https://bangla-times.com/
ঢাকাসোমবার , ২৭ নভেম্বর ২০২৩

চতুর্থ বারের মত নৌকার মনোনয়ন পেলেন ফরিদুল হক

লিয়াকত হোসাইন লায়ন,জামালপুর
নভেম্বর ২৭, ২০২৩ ১২:১৩ অপরাহ্ণ । ৯৯ জন
Link Copied!

আসন্ন দ্বাদশ সংসদ নির্বাচনে জামালপুর-২ ইসলামপুর আসনে ৪র্থ বারের মতো নৌকার মাঝি হলেন ধর্ম প্রতিমন্ত্রী আলহাজ্ব ফরিদুল হক খান দুলাল এমপি। রবিবার (২৬ নভেম্বর) বিকেলে রাজধানীর বঙ্গবন্ধু অ্যাভিনিউয়ে আওয়ামী লীগের কেন্দ্রীয় কার্যালয় থেকে প্রার্থী হিসেবে ফরিদুল হক খান দুলাল এমপি’র নাম ঘোষণা করেন দলের সাধারণ সম্পাদক ওবায়দুল কাদের।

পূনরায় তিনি নৌকা প্রতীকে মনোনয়ন পাওয়ায় উল্লাশ করতে দেখাগেছে নেতাকর্মীদের। উপজেলা আওয়ামী লীগের সিনিয়র নেতৃবৃন্দরা জানান, সরকার উন্নয়নমুখী সরকার। আলহাজ্ব ফরিদুল হক খান এমপিকে চতুর্থ বারের মতো মনোনয়ন দেওয়ায় উপজেলায় দলমত নির্বিশেষে সবাই তাঁর পক্ষে ঐক্যবদ্ধ হয়ে কাজ করবেন।

আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক এড. আঃ সালাম বলেন, এমন একজন মানুষ যিনি সকল শ্রেণির মানুষের আশ্রয়স্থল। দ্বাদশ সংসদ নির্বাচনে নৌকার প্রার্থী হিসেবে তার নাম ঘোষণা হওয়ায় সাধারণ মানুষের মাঝে চরম উদ্দীপনা বিরাজ করছে। আবারও বিপুল ভোটে নির্বাচিত হয়ে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার হাতকে শক্তিশালী করার লক্ষে এই আসনটি আবারও উপহার দিতে প্রস্তুত এলাকার সাধারণ ভোটাররা। চূড়ান্ত বিজয় না অর্জন হওয়া পর্যন্ত নেতা-কর্মী মাঠে কাজ করবে বলে জানান তিনি।

আলহাজ্ব ফরিদুল হক খান তিনি উপজেলা আওয়ামী লীগের একবার সাধারণ সম্পাদক ও দুইবারের সভাপতির দায়িত্ব পালন করছেন। তিনি একবার উপজেলা পরিষদের চেয়ারম্যান,২০০৮ থেকে টানা সংসদ সদস্য ও বর্তমানে বাংলাদেশ সরকারের ধর্ম মন্ত্রনালয়ের প্রতিমন্ত্রীর দায়িত্ব পালন করছেন। তার ঐক্লান্তিক প্রচেস্ঠায় ইসলামপুরে অভূতপূর্ন হয়েছে। ব্রহ্মপুত্র নদের উপর দুটি ব্রীজ চরাঞ্চলকে পূরাঞ্চলে পরিনত করেছেন। অন্যদিকে যমুনার তলদেশ দিয়ে সাব মার্সেবুল ক্যাবলের মাধ্যমে দূর্গম চরাঞ্চলের ৭০হাজার মানুষকে বিদ্যুৎ দিয়ে আলোকিত করেছেন।এছাড়াও তিনি শিক্ষা প্রতিষ্ঠানকে সরকারী করণ, শেখ হাসিনা হেলথ টেকনোলজি, শেখ রাসেল মিনি স্টেডিয়াম,মাতৃ সদন,অডিটরিয়াম,উপজেলা পরিষদ,হলরুম,স্কুল,কলেজ,মাদরাসা,শতভাগ বিদ্যুতায়ন, হাজার কোটি টাকা ব্যয়ে যমুনা নদী শাসন,ব্রহ্মপুত্র নদ ভাঙ্গন রোধে জিও ব্যাগ ডাম্পিং সহ বাশ পাইলিং,বিভিন্ন ভাতাসহ উপজেলা জুড়ে প্রায় ৭ হাজার কোটি টাকা উন্নয়ন করেছেন। উন্নয়নের ধারা অব্যহত রাখতে আবারো তাকেই বিজয়ী করবেন বলে জানিয়েছেন ইসলামপুরের জনগন।