https://bangla-times.com/
ঢাকারবিবার , ১১ ফেব্রুয়ারি ২০২৪
  • অন্যান্য

‘পথের কাঁটা’ সরাতে জেলেই হত্যার পরিকল্পনা সেনার!

বাংলা টাইমস্
ফেব্রুয়ারি ১১, ২০২৪ ১২:১৮ পূর্বাহ্ণ । ৮৯ জন
Link Copied!

ত্রিশঙ্কু হওয়ার পথে পাকিস্তান। ইমরান খানের পিটিআই সমর্থিত নির্দল প্রার্থীরা এগিয়ে অনেকটাই। দেশকে ‘পথের কাঁটা’ ইমরানের প্রভাবমুক্ত করতে কার্যত বদ্ধপরিকর পাক সেনা। সেক্ষেত্রে জেলের অন্দরে প্রাক্তন প্রধানমন্ত্রীকে খুন করতেও পিছপা হবে না তারা! অন্তত তেমনই আতঙ্কে ভুগছে ‘ক্যাপ্টেনে’র পরিবার।

পাকিস্তানের জাতীয় নির্বাচনের পর ৪৮ ঘণ্টা পার। তবু ফলাফল স্পষ্ট হয়নি। উলটে হিংসার জেরে বিভিন্ন প্রান্তে বন্ধ ইন্টারনেট পরিষেবা। ফলে গণনা অনেকটাই বিলম্বিত হচ্ছে বলে সূত্রের খবর। শনিবার (১০ ফেব্রুয়ারী) সরাত পর্যন্ত পাওয়া খবর অনুযায়ী, পড়শি মুলুকের বৃহত্তম ‘দল হিসেবে এগিয়ে রয়েছে ইমরান খানের দল পিটিআই সমর্থিত নির্দল প্রার্থীরা। তাদের দখলে ৯২টি আসন। ৭১টি আসন নিয়ে দ্বিতীয় স্থানে রয়েছে নওয়াজ শরিফের পিএমএলএন। বিলাওয়াল ভুট্টোর নেতৃত্বাধীন পিপিপি ৫৪ আসন নিয়ে রয়েছে তৃতীয়স্থানে। তবে মৌলবাদী দলগুলি রয়েছে অনেকে পিছনে।

প্রসঙ্গত, পাক ন্যাশনাল অ্যাসেম্বলিতে মোট আসন ৩৩৬। ৭০টি আসন মহিলা এবং ধর্মীয় সংখ্যালঘুদের জন্য সংরক্ষিত রয়েছে। সরাসরি ভোট হওয়ার কথা ২৬৬টি আসনে। কিন্তু এক প্রার্থীর মৃত্যুর কারণে ২৬৫টি আসনে ভোট হয়।

ত্রিশঙ্কু পাকিস্তানে জোট সরকার গড়ার পক্ষেই মত পাক সেনার। সমালোচকরা বলে থাকে, মাথায় পাক সেনার হাত না থাকলে ইসলামাবাদের মসনদে বসা যায় না। সূত্রের খবর, ‘পথের কাঁটা’ ইমরানকে সরিয়ে এবার নওয়াজ শরিফকে ফের প্রধানমন্ত্রীর পদে বসাতে চান সেনাপ্রধান জেনারেল অসীম মুনিম। নওয়াজ শরিফকে জোট সরকার গড়ার পরামর্শ দিয়েছেন তিনি। সেনাপ্রধানের কথায়, স্বৈরাচার-মেরুকরণ পেরিয়ে দেশকে এগিয়ে নিয়ে যেতে হলে একটা শক্ত হাতের দরকার, যে সমস্ত ক্ষত সারিয়ে তুলবে। বিপুল জনসংখ্যা সম্বলিত পাকিস্তানকে আর স্বৈরাচার-মেরুকরণ মানায় না।” বরং শরিফের দল পিএমএল-এন যাতে জোট সরকারের নেতৃত্ব দিতে পারে সেই চেষ্টা চালিয়ে যাচ্ছে পাক সেনা।

সূত্রের দাবি, পিএমএল-এন-এর সঙ্গে পিপিপি নেতৃত্বের একান্তে বৈঠক হয়েছে। যেখানে দুই দল হাত মিলিয়ে সরকার গঠন করতে না কি রাজি! যদিও সেই সম্ভাবনা উড়িয়ে দিয়েছে পিপিপি-র এক নেতা। আপাতত পাকিস্তানজুড়ে দর কষাকষির খেলা হচ্ছে বলেই মত রাজনৈতিক মহলের। তবে ইমরানপন্থীরাও একচুল মাটিও ছাড়তে রাজি নয়। আর তাই জেলের অন্দরেই প্রাক্তন প্রধানমন্ত্রীকে খুনের চেষ্টা চালানো হচ্ছে বলে অভিযোগ।

আপাতত একাধিক অভিযোগে জেলবন্দি ইমরান খান। ভোটে লড়তে পারেননি। তার দল পিটিআই-ও নির্বাচনে লড়াই করার অধিকার হারিয়েছে। ফলে দলের নেতা, কর্মীরা নির্দল হয়ে লড়াই করেছেন। ত্রিশঙ্কু পাকিস্তানে এগিয়ে সেই নির্দলরাই। তাই ভয় পাচ্ছে পাক সেনা!

সংবাদমাধ্যমকে দেওয়া সাক্ষাৎকারে এমনই জানিয়েছেন ইমরান খানের বোন আলেমা খান। তার কথায়, “আমরা দেশের দুই তৃতীয়াংশ আসন জিতে গিয়েছি। তাতে স্ট্যাম্প দেওয়া ফলাফল রয়েছে। আমরা ইমরানকে নিয়ে আতঙ্কে আছি। জেলে তাকে হত্যা করা হতে পারে।” ভোটেও রিগিংয়ের অভিযোগ তুলেছে তারা। সবমিলিয়ে নির্বাচন ঘিরে ডামাডোল এখনও চলছে পাকিস্তানে।