https://bangla-times.com/
ঢাকাশুক্রবার , ৫ এপ্রিল ২০২৪
  • অন্যান্য

‘পাহাড়ে সন্ত্রাস নির্মূলে র‌্যাবের অভিযান চলমান থাকবে’

বান্দরবান প্রতিনিধি
এপ্রিল ৫, ২০২৪ ৪:৩৪ অপরাহ্ণ । ৩৮ জন
Link Copied!

র‌্যাবের আইন ও গণমাধ্যম শাখার পরিচালক খন্দকার আল মঈন বলেছেন,বান্দরবানে বিভিন্ন দুর্গম এলাকায় পাহাড়ে সন্ত্রাস ও নতুন সংগঠনের একএনএফ এর তৎপরতা নির্মূল না হওয়া পর্যন্ত র‌্যাবের অভিযান চলমান থাকবে।তবে প্রশাসনের সহযোগিতায় নিয়ে এই অভিযান পরিচালনা করা হচ্ছে।পাহাড়ের শান্তি প্রিয় মানুষের যাতে কোন ধরণের সমস্যায় না পড়ে সেইটা আমলে নিয়ে র‌্যাবের এই অভিযান পরিচালিত হচ্ছে।সোনালী ব্যাংকের ম্যানেজার নেজাম উদ্দিনকে উদ্ধারের পর

শুক্রবার (৫ এপ্রিল) সকালে বান্দরবান পার্বত্য জেলা পরিষদ সভা কক্ষে সংবাদ সম্মেলনে র‌্যাবের আইন ও গণমাধ্যম শাখার পরিচালক খন্দকার আল মঈন এসব কথা বলেন।

তিনি আরও আরো বলেন,পাহাড়ে জঙ্গি নির্মুল অভিযানের অভিজ্ঞতার আলোকে এবং গুরুত্ব সহকারে বিবেচনা করে র‌্যাবের একাধিক আভিযানিক দল অপহৃত ব্যাংক ম্যানেজার ও অস্ত্র-গোলাবারুদ উদ্ধারের লক্ষ্যে গোয়েন্দা নজরদারী বৃদ্ধি ও তথ্য সংগ্রহসহ র‌্যাবের আভিযানিক কার্যক্রম শুরু করে।যার ফলে সম্পূর্ণ অক্ষত অবস্থায় সোনালী ব্যাকের ম্যানেজারকে উদ্ধার করে পরিবারের কাছে ফিরিয়ে দেওয়া সম্ভব্য হয়েছে।তবে এই কেএনএফএ সন্ত্রাসী দলকে নির্মূল করতে অভিযান চলমান থাকবে।

এসময় তিনি বলেন,র‌্যাবের নিজস্ব কৌশলে আইন শৃঙ্খলা বাহিনীর সহায়তায় রুমা থেকে অক্ষত অবস্থায় ব্যাংক ম্যানেজারকে উদ্ধার করা হয়েছে।এসময় পরিচালক জানায় ব্যাংক ম্যানেজারকে অপহরনের পর পাহাড় ও ঝিরি পথে দীর্ঘক্ষন পায়ে হেটে তাদের আন্তানায় নিয়ে যায় কেএনএফ সন্ত্রাসীরা। এরপর থেকে ব্যাংক ম্যানেজারকে উদ্ধারে বিভিন্ন সংস্থার সহযোগিতায় অভিযানে নামে র‌্যাব। একটানা ৩০ঘন্টা অভিযানের পর কেএনএফ সন্ত্রাসীরা র‌্যাবের পাতা ফাঁদে পা দেয় এবং অপহৃত ব্যাংক ম্যানেজারকে মোটর সাইকেলে করে রুমার বেথেল পাড়া এলাকায় রেখে যায়।সেখান থেকে ব্যাব তাকে উদ্ধার করে পরিবারের কাছে হস্তান্তর করে।

তিনি আরও বলেন, ব্যাংক ম্যানেজারকে জীবিত উদ্ধারের কারনে আমরা হার্ড লাইনে যাইনি তবে আজকে থেকে আমরা সাড়াশি অভিযান পরিচালনা করব বিভিন্ন বাহিনীর সহযোগিতায়। কারন কেএনএফ সন্ত্রাসীরা নিজেদের অবস্থান জানান দিতে নানা অপকর্ম চালিয়ে যাচ্ছে ভবিষ্যতে হয়ত তারা আরো বড় ধরনের হামলা করতে পারে। সন্ত্রাসীদের ছাড় দেয়া হবে না সিসিটিভি ফুটেজ সনাক্ত করে তাদের আইনের আওতায় নিয়ে আসা হবে।

এদিকে গেলো ২ এপ্রিল বান্দরবানের রুমা উপজেলা শতাধিক অস্ত্র-শস্ত্রে সজ্জিত কুকি-চীন সদস্যদের তাদের পোশাক পরিহিত অবস্থায় পরিকল্পিতভাবে বিদ্যুৎ না থাকার সুযোগ নিয়ে অতর্কিত হামলা করে অস্ত্রেরমুখে পুলিশ, আনসার ও অন্যান্য লোকজনদেরকে জিম্মি করে সোনালী ব্যাংকের ভল্ট ভেঙ্গে টাকা লুটের চেষ্টা এবং সোনালী ব্যাংকের ম্যানেজার মোঃ নেজাম উদ্দীন’কে অপহরণ করে নিয়ে যায় কেএনএফএর সন্ত্রাসীরা।

বৃহস্প্রতিবার সন্ধায় র‌্যাবের অভিযানে রুমা বেথেল পাড়া এলাকা থেকে অপহৃত সোনালী ব্যাংক ম্যানেজারকে উদ্ধারকরা হয়।তবে পাহাড়ে যেই ভাবে জঙ্গি নির্মুল করা হয়েছে সেই ভাবে কুকি-চিন ন্যাশনাল ফ্রন্ট’ (কেএনএফ) নামে এই সশস্ত্র সন্ত্রাসী গোষ্ঠী একই ভাবে নির্মুল করা হবে বলে জানান র‌্যাবের এই কর্মকর্তা।অপহৃত সোনালী ব্যাংক ম্যানেজার নেজাম উদ্দিনকে উদ্ধারের পর পরিবারের কাছে হস্তান্তন করা হয়েছে জানান র‌্যাব।