ঢাকা ০৭:৫৮ অপরাহ্ন, সোমবার, ১৫ জুলাই ২০২৪, ৩১ আষাঢ় ১৪৩১ বঙ্গাব্দ

অপহৃত সেই কৃষকরা মুক্তিপণ দিয়েই ফিরেছে

কক্সবাজার প্রতিনিধি
  • সংবাদ প্রকাশের সময় : ০১:২৪:১২ পূর্বাহ্ন, রবিবার, ২৪ মার্চ ২০২৪ ১০৯ বার পড়া হয়েছে
বাংলা টাইমস অনলাইনের সর্বশেষ নিউজ পেতে অনুসরণ করুন গুগল নিউজ (Google News) ফিডটি

কক্সবাজারের টেকনাফে পাহাড় থেকে অপহৃত স্থানীয় পাচঁ কৃষকের চারজনকেই মুক্তিপণ নিয়ে ফেরত দিয়েছে বলে জানা গেছে। শনিবার (২৪ মার্চ) রাত সাড়ে ১২টার দিকে অপহৃতদের ফেরত দিয়েছে সন্ত্রাসীরা। বিষয়টি নিশ্চিত করেন ভূক্তভোগীর পরিবার।

মুক্তিপন দিয়ে ফেরত আসা অপহৃতরা হলেন- মো. রফিক (২২) জিহান (১৩), শাওন (১৫) ও আব্দুর রহমান (১৫)।

তবে আব্দুর রহিমের ছেলে মো নুর (১৮) কে এখনো ফেরত দেয়নি অপহরণকারীরা।

জানা গেছে, গত বৃহস্পতিবার পাঁচ কৃষককে অপহরণের পর মুক্তিপণ চেয়ে অপহৃত রফিকের ভাই মো শফিকের কাছে মুঠোফোনে ৩০ লাখ টাকা দাবি করেছিল অপহরণকারীরা। অবশেষে ১ লাখ ২০ হাজার টাকা মুক্তিপণ নিয়ে চারজনকে ফেরত দিলেও মুহাম্মদ নুর নামে আরেকজনকে ফেরত দেয়নি অপহরণকারীরা।

টেকনাফ মডেল থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) মুহাম্মদ ওসমান গনি জানান,অপহৃতদের পরিবার মুক্তিপন দিয়েছে কিনা সেটা জানিনা। তবে আমরা তাদের উদ্ধার করতে গিয়ে ৪ জনকে উদ্ধার করেছি। বাকি একজনের উদ্ধার অভিযান চলতেছে।

গত ১০ মার্চ হোয়াইক্যং ইউনিয়নের ২২ নম্বর রোহিঙ্গা ক্যাম্প সংলগ্ন পাহাড়ি এলাকা থেকে ৭ জনকে অস্ত্রের মুখে জিম্মি করে অপহরণকারীরা নিয়ে যায়। একদিন পরে ৩ লাখ টাকা মুক্তিপণ দিয়ে তারা ফিরে আসেন।

এর একদিন আগে গত ৯ মার্চ হ্নীলার পূর্ব পানখালী এলাকা থেকে মাদ্রাসা পড়ুয়া ছাত্র ছোয়াদ বিন আব্দুল্লাহ (৬)কে অপহরণ করে নিয়ে যায় অপহরণকারীরা। ১২ দিন অতিবাহিত হলেও এখনো তাকে উদ্ধার করা যায়নি।

নিউজটি শেয়ার করুন

আপনার মন্তব্য

Your email address will not be published. Required fields are marked *

আপনার ইমেইল এবং অন্যান্য তথ্য সংরক্ষন করুন

অপহৃত সেই কৃষকরা মুক্তিপণ দিয়েই ফিরেছে

সংবাদ প্রকাশের সময় : ০১:২৪:১২ পূর্বাহ্ন, রবিবার, ২৪ মার্চ ২০২৪

কক্সবাজারের টেকনাফে পাহাড় থেকে অপহৃত স্থানীয় পাচঁ কৃষকের চারজনকেই মুক্তিপণ নিয়ে ফেরত দিয়েছে বলে জানা গেছে। শনিবার (২৪ মার্চ) রাত সাড়ে ১২টার দিকে অপহৃতদের ফেরত দিয়েছে সন্ত্রাসীরা। বিষয়টি নিশ্চিত করেন ভূক্তভোগীর পরিবার।

মুক্তিপন দিয়ে ফেরত আসা অপহৃতরা হলেন- মো. রফিক (২২) জিহান (১৩), শাওন (১৫) ও আব্দুর রহমান (১৫)।

তবে আব্দুর রহিমের ছেলে মো নুর (১৮) কে এখনো ফেরত দেয়নি অপহরণকারীরা।

জানা গেছে, গত বৃহস্পতিবার পাঁচ কৃষককে অপহরণের পর মুক্তিপণ চেয়ে অপহৃত রফিকের ভাই মো শফিকের কাছে মুঠোফোনে ৩০ লাখ টাকা দাবি করেছিল অপহরণকারীরা। অবশেষে ১ লাখ ২০ হাজার টাকা মুক্তিপণ নিয়ে চারজনকে ফেরত দিলেও মুহাম্মদ নুর নামে আরেকজনকে ফেরত দেয়নি অপহরণকারীরা।

টেকনাফ মডেল থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) মুহাম্মদ ওসমান গনি জানান,অপহৃতদের পরিবার মুক্তিপন দিয়েছে কিনা সেটা জানিনা। তবে আমরা তাদের উদ্ধার করতে গিয়ে ৪ জনকে উদ্ধার করেছি। বাকি একজনের উদ্ধার অভিযান চলতেছে।

গত ১০ মার্চ হোয়াইক্যং ইউনিয়নের ২২ নম্বর রোহিঙ্গা ক্যাম্প সংলগ্ন পাহাড়ি এলাকা থেকে ৭ জনকে অস্ত্রের মুখে জিম্মি করে অপহরণকারীরা নিয়ে যায়। একদিন পরে ৩ লাখ টাকা মুক্তিপণ দিয়ে তারা ফিরে আসেন।

এর একদিন আগে গত ৯ মার্চ হ্নীলার পূর্ব পানখালী এলাকা থেকে মাদ্রাসা পড়ুয়া ছাত্র ছোয়াদ বিন আব্দুল্লাহ (৬)কে অপহরণ করে নিয়ে যায় অপহরণকারীরা। ১২ দিন অতিবাহিত হলেও এখনো তাকে উদ্ধার করা যায়নি।