https://bangla-times.com/
ঢাকাবৃহস্পতিবার , ২ মে ২০২৪

অবশেষে নামলো স্বস্তির বৃষ্টি, বজ্রপাতে শিক্ষার্থীসহ নিহত ৫

বাংলা টাইমস্
মে ২, ২০২৪ ২:১০ অপরাহ্ণ । ৩০ জন
Link Copied!

তীব্র তাপপ্রবাহের পর শুরু হয়েছে স্বস্তির বৃষ্টি। দেশের কয়েক জেলায় বৃষ্টি হয়েছে। সেই সাথে হয়েছে বজ্রপাতও। বজ্রাঘাতে পাঁচজনের মৃত্যু হয়েছে। বৃহস্পতিবার (২ মে) সকাল ৯টার দিকে চট্টগ্রামে বজ্রসহ বৃষ্টি শুরু হয়। এর আগে বুধবার রাতেও কিছু কিছু জায়গায় হালকা বৃষ্টি হয়।

ফেনীতে বৃহস্পতিবার (২ মে) সকাল পৌনে ৯টার দিকে বজ্রসহ বৃষ্টি শুরু হয়। তবে বৃষ্টি বেশিক্ষণ ছিলো না। ফেনী আবহাওয়া অফিস জানায়, বৃহস্পতিবার সকাল পৌনে ৯টায় শুরু হওয়া বৃষ্টি ৩-৪ মিনিট স্থায়ী ছিল।

রাঙামাটিতে বৃহস্পতিবার সকালে বজ্রপাতে দুইজনের মৃত্যু হয়েছে। মৃতরা হলো মো. নজির (৫০) এবং বাহার জান বেগম (৫৫)।

বাঘাইছড়ি ইউএনও শিরিন আক্তার জানান, বাঘাইছড়ি উপজেলার মুসলিম ব্লক গ্রামে গরু নিয়ে বের হওয়ার সময় বজ্রপাতে বাহারজান বেগম (৫৫) নামে এক নারীর মৃত্যু হয়।

রাঙামাটিতেমো. নজির নামের এক ব্যক্তি বজ্রপাতে মারা গেছেন। পরিবারের সদস্যরা জানান, বৃহস্পতিবার সকালে কাপ্তাই হ্রদে মাছ ধরার জন্য বড়শি নিয়ে বসে ছিলেন। এমন সময় বজ্রঘাতে তার মৃত্যু হয়।

খাগড়াছড়ি মাটিরাঙ্গায় বৃহস্পতিবার সকালে বজ্রপাতে এক স্কুল শিক্ষার্থীর মৃত্যু হয়েছে।তার নাম ইয়াছিন আরাফাত। দমকা হাওয়ার সময় গাছ থেকে আম কুড়াতে যায় আরাফাত। এই সময় বজ্রাঘাতে তার মৃত্যু হয়।

কক্সবাজারের পেকুয়ায় বজ্রপাতে দুই লবণচাষীর মৃত্যু হয়েছে। বৃহস্পতিবার ভোরে উপজেলার কোদাইল্যাদিয়া ও ছড়ি পাড়া এলাকায় এ ঘটনা ঘটে। নিহতরা হলো-দিদারুল ইসলাম (৩৫) ও মো. আরমান (২৫)।

এছাড়া রংপুর জেলার বদরগঞ্জ, পীরগাছা ও মিঠাপুকুরে বুধবার (১ মে) রাত ২টার বৃষ্টি ঝরেছে। বৃহস্পতিবার সকালে রংপুরের আকাশে সূর্য উঠলেও আবহাওয়া শীতল।

নেত্রকোণায় হঠাৎ কয়েক মিনিটের জন্য বৃষ্টি হয়। বৃহস্পতিবার (২ মে) বেলা ১১টার দিকে পৌর শহরের মোক্তারপাড়াসহ আশপাশের এলাকায় হালকা ও মাঝারি ধরনের বাতাসের পাশাপাশি বৃষ্টি হয়। এর ফলে জনমনে স্বস্তি নেমে আসে।

বৃহস্পতিবার (২ মে) আবহাওয়ার পূর্বাবাসে বলা হয়- সিলেট ও চট্টগ্রাম বিভাগের কিছু কিছু জায়গায় এবং ময়মনসিংহ, ঢাকা ও বরিশাল বিভাগের দু’এক জায়গায় বৃষ্টি বা বজ্রসহ বৃষ্টি হতে পারে।

খুলনা, যশোর,চুয়াডাঙ্গা, রাজশাহী ওপাবনা জেলা সমূহের উপর দিয়ে অতি তীব্র তাপপ্রবাহ এবং টাঙ্গাইল, ফরিদপুর, গোপালগঞ্জ এবং খুলনা বিভাগের অবশিষ্টাংশের উপর দিয়ে তীব্র তাপপ্রবাহ বয়ে যাচ্ছে।