https://bangla-times.com/
ঢাকারবিবার , ২৬ নভেম্বর ২০২৩

‘এবারের নির্বাচন প্রতিদ্বদ্বিতাপূর্ণ হবে’

চট্টগ্রাম ব্যুরো
নভেম্বর ২৬, ২০২৩ ৫:২৮ অপরাহ্ণ । ১২১ জন
Link Copied!

আইনশৃঙ্খলা বাহিনী ও প্রশাসনের শীর্ষ কর্মকর্তাদের আগামী দ্বাদশ জাতীয় নির্বাচন উপলক্ষ্যে কি কি নির্দেশনা দিয়েছেন সাংবাদিকদের প্রশ্নের জবাবে নির্বাচন কমিশনার বলেন, আমরা আজকে দ্বাদশ জাতীয় সংসদ নির্বাচন উপলক্ষে চট্টগ্রাম জেলা রিটার্নিং অফিসার, সহকারি রিটার্নিং অফিসার, আইনশৃঙ্খলার রক্ষাকারী বাহিনীর সদস্য ও সংশ্লিষ্ট কর্মকর্তাগণ এর সাথে মতবিনিময় করেছি। আমাদের একটাই নির্দেশনা নির্বাচন সুষ্ঠু, অবাধ ও গ্রহণযোগ্য করতে হবে। এক্ষেত্রে কোন প্রকার পক্ষপাত মূলক আচরণ কিংবা শৈথিল্য প্রদর্শন করা যাবে না। কারো পক্ষপাত মূলক আচরণের কারণে যদি নির্বাচন প্রশ্নবিদ্ধ হয় তার বিরুদ্ধে তদন্ত সাপেক্ষে ব্যবস্থা নেয়া হবে।

রোববার (২৬ নভেম্বর) দ্বাদশ জাতীয় সংসদ সাধারণ নির্বাচন ২০২৪ উপলক্ষ্যে জেলা রিটার্নিং অফিসার, সহকারি রিটার্নিং অফিসার, আইনশৃঙ্খলা রক্ষাকারী বাহিনীর সদস্য ও সংশ্লিষ্ট কর্মকর্তাগণের সাথে চট্টগ্রাম সার্কিট হাউসের সম্মেলন কক্ষে প্রধান অতিথি হিসেবে নির্বাচন কমিশনার মোঃ আনিছুর রহমান মতবিনিময় করেন। সভায় সভাপতিত্ব করেন চট্টগ্রাম বিভাগীয় কমিশনার মোঃ তোফায়েল ইসলাম।

যে সমস্ত দল নির্বাচনে অংশগ্রহণ করেছেন তারা এখনো নির্বাচন সুষ্ঠু হবে কিনা তা নিয়ে সন্ধিহান এ ব্যাপারে আপনার নির্দেশনা কি এ প্রশ্নের জবাবে তিনি বলেন, আমরা বরাবরই বলে আসছি, আমরা একটি সুষ্ঠু, গ্রহণযোগ্য এবং অবাধ নির্বাচন করতে চাই। সেজন্য উপযুক্ত পরিবেশ সৃষ্টির জন্য যা যা করার দরকার তা করা হচ্ছে এবং হবে। এ বিষয়ে এখনো কেউ কিছু বলেনি। আমরা আপনাদের মাধ্যমে জানতে পারছি বিভিন্ন দল বিভিন্নভাবে আগ্রহ প্রকাশ করেছে। ইতিমধ্যে অনেকগুলো দল অংশগ্রহণ করেছে এবং করছে। তা দেখে মনে হচ্ছে এবারের নির্বাচন প্রতিদ্ব›িদ্বতাপূর্ণ হবে। এবারের নির্বাচনকে শুধু আমরা আমাদের চোখে দেখছি না, বিশ্ববাসী ও দেখছে। সুতরাং নির্বাচনকে গ্রহণযোগ্য করার কোন বিকল্প নেই, করতেই হবে।

ভোটারদের যেন কোন প্রকার ভয়ভীতি দেখানো না হয় এবং ভোটার সংখ্যা কিভাবে বাড়ানো যায় সেজন্য কোন পদক্ষেপ নিয়েছে কিনা এ প্রশ্নের জবাবে কমিশনার বলেন, ভোটারকে কেন্দ্রে আনা নির্বাচন কমিশন বা নির্বাচনকারী কর্মকর্তা কিংবা আইনশৃঙ্খলা রক্ষাকারী বাহিনীর কাজ নয়। যে নির্বাচন করবে সেই প্রার্থীর ও দলের এবং দলের কর্মী সমর্থকদের। আমরা বলে দিয়েছি ভোটারদের কোন প্রকার ভয়-ভীতি প্রদর্শন করতে চেষ্টা করলে তাদের বিরুদ্ধে তদন্ত সাপেক্ষে ব্যবস্থা গ্রহণ করা হবে।

সামনে নির্বাচন, কিছু কিছু দল নির্বাচনে যাচ্ছেনা, আবার নির্বাচন বানচাল করার ঘোষণা দিয়েছে। যদি কেউ নির্বাচন বানচাল করতে চায় সেক্ষেত্রে, তাদের বিরুদ্ধে নির্বাচন কমিশনের পক্ষ থেকে কোন ব্যবস্থা গ্রহণ করা হবে কিনা এ প্রশ্নের জবাবে কমিশনার বলেন, নির্বাচন করা এবং না করার এখতিয়ার প্রত্যেকটি দলের আছে। তবে, নির্বাচন বানচাল করার অধিকার কারো নেই। কোন আইনেও তা দেওয়া নেই। যদি কেউ এরকম অপচেষ্টা করে, তাদের বিরুদ্ধে ব্যবস্থা নেওয়া হবে।