১০ টাকায়। তবে পাড়া-মহল্লায় ১২০ টাকার কমে মিলছে না পেঁয়াজ।

সরকারি সংস্থা ট্রেডিং করপোরেশন অব বাংলাদেশের (টিসিবি) বাজারদর অনুযায়ী, সিলেটের বাজারে দেশি ও আমদানি করা পেঁয়াজ বিক্রি হয়েছে প্রতি কেজি ১০০ থেকে ১১০ টাকায়। তথ্যমতে, একমাসে দেশি পেঁয়াজের দর ২৭ ও আমদানি করা পেঁয়াজের দর ১৭ শতাংশ বেড়েছে।