https://bangla-times.com/
ঢাকাবৃহস্পতিবার , ২১ মার্চ ২০২৪
  • অন্যান্য

অস্ত্রের মুখে ৫ কৃষককে অপহরণ, মুক্তিপণ দাবি ৩০ লাখ

কক্সবাজার প্রতিনিধি
মার্চ ২১, ২০২৪ ৭:০৪ অপরাহ্ণ । ৭৮ জন
Link Copied!

কক্সবাজারের টেকনাফ থেকে পাচঁ কৃষক অপহরণের শিকার হয়েছেন। বৃহস্পতিবার (২১ মার্চ) ভোরে হ্নীলার পানখালী এলাকায় পাহাড়ি এলাকা থেকে তাদের অস্ত্রের মুখে জিম্মি করে নিয়ে যায় অপরহরণকারীরা । অপহৃতদের উদ্ধারে ত্রিশ লাখ টাকা দাবি করেছে অপহরণকারীরা ।

অপহৃতরা হলেন- মো. রফিক( ২২) জিহান( ১৩), শাওন( ১৫), মো. নুর( ১৮) ও আব্দু রহমান( ১৫) ।

পাচঁ কৃষক অপহরণের শিকারের বিষয়টি স্বীকার করে টেকনাফের হ্নীলা ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান রাশেদ মাহমুদ আলী বলেন, অপহরণের খবরটি শুনে এলাকায় এসেছি । অপহৃতদের উদ্ধারের বিষয়ে আমরা সবাই মিলে কাজ করছি ।

এদিকে মুক্তিপণ চেয়ে অপহৃত রফিকের বড় ভাইমো.শফিককের কাছে মুঠোফেনে ত্রিশ লাখ টাকা দাবি করেছে অপহরণকারীরা । এ বিষয়ে শফিক বলেন, ছেলে প্রতিদিনের ন্যায় জুম চাষে পাহাড়ে যায় । কিন্তু ছেলে আজকে সেহেরি খেতে না আসায় তাকে খোঁজতে বের হয় । পরে জানতে পায় তাদের পাচঁজনকে ধরে নিয়ে যায় । অবশেষে( বৃহস্পতিবার) দুপুরে ফোনে মুক্তিপণ চেয়ে ৩০ লাখ টাকা দাবি করে অস্ত্রধারীরা । বিষয়টি আমি জনপ্রতিনিধিকে অবিহিত করেছি ।

জানতে চাইলে টেকনাফ মডেল থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা( ওসি) মুহাম্মদ ওসমান গনি জানান, ‘ অপহরণে বিষয়টি আমাকে কেউ এখনো অবহিত করেনি । এরপরও আমি খোঁজ- খবর নিচ্ছি । ’

এর আগে সর্বশেষ গত ৯ মার্চ হ্নীলার পূর্ব পানখালী এলাকা থেকে মাদ্রাসা পড়ুয়া ছাত্র ছোয়াদ বিন আব্দুল্লাহ( ৬) কে অপহরণ করে নিয়ে যায় অপহরণকারীরা । ১২ দিন অতিবাহিত হলেও এখনো তাকে উদ্ধার করা যায়নি ।

গত ৯ মার্চ টেকনাফ হ্নীলা ইউনিয়নের পূর্ব পানখালী গ্রামের মোহাম্মদ আব্দুল্লাহ ছেলে ছোয়াদ বিন আব্দুল্লাহ( ৬) কে আবু হুরাইরা মাদ্রাসার সামনে থেকে অপহরণ করে নিয়ে যায় । সে উক্ত মাদ্রাসার প্রথম শ্রেণির ছাত্র । ১২ দিন অতিবাহিত হলেও অপহৃত ছোয়াদকে এখনো উদ্ধার করতে পারেনি পুলিশ । এদিকে অপহরণ চক্রের সদস্যরা ছোয়াদ এরমা’কে ফোন করে ২০ লাখ টাকা মুক্তিপণ দাবি করা হয় ।

২০২৩ সালের মার্চ থেকে ২০২৪ এর মার্চ পর্যন্ত পাহাড়কেন্দ্রিক ১০৩টি অপহরণের ঘটনা ঘটেছে। এরমধ্যে ৫২ জন স্থানীয় এবং ৫১ জন রোহিঙ্গা । এরমধ্য বেশির ভাগই মুক্তিপণ দিয়ে ফিরতে হয়েছে ।