https://bangla-times.com/
ঢাকাসোমবার , ৪ ডিসেম্বর ২০২৩

রংপুরে দিনভর হৈচৈ-হট্টগোল, উত্তেজনা ও বিক্ষোভ

রংপুর প্রতিনিধি
ডিসেম্বর ৪, ২০২৩ ৯:০৩ অপরাহ্ণ । ৬২ জন
Link Copied!

রংপুরের ৬টি আসনে ৬ টি মনোনয়ন পত্র স্থগিত করার ব্যাপারে চুড়ান্ত সিদ্ধান্ত দেবার নামে সোমবার (৪ ডিসেম্বর) সকাল থেকে সন্ধ্যা ৭টা পর্যন্ত রিটানিং অফিসারের কার্যালয়ে নানান নাটকীয় ঘটনার অভিযোগ উঠেছে। এ সময় এক স্বতন্ত্র প্রার্থীর মনোনয়ন পত্র বাতিল ঘোষণা করা নিয়ে সভাস্থলে তুমুল হৈচৈ ও হট্টগোল আর উত্তেজনা সৃষ্টি হয়। এ ঘটনা নিয়ে জেলা প্রশাসকের কার্যালয়ের বাইরে বিক্ষোভ হয়েছে।

প্রার্থী ও তাদের সমর্থকদের অভিযোগ সোমবার রংপুরের ৬টি আসনের ৬টি মনোনয়ন পত্রে বিভিন্ন ক্রুটি থাকার মনোনয়ন পত্র গুলো স্থগিত ঘোষনা করেন জেলা প্রশাসক ও রিটানিং অফিসার মোবাশ্বের হাসান। সোমবার ছিলো স্থগিত থাকা ৬টি মনোনয়ন পত্রের ব্যাপারে সিদ্ধান্ত ঘোষনা করা।

রংপুর ৫ আসনের স্বতন্ত্র প্রার্থী আওয়ামী লীগ নেতা জাকির হোসেন অভিযোগ করেন তার মনোনয়ন পত্রসহ ৬টি স্থগিত করে রাখা মনোনয়ন পত্র সম্পর্কে ঘোষনা দিন ধার্য করা হলেও সোমবার সকাল থেকে বিকাল ৪টা পর্যন্ত রিটানিং অফিসার অফিসে আসেননি। স্থগিত হওয়া প্রার্থীরা দিনভর ঘোরাঘুরি করে তার সাক্ষাৎ পায়নি। পরে বিকেল সোয়া ৪টায় জেলা প্রশাসকের সম্মেলন কক্ষে রিটানিং অফিসার এসে স্থগিত থাকা তড়িঘড়ি রংপুর ১টি আসনের মনোনয়ন পত্র বাতিল ঘোষনা করে দ্রুত তার চেম্বারে চলে যান। কিন্তু তিনি কোন প্রার্থীর মনোনয়ন পত্র বাতিল করা হলো তা না জানিয়ে দ্রুত তার চেম্বারে চলে গেলে প্রার্থী ও তাদের প্রস্তাবকারী ও সমর্থনকারীরা জেলা প্রশাসকের চেম্বারের সামনে গিয়ে পুরো বিষয় জানতে চান। এ সময় অর্ধশতাধিক প্রিন্ট ইলেক্টনিক্স ও অনলাইন মিডিয়ার সাংবাদিকরা রিটানিং অফিসারের বক্তব্য নেবার জন্য তার চেম্বারের সামনে গেলে তিনি তার চেম্বারে না বসে তার এক ম্যাজিষ্ট্রেটের চেম্বারে জেলা নির্বাচন কর্মকর্তা সহ কয়েকজনকে সঙ্গে দীর্ঘক্ষন দরজা বন্ধ আলোচনা করেন।

প্রায় এক ঘন্টা পর রিটানিং অফিসার বিকেল সাড়ে ৫টার দিকে আবারো সম্মেলন কক্ষে এসে জানান, ৬ টি আসনে ৪৯ টি দাখিল করা মনোনয়ন পত্রের মধ্যে ৯টি আগেই বাতিল করা হয়েছে আজ শুধু রংপুর ৫ আসনের স্বতন্ত্র প্রার্থী জাকির ুনকো হোসেনের দাখিল করা কাগজ পত্রে তথ্য গোপন করায় তার মনোনয়ন পত্র বাতিল করা হলো বলে ঘোষনা দেন। এ সময় সভা স্থলে তুমুল হৈচৈ ও হট্টগোল আর উত্তেজনা সৃষ্টি হয়। এ সময় জাকির হোসেন বলেন তিনি কোন তথ্য গোপন করেননি। তার মনোনয়ন পত্র বাতিল করে নির্বাচনকে প্রশ্নবিদ্ধ করার চেষ্টা করা হচ্ছে বলে অভিযোগ করে তার মনোনয়ন পত্র বৈধ করার আহবান জানান। এ সময় সভা স্থলে চরম বিশৃংখলা সৃষ্টি হয়। এক পর্যায়ে রিটানিং অফিসার জেলা প্রশাসক মোবাশে^র হাসান স্বতন্ত্র প্রার্থী জাকির হোসেনকে সঙ্গে নিয়ে তার চেম্বারে প্রায় দেড় ঘন্টা রুদ্ধ দ্বার বৈঠক করে তাকে আপীল করার কথা বলেন। এ ব্যাপারে গনমাধ্যম কর্মীরা সন্ধা ৭ টা পর্যন্ত অপেক্ষা করে রিটানিং অফিসার জেলা প্রশাসক মোবাশ্বের হাসানের বক্তব্য জানান জন্য অপেক্ষা করার এক পর্যায়ে তিনি সাংবাদিকদের সাথে কোন কথা বলবেননা বলে সাফ জানিয়ে দেন।

পরে স্বতন্ত্রপ্রার্থী জাকির হোসেন রিটানিং অফিসারের অফিসে না আসা একবার এসে মনোনয়ন বাতিল বলে চলে গিয়ে আবারো দেড় ঘন্টা পর এসে তার মনোনয়ন পত্র বাতিল করা হয়েছে বলে যে কর্মকান্ড করেছেন এতে করে রিটানিং অফিসার হিসেবে তার কর্মকান্ড প্রশ্ন বিদ্ধ হলো। প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা অবাধ সুষ্ঠু নিরপেক্ষ এবং ব্যাপক ভোটারদের উপস্থিতির কথা বলেছেন রিটানিং অফিসার ঠুনকো অভিযোগ করে তার মনোনয়ন বাতিল করেছেন। তিনি একেকবার একেক কথা বলে নিজের নিরপেক্ষতা হারিয়েছেন সহ বিভিন্ন অভিযোগ করেন।