https://bangla-times.com/
ঢাকাশুক্রবার , ৩ মে ২০২৪
  • অন্যান্য

উপজেলা চেয়ারম্যানকে লক্ষ্য করে গুলি, আলোচনায় বদি

কক্সবাজার প্রতিনিধি
মে ৩, ২০২৪ ৯:১৭ অপরাহ্ণ । ২৫ জন
Link Copied!

কক্সবাজারের টেকনাফ উপজেলা চেয়ারম্যান নুরুল আলমকে লক্ষ্য করে গুলি করার অভিযোগ উঠেছে সাবেক এমপি আবদুর রহমান বদির বিরুদ্ধে। সংবাদ সম্মেলনে এমন অভিযোগ করেছেন উপজেলা চেয়ারম্যান প্রার্থী ও উপজেলা যুবলীগের সভাপতি নুরুল আলম। তিনি টেকনাফ উপজেলা পরিষদের বর্তমান চেয়ারম্যান।

শুক্রবার (৩ মে) বিকাল ৫টার দিকে টেকনাফ পৌরসভার শাপলা চত্বরে নিজ কার্যালয়ে সংবাদ সম্মেলনে উপজেলা চেয়ারম্যান প্রার্থী নুরুল আলম বলেন, বৃহস্পতিবার (২ মে) রাত সাড়ে ১০টার দিকে টেকনাফের হোয়াইক্যং ইউনিয়নের কম্বনিয়া পাড়া এলাকায় আমাকে লক্ষ করে গুলিবর্ষণ করা হয়। সংসদ সদস্য স্টিকার লাগানো একটি গাড়িতে আব্দুর রহমান বদি ও উপজেলা চেয়ারম্যান প্রার্থী জাফর আহমদ ঘটনাস্থলে পরপর দুই রাউন্ড গুলিবর্ষণ করেন। কৌশলগত কারণে তা আমার গায়ে লাগেনি। আমি বিষয়টি সাথে সাথে গোয়েন্দা সংস্থা ও বিভিন্ন আইন প্রয়োগকারী সংস্থাকে অবিহিত করেছি এবং থানায় সাধারণ ডায়েরি করেছি।

তিনি বলেন, যেহেতু আমি আবারও উপজেলা পরিষদ নির্বাচন করছি। সে লক্ষ্যে বৃহস্পতিবার বিকালে হোয়াইক্যং ইউনিয়ন যুবলীগ ও ছাত্রলীগের উদ্যোগে আয়োজিত একটি আলোচনাসভায় উপস্থিত ছিলাম। একই দিন রাতে হোয়াইক্যংয়ের কম্বনিয়াপাড়া, পশ্চিম মহেশখালীয়া পাড়ার মুরব্বি এবং মেম্বারদের সাথে দেখা করি। পরে প্রায় ৬০ থেকে ৭০ জন লোকের মধ্যে দাঁড়িয়ে কথা বলছিলাম। সেখানে হঠাৎ সাবেক এমপি বদি ও জাফর চেয়ারম্যানসহ ২০ থেকে ৩০ জন লোক আমাদের পাশে এসে সমাগম লক্ষ্য করে দুই রাউন্ড ফাঁকা গুলিবর্ষণ করে আতঙ্ক সৃষ্টি করেন। চেয়ারম্যান নুরুল আলমের দাবি, আবদুর রহমান বদি নিজেই তার পিস্তল দিয়ে গুলি করেছেন।

এ বিষয়ে জানতে উখিয়া-টেকনাফের সাবেক এমপি আবদুর রহমান বদির মোবাইল ফোনে একাধিকবার কল দিলেও তিনি ফোন রিসিভ না করায় তার বক্তব্য নেওয়া সম্ভব হয়নি।

টেকনাফ থানার ওসি মুহাম্মদ ওসমান গনি বলেন, নুরুল আলম চেয়ারম্যান একটি ডিজি করেছেন। গুলিবর্ষণের বিষয়টি মানুষের মুখে শোনা যাচ্ছে। এ ব্যাপারে আইনগত ব্যবস্থা প্রক্রিয়াধীন।