https://bangla-times.com/
ঢাকাশুক্রবার , ৯ ফেব্রুয়ারি ২০২৪
  • অন্যান্য

দ্বিতীয়স্থানে কুমিল্লা

ক্রীড়া প্রতিবেদক
ফেব্রুয়ারি ৯, ২০২৪ ১১:১৯ অপরাহ্ণ । ৯২ জন
Link Copied!

তাওহিদ হৃদয়ের অসাধারণ সেঞ্চুরিতে বাংলাদেশ প্রিমিয়ার লিগ (বিপিএল) টি-টোয়েন্টি ক্রিকেটের পয়েন্ট টেবিলের দ্বিতীয়স্থানে উঠলো বর্তমান চ্যাম্পিয়ন কুমিল্লা ভিক্টোরিয়ান্স। শুক্রবার (৯ ফেব্রুয়ারি) নিজেদের সপ্তম ম্যাচে কুমিল্লা ৪ উইকেটে হারিয়েছে দুর্দান্ত ঢাকাকে। ৫৭ বলে অনবদ্য ১০৮ রান করেন হৃদয়।

৭ ম্যাচে ৫ জয় ও ২ হারে ১০ পয়েন্ট নিয়ে রান রেটে পিছিয়ে টেবিলের দ্বিতীয়স্থানে আছে কুমিল্লা। ৭ ম্যাচে ১০ পয়েন্ট নিয়ে রান রেটে এগিয়ে শীর্ষে রংপুর রাইডার্স। টানা সপ্তম ম্যাচ হারা ঢাকা ৮ ম্যাচে ২ পয়েন্ট নিয়ে টেবিলের তলানিতে ঢাকা।

মিরপুর শেরে বাংলা জাতীয় ক্রিকেট স্টেডিয়ামে আজ দিনের দ্বিতীয় ম্যাচে টস জিতে প্রথমে ব্যাট করার সিদ্বান্ত নেন এ ম্যাচে ঢাকার অধিনায়ক তাসকিন আহমেদ। ৩টি চারে ১৩ বলে ১৪ রান করে কুমিল্লার স্পিনার আলিস ইসলামের বলে আউট হন ওপেনার শ্রীলংকার চাতুরাঙ্গা ডি সিলভা।

দলীয় ২৩ রানে ডি সিলভা ফেরার পর কুমিল্লার বোলারদের উপর ছড়ি ঘুড়িয়েছেন ওপেনার মোহাম্মদ নাইম ও সাইফ হাসান। ১২তম ওভারে ঢাকার রান ১শতে নেন তারা। পরের ওভারে এবারের বিপিএলে দ্বিতীয় হাফ-সেঞ্চুরির দেখা পান ৩১ বল খেলা নাইম।

১৬তম ওভারে এবারের আসরের প্রথম অর্ধশতকের স্বাদ নিতে ৩৯ বল খেলেন সাইফ। পরের ওভারে পেসার ম্যাথু ফোর্ডের বলে আউট হন সাইফ-নাইম দুজনেই।

৯টি চার ও ১টি ছক্কায় ৪৫ বলে ৬৪ রান করেন নাইম। এই ইনিংস খেলার পথে এবারের বিপিএলে ৮ ম্যাচে সর্বোচ্চ ২৫৬ রানের মালিক হন তিনি। ৪টি চার ও ৩টি ছক্কায় ৪২ বলে ৫৭ রান করেন সাইফ।

দলীয় ১৪৩ রানে নাইম-সাইফের বিদায়ের পর ঢাকাকে ৪ উইকেটে ১৭৫ রানের সংগ্রহ এনে দেন অস্ট্রেলিয়ার অ্যালেক্স রস ও এসএম মেহেরব। ২টি চার ও ১টি ছক্কায় ১১ বলে অপরাজিত ২১ রান করেন রস। ২টি বাউন্ডারিতে ৮ বলে অনবদ্য ১১ রান করেন মেহেরব। কুমিল্লার ফোর্ড ৩৫ রানে ৩ উইকেট নেন।

১৭৬ রানের টার্গেটে তৃতীয় ওভারের মধ্যে ২৩ রানে ৩ উইকেট হারিয়ে চাপে পড়ে কুমিল্লা। উইল জ্যাকস ৯, অধিনায়ক লিটন দাস ৮ ও ইমরুল কায়েস ১ রান করেন।

চতুর্থ উইকেটে শুরুর ধাক্কা সামলে উঠেন তাওহিদ হৃদয় ও ইংল্যান্ডের ব্রæক গেস্ট। ৬৯ বলে ৮৪ রানের জুটি গড়েন দু’জনে। ১৪তম ওভারে গেস্টকে ৩৪ রানে থামিয়ে ব্রেক-থ্রু এনে দেন ডি সিলভা।

এরপর রেইমন রেইফার ৬ রানে আউট হলেও কুমিল্লার আশা বেঁচে ছিলো ৩২ বলে এবারের আসরে প্রথম হাফ-সেঞ্চুরি পাওয়া হৃদয়ের ব্যাটে। ষষ্ঠ উইকেটে জাকের আলিকে নিয়ে ২৪ বলে ৪২ রান যোগ করে কুমিল্লার জয়ের পথ সহজ করেন হৃদয়। এই জুটিতে ৫৩ বলে টি-টোয়েন্টিতে নিজের প্রথম সেঞ্চুরির স্বাদ পান হৃদয়। এবারের আসরে প্রথম সেঞ্চুরি করলেন হৃদয়। তবে বিপিএল পেলো ৩০তম সেঞ্চুরি।

শেষ পর্যন্ত ১ বল বাকী রেখে ফোর্ডকে নিয়ে কুমিল্লার জয় নিশ্চিত করেন ম্যাচ সেরা হৃদয়। ৮টি চার ও ৭টি ছক্কায় ৫৭ বলে অপরাজিত ১০৮ রান করেন হৃদয়। ঢাকার শরিফুল ২টি উইকেট নেন।