https://bangla-times.com/
ঢাকাসোমবার , ৪ ডিসেম্বর ২০২৩
  • অন্যান্য

সাড়ে ৪ ঘন্টা বসিয়ে রেখেও ধর্ষকদের ছবি তুলতে দেয়নি পুলিশ

রংপুর প্রতিনিধি
ডিসেম্বর ৪, ২০২৩ ৯:২৮ পূর্বাহ্ণ । ১১৮ জন
Link Copied!

রংপুর নগরীর হাজিরহাট মুচিরমোড় বটতলা এলাকায় স্বামীকে বেঁধে রেখে স্ত্রীকে সংঘবদ্ধ গণধর্ষণের ঘটনা ঘটেছে। এ ঘটনায় মুল হোতাসহ ৫ জনকে গ্রেফতার করেছে মেট্রোপলিটন হাজীরহাট থানা পুলিশ। বিষয়টি নিশ্চিত করেন রংপুর মেট্রোপলিটন পুলিশের ডিসি (ক্রাইম) আবু মারুফ হোসেন। তবে দিনভর গনমাধ্যম কর্মীদের অপেক্ষা করিয়ে হাজিরহাট থানা পুলিশ ধর্ষকদের ছবি তুলতে দেয়নি বলে অভিযোগ উঠেছে।

পুলিশ জানায়, শনিবার দুপুরের দিকে রংপুর নগরীর হাজিরহাট থানা মুচির মোড় বটতলা এলাকায় ছাগল চুরির অভিযোগ এনে এক নারীকে তার স্বামী মানিকসহ তুলে নিয়ে যায় ওই এলাকার কয়েকজন যুবক। এরপর স্বামী মানিককে পার্শ্বর্তী একটি স্বমিলে হাত পা বেঁধে আটকে রেখে ৫ যুবক গনধর্ষণ করে নারীকে। এক পর্যায়ের ভিকটিম নারীর আত্মচিৎকারে আশে পাশের লোকজন ট্রিপল নাইনে ফোন করলে হাজিরহাট থানা পুলিশ ৫ যুবককে গ্রেফতার করে। পুলিশ ধর্ষিতা গৃহবধূ ও তার স্বামী মানিককে উদ্ধার করে।

গ্রেফতারকৃত ৫ ধর্ষক হচ্ছে রানা, হাফিজুল, আলমগীর হোসেন , সামসুল ইসলাম ও বুলু। পুলিশ জানায় ধর্ষিতা গৃহবধু গুরতর অসুস্থ হয়ে পড়ায় শনিবার রাতেই তাকে রংপুর মেডিকেল কলেজ হাসপাতালের ওয়ান ষ্টপ ক্রাইসিস সেন্টারে ভর্তি করা হয়।

এ ব্যাপারে রংপুর মেট্রোপলিটন পুলিশের ডিসি (ক্রাইম) আবু মারুফ হোসেন সাংবাদিকদের ঘটনার বর্ননা দিয়ে জানান, ভিকটিম নারীকে ৫ ধর্ষক তুলে নিয়ে গিয়ে গন ধর্ষন করেছে বলে অভিযোগ করে ভিকটিম। এ ঘটনায় ধর্ষিতা গৃহবধূ নিজেই বাদী হয়ে হাজিরহাট থানায় নারী ও শিশু নির্যাতন আইনে মামলা দায়ের করেছে।

এদিকে এ ঘটনা জানার পর গনমাধ্যম কর্মীরা রোববার সকাল থেকে হাজিরহাট থানায় ধর্ষকদের ছবি নেওয়ার জন্য অপেক্ষা করলেও পুলিশ একেবার একেক কথা বলে সময়ক্ষেপন করে। ফলে সাড়ে ৪ ঘন্টা অপেক্ষা করেও ছবি না পেয়ে ফিরে আসে।

এ ব্যাপারে রংপুর রিপোটার্স ক্লাবের সাধারণ সম্পাদক সরকার মাযহারুল মান্নান জানান, হাজিরহাট থানার ওসি রাজিব বসুনিয়া ধর্ষকদের ছবি তোলা সম্পর্কে একবার বলেন দেয়া যাবেনা, পরে বলেন যখন আসামীদের কোর্টে পাঠানো হবে তখন তোলার কথা বলেন। কিন্তু সাড়ে ৪ ঘন্টা অপেক্ষা করার পরেও ধর্ষকদের ছবি তুলতে দেয়া হয়নি গনমাধ্যম কর্মীদের।

তিনি বলেন, এমনিতেই পুলিশ যখন আসামীদের গ্রেফতার করে তখন প্রেস ব্রিফিং করে নিজেরাই ছবি তুলে সাংবাদিকদের সরবরাহ করে। কিন্তু এ ঘটনায় কেন ছবি তুলতে তাদের অনীহা এটা বিস্ময়ের সৃষ্টি করেছে বলে অভিযোগ করেন।