https://bangla-times.com/
ঢাকারবিবার , ১৯ মে ২০২৪
  • অন্যান্য

ভোটদানে বাঁধা এলেই ৯৯৯-এ ফোন করুন, তাৎক্ষণিক ব্যবস্থা

যশোর প্রতিনিধি
মে ১৯, ২০২৪ ৬:২৫ অপরাহ্ণ । ২১ জন
Link Copied!

উপজেলা পরিষদ নির্বাচনের দ্বিতীয় ধাপে যশোরের তিন উপজেলায় অবাধ, সুষ্ঠু, নিরপেক্ষ ও শান্তিপূর্ণ নির্বাচনে প্রশাসন বদ্ধপরিকর। নির্বাচনের ভোটগ্রহণে বাঁধা দান বা সুষ্ঠু পরিবেশের বিঘ্ন ঘটালে কঠোরভাবে দমন করা হবে। এজন্য ভোটপ্রদানে বাঁধা প্রদান ও শান্তিপূর্ণ পরিবেশ বিনষ্টের ঘটনা ঘটলে জাতীয় জরুরি সেবার হটলাইন নাম্বার ৯৯৯-এ ফোন করার আহবান জানানো হয়েছে।

রোববার (১৯ মে) উপজেলা পরিষদ নির্বাচনের (২য় ধাপ) প্রেস ব্রিফিংকালে যশোরের জেলা প্রশাসক মোহাম্মদ আবরাউল হাছান মজুমদার এ আহবান জানান। রোববার বেলা ১১টার দিকে এই প্রেস ব্রিফিং অনুষ্ঠিত হয়।

এ সময় যশোরের জেলা প্রশাসক মোহাম্মদ আবরাউল হাছান মজুমদার বলেন, যশোরের তিন উপজেলার ভোট ২১ মে অনুষ্ঠিত হবে। ভোটারদের নিরাপত্তা এবং সুষ্ঠু, নিরপেক্ষ, অবাধ ও গ্রহণযোগ্য নির্বাচনের জন্য নির্বাচন কমিশনের নির্দেশনা অনুযায়ী আমরা সব রকমের প্রস্তুতি গ্রহণ করেছি। পুলিশ, বিজিবি, আনসার, র‌্যাব সদস্যরা ভোটারদের নিরাপত্তা ও শৃঙ্খলা রক্ষায় কাজ করবে।

জেলা প্রশাসক আরও বলেন, আমাদের সার্বক্ষণিক গোয়েন্দা নজরদারি থাকবে। গোয়েন্দা নজরদারির বাহিরে যদি কেউ ভোটারদের ভোট কেন্দ্রে আসতে বাঁধা প্রদান করে বা ভোটের সুষ্ঠু ও শান্তিপূর্ণ পরিবেশ বিনষ্ট করার চেষ্টা করে তাহলে ভোটারদের নিকট অনুরোধ থাকবে তৎক্ষণাৎ জরুরী সেবা ৯৯৯ এ কল করে জানানোর জন্য। আইনশৃঙ্খলা বাহিনী তৎক্ষনাৎ ব্যবস্থা নিবে।’

প্রেস ব্রিফিংয়ে আরও জানানো হয়, এ তিন উপজেলায় কিছু ক্ষেত্রে আচরণবিধি লংঘন ও সংঘটিত নির্বাচনী অপরাধের কারণে গত ১৭ মে পর্যন্ত ভ্রাম্যমাণ আদালতের মাধ্যমে প্রার্থী এবং কর্মী-সমর্থকদের ৭৫ হাজার টাকা জরিমানা করা হয়েছে। নির্বাচনের দিন অন্য দুই উপজেলার চেয়ে শার্শা উপজেলায় নিরাপত্তা কর্মী মোতায়েন থাকবে বেশি।

তিন উপজেলায় মোবাইল টিম ও স্ট্রাইকিং ফোর্স হিসেবে ১ হাজার ৭১৮ জন পুলিশ, ৬০ জন র‌্যাব সদস্য এবং ৬০ জন আনসার সদস্য দায়িত্ব পালন করবেন। এছাড়া ৮ প্লাটুন বিজিবি সদস্য মোতায়েন করা হয়েছে।

প্রেস ব্রিফিংয়ে উপস্থিত ছিলেন-তিন উপজেলার নির্বাচনের রিটার্নিং অফিসার অতিরিক্ত জেলা প্রশাসক (সার্বিক) এসএম শাহীন, অতিরিক্ত পুলিশ সুপার বেলাল হোসাইন, জেলা সিনিয়র নির্বাচন কর্মকর্তা আনিছুর রহমান, অতিরিক্ত নির্বাচন অফিসার আব্দুর রশিদ প্রমুখ।