https://bangla-times.com/
ঢাকামঙ্গলবার , ৬ ফেব্রুয়ারি ২০২৪

বরিশালকে হারিয়ে দ্বিতীয় চট্টগ্রাম

ক্রীড়া প্রতিবেদক
ফেব্রুয়ারি ৬, ২০২৪ ১০:২৯ অপরাহ্ণ । ৭৬ জন
Link Copied!

দুই পেসার শহিদুল ইসলাম ও আল-আমিন হোসেনের বোলিং নৈপুন্যে বাংলাদেশ প্রিমিয়ার লিগ (বিপিএল) টি-টোয়েন্টি ক্রিকেটে তামিম-মুশফিক-মাহমুদুল্লাহ’র ফরচুন বরিশালকে ১৬ রানে হারিয়েছে চট্টগ্রাম চ্যালেঞ্জার্স। শহিদুল ৩টি ও আল-আমিন ২টি উইকেট নেন।

এই জয়ে সাকিব আল হাসানের রংপুর রাইডার্সের সমান ১০ পয়েন্ট হলো ৭ ম্যাচ খেলা চট্টগ্রামের। কিন্তু রান রেটে এগিয়ে রংপুর শীর্ষে ও চট্টগ্রাম দ্বিতীয়স্থানে আছে। ৭ ম্যাচে ৩ জয় ও ৪ হারে ৬ পয়েন্ট নিয়ে টেবিলের পঞ্চমস্থানে আছে বরিশাল।

মিরপুর শেরে বাংলা জাতীয় ক্রিকেট স্টেডিয়ামে মঙ্গলবার (৬ ফেব্রুয়ারি) দিনের দ্বিতীয় ম্যাচে টস হেরে প্রথমে ব্যাট করতে নেমে পাওয়ার প্লেতে ১ উইকেট হারিয়ে ৩৯ রান তুলে চট্টগ্রাম। ১৯ বলে ১০ রান করে বরিশালের মোহাম্মদ সাইফুদ্দিনের শিকার হন ওপেনার তানজিদ।

তানজিদ ফেরার পর চট্টগ্রামের রানের চাকা সচল রাখেন আরেক ওপেনার অস্ট্রেলিয়ার জশ ব্রাউন ও ব্রæস। ব্রাউন্ডের সাথে ২০ বলে ৩২ ও শাহাদাত নিয়ে ৩১ বলে ৩৩ রান যোগ করেন ব্রæস। ১টি চার ও ৪টি ছক্কায় ২৩ বলে ৩৮ রান করা ব্রাউনকে বোল্ড করেন স্পিনার তাইজুল ইসলাম।

মিডল অর্ডারে শাহাদাত ১৫, আফগানিস্তান নাজিবুল্লাহ জাদরান ৪ এবং সৈকত আলি ১১ রানে আউট হলেও ব্রæসের হাফ-সেঞ্চুরিতে ৫ উইকেটে ১৪৫ রানের সংগ্রহ পায় চট্টগ্রাম। ৫টি চার ও ২টি ছক্কায় ৪০ বলে অপরাজিত ৫০ রান করেন ব্রুস। বরিশালের পাকিস্তানী পেসার মোহাম্মদ ইমরান ২টি, সাইফুদ্দিন- পাকিস্তানের আব্বাস আফ্রিদি ও তাইজুল ১টি করে উইকেট নেন।

১৪৬ রান তাড়া করতে নেমে ২৮ রানের সূচনা করেন বরিশালের দুই ওপেনার অধিনায়ক তামিম ইকবাল ও পাকিস্তানের আহমেদ শেহজাদ। পঞ্চম ওভারের চতুর্থ বলে ১৬ রান করা শেহজাদকে থামিয়ে জুটি ভাঙেন পেসার আল-আমিন হোসেন।

একই ওভারের শেষ বলে তিন নম্বরে নামা সৌম্য সরকারকে বোল্ড করেন আল-আমিন। পরের ওভারে মেহেদি হাসান মিরাজ শিকার হন ওমানের পেসার বিলাল খানের। ১ রানে ৩ উইকেট হারিয়ে চাপে পড়ে বরিশাল।

দলকে চাপমুক্ত করতে চতুর্থ উইকেটে ৩৫ বলে ৩৯ রানের জুটি গড়েন তামিম ও মুশফিক । পেসার সৈকত আলির শিকার হয়ে ১৩ বলে ৯ রান নিয়ে সাজঘরে ফিরেন মুশফিক।

অন্যপ্রান্তে হাফ-সেঞ্চুরির দ্বারপ্রান্তে গিয়ে থামেন তামিম। ৪টি চার ও ২টি ছক্কায় ৪৬ বলে ৪৯ রান করেন পেসার শহিদুল ইসলামের শিকার হওয়া তামিম।

তামিম ফেরার পর পাকিস্তানের শোয়েব মালিক ১৪ ও মাহমুদুল্লাহ রিয়াদ ৩ রানের বিদায়ে হারের মুখে ছিটকে পড়ে বরিশাল। শেষ দিকে সাইফুদ্দিনের ২টি করে চার-ছক্কায় ১৮ বলে অপরাজিত ৩০ রানের পরও ২০ ওভারে ৮ উইকেটে ১২৯ রান করে ম্যাচ হারে বরিশাল। শহিদুল ৪ ওভারে ১৩ রানে ৩টি ও আল-আমিন ৩১ রানে ২ উইকেট নেন।