https://bangla-times.com/
ঢাকাবৃহস্পতিবার , ৩০ নভেম্বর ২০২৩

আওয়ামী লীগের ২ প্রার্থীকে কারণ দর্শানো নোটিস

লক্ষ্মীপুর প্রতিনিধি
নভেম্বর ৩০, ২০২৩ ৩:২২ অপরাহ্ণ । ৬৬ জন
Link Copied!

লক্ষ্মীপুর-৩ আসনের আওয়ামী লীগের দলীয় প্রার্থী গোলাম ফারুক পিংকু নির্বাচনী আচরণবিধি লঙ্ঘন করায় ব্যাখ্যা চেয়েছে নির্বাচনী অনুসন্ধান কমিটি।

নির্বাচনী এলাকা-২৭৬, লক্ষ্মীপুর-৩ আসনের নির্বাচনী অনুসদ্ধানীর কমিটির দায়িত্বপ্রাপ্ত বিচারক সিনিয়র সহকারী জজ উজমা শুকরানা বৃহস্পতিবার (৩০ নভেম্বর) এই আদেশ দিয়েছেন।

পিংকুকে রোববার (৩ ডিসেম্বর) অনসুন্ধান কমিটির কাছে নির্বাচনী আচরণবিধি লঙ্ঘনের কারণ লিখিত আকারে ব্যাখ্যা দিতে বলা হয়েছে।
অপর দিকে পৃথক আদেশে জেলা আওয়ামীলীগের সাধারণ সম্পাদক ও লক্ষ্মীপুর-২ আসনের সাবেক এমপি নৃুর উদ্দিন চৌধুরী নয়ন কে কারণ দর্শানোর নোটিস প্রদান করেছে লক্ষ্মীপুর-২ আসনের নির্বাচনী অনুসন্ধানী কমিটির দায়িত্বপ্রাপ্ত বিচারক যুগ্ম জেলা ও দায়রা জজ ফারহানা ভুইয়া। বৃহস্পতিবার (৩০ নভেম্বর) এই আদেশ দিয়েছেন। নয়ন কে রোববার (৩ ডিসেম্বর) অনসুন্ধান কমিটির কাছে নির্বাচনী আচরণবিধি লঙ্ঘনের কারণ দর্শানোর জন্য নির্দেশ দেওয়া হয়েছে। জেলা নির্বাচন অফিস সূত্রে এ তথ্য নিশ্চিত হওয়া গেছে।

আদেশে বলা হয়েছে, আপনাদের বিরুদ্ধে অত্র কমিটির নিকট এই মর্মে অভিযোগ আনীত হয় যে, বিগত ২৮ নভেম্বর ২০২৩ ইং জনগণের চলাচলে বিঘœ সৃষ্টি করেছেন এবং বিভিন্ন যানবাহনে আপনার প্রতীক ব্যবহার করে নির্বাচনী প্রচারনা চালিয়েছেন। এমতাবস্থায়, নির্বাচনী আচরন বিধিমালার ৬ (খ) ও ৮(ক) ধারায় এই মর্মে অভিযোগ আনীত হয় যে, আপনারা মহাসড়ক বন্ধ রেখে মাইক্রোবাস ও মোটর সাইকেল সহযোগে উচ্চস্বরে প্রচারণা চালিয়েছেন। এ বিষয়ে বিভিন্ন সংবাদপত্রে সংবাদ প্রকাশিত হয়।

আগামী ৩/১২/২০২৩ ইং এর মধ্যে আপনাদের অত্র কমিটির নিকট উপর্যুক্ত বিষয়ে লিখিত ব্যাখ্যা দাখিল এর জন্য নির্দেশ প্রদত্ত হলো।’
জাতীয় সংসদ নির্বাচনের আচরণবিধিমালায় বলা হয়েছে, কোনো নিবন্ধিত রাজনৈতিক দল কিংবা এর মনোনীত প্রার্থী বা স্বতন্ত্র প্রার্থী কিংবা তাদের পক্ষে অন্য কোনো ব্যক্তি ভোট গ্রহণের জন্য নির্ধারিত দিনের তিন সপ্তাহ সময়ের আগে কোনো প্রকার নির্বাচনী প্রচার শুরু করতে পারবেন না। দ্বাদশ জাতীয় সংসদ নির্বাচনের ভোট গ্রহণ হবে ৭ জানুয়ারি। সে হিসাবে ১৫ ডিসেম্বরের আগে কেউই নির্বাচনী প্রচার চালাতে পারবেন না।

তবে সাংবাদিকদের প্রশ্নের জবাবে গোলাম ফারুক পিংকু ও নুর উদ্দিন নয়ন বলেছেন তারা কোন আচরণ বিধি অমান্য করেননি । প্রতিপক্ষ বা অন্য প্রার্থীর লোকের আচরণ বিধি অমান্য করে তাদের উপর দোষ চাপিয়েছেন বলে তারা দাবী করেন।